Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

নিজের শুক্রাণু দিয়ে ফেঁসে গেলেন ফার্টিলিটি চিকিৎসক  

নিজের শুক্রাণু দিয়ে ফেঁসে গেলেন ফার্টিলিটি চিকিৎসক   
ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে কৃত্রিমভাবে গর্ভধারণ করতে আসা নারীদের গর্ভে ভুল শুক্রাণু সরবরাহ করে আসছিলেন বার্নার্ড নর্মান বারউইন (৮০) নামে এক ফার্টিলিটি চিকিৎসক। এর মধ্যে কয়েক বার নিজের শুক্রাণুও ব্যবহার করেন তিনি। 

তার এমন আতঙ্কজনক এবং নিন্দনীয় কাজের কথা প্রকাশ হওয়ায় ফেঁসে গেছেন তিনি। এরই মধ্যে বাতিল করা হয়েছে তার চিকিৎসকের লাইসেন্স।

ওন্টারিও’র চিকিৎসক ও সার্জন কলেজের শাস্তিদায়ক প্যানেল তাকে ১০ হাজার কানাডিয়ান ডলার জরিমানা করেছে। মেডিকেল রেগুলেটরির পক্ষ থেকে ওই চিকিৎসকের উদ্দেশে বলা হয়েছে, আপনি রোগীদের বিশ্বাস ভঙ্গ করেছেন। আপনার এমন কাজে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও তার পরিবারের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে, যার প্রভাব তাদের প্রজন্মের পর প্রজন্ম বইতে হবে।

তবে এ শুনানিতে তিনি উপস্থিত ছিলেন না। তার আইনজীবীরা এতে অংশ নিলেও তার পক্ষে কোনো যুক্তি দেননি।

২০১৪ সালে তিন নারীর গর্ভে ভুল শুক্রাণু সঞ্চার করানোর অভিযোগে তিনি তার চিকিৎসকের লাইসেন্স ছেড়ে দেন। তদন্তে ইচ্ছাকৃতভাবে নিজেরসহ বিভিন্ন জনের ভুল শুক্রাণু ব্যবহার করার বিষয়টি ধরা পড়ায় এখন তার লাইসেন্সই বাতিল করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তিনি যাতে কাউকে কোনো চিকিৎসা দিতে না পারেন এবং প্রাকটিস করতে না পারেন সেজন্য সতর্ক করা হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে। যাতে অভিযোগ করা হয়েছে যে তিনি অন্তত ৫০ থেকে ১০০ শিশুর জন্ম হয়েছে ভুল শুক্রাণুতে। এর মধ্যে ১১ বার তিনি নিজের শুক্রাণু ব্যবহার করেছেন।

কৃত্রিমভাবে গর্ভধারণের ফলে জন্ম নেওয়া একটি শিশুর জেনেটিক ব্যাকগ্রাউন্ড ও বংশের বিস্তারিত তথ্য (ফ্যামিলি ট্রি) সম্পর্কে জানতে গিয়ে ওই পরিবারের কাছে এ জঘন্য বিষয়টি ধরা পড়ে। এছাড়া এভাবে জন্ম নেওয়া আরেকটি শিশুর সেলিয়াক রোগ ধরা পড়ে। বংশগত এ রোগ তার বাবা-মা কারোই নেই। এ দু’টি ঘটনার পর এ ব্যাপারে অনুসন্ধান করলে বেরিয়ে আসে চিকিৎসকের অপকর্মের চিত্র।

আপনার মতামত লিখুন :

তুরস্কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৫, বাংলাদেশি থাকার আশঙ্কা

তুরস্কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৫, বাংলাদেশি থাকার আশঙ্কা
তুরস্কে বাস দুর্ঘটনা

দক্ষিণ পূর্ব তুরস্কে এক মিনিবাস দুর্ঘটনায় অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছেন এবং প্রায় ২০ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। এই অবৈধ অভিবাসীদের মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিক থাকার সম্ভাবনাও রয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

তার্কিশ টিভি চ্যানেল এনটিভি'র এক ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, তুরস্কের ভ্যান প্রদেশে এই দুর্ঘটনা ঘটে। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি গড়িয়ে একটি খাদে যেয়ে পড়ে।  আহতরা রাস্তার পাশে পড়ে আছে।

এনটিভি জানিয়েছে, বাসটি খাদে পড়ার আগেই কয়েকজন যাত্রী বাস থেকে ঝুলে পড়েন। বাসটির গন্তব্য এবং অভিবাসীদের জাতীয়তা সর্ম্পকে এখনো কিছু জানা যায়নি। ভ্যান প্রদেশের গভর্নর মেহমেত এমিন বিলমেজ এনটিভিকে বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, বাসে থাকা যাত্রীরা আফগান, পাকিস্তানি এবং বাংলাদেশি।

 

জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২৬

জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২৬
জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে আগুন/ছবি: বিবিসি

জাপানের কিয়োটো শহরের একটি অ্যানিমেশন স্টুডিওতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২৬ জন নিহত হয়েছেন। উদ্ধারকৃত ১২ জন আহত এবং ৩০ জনের বেশি নিখোঁজ রয়েছে। 

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকালে কিয়োটোর একটি অ্যানিমেশন স্টুডিওর তিনতলা  ভবনে আগুন লাগে।

পুলিশ জানায়, ঘটনার সময় স্টুডিওতে লক্ষ্য করে এক ব্যক্তি তরল দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করে। পরবর্তীতে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

পুলিশ ইতোমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করেছে। সন্দেহভাজনের  নাম এখনও  প্রকাশ করা হয়নি।

ফায়ার সার্ভিস কতৃপক্ষ জানায়, তিনতলার প্রতিটি কক্ষই আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আহতদের হাসপাতলে নেওয়া হয়েছে।   উদ্ধারকাজ অব্যাহত রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র