Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

চীনা ছাত্রী হত্যাকারী মার্কিন যুবকের যাবজ্জীবন

চীনা ছাত্রী হত্যাকারী মার্কিন যুবকের যাবজ্জীবন
চীনা ছাত্রী জাং জিনজিয়াং/ ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক চীনা ছাত্রীকে অপহরণ ও হত্যার অপরাধে এক মার্কিন পিএইচডি শিক্ষার্থীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আদালত।

আসামি ব্রেন্ডট ক্রিস্টেনসেনকে মৃতুদণ্ড দেওয়া হবে কিনা এই সিদ্ধান্তে একমত হতে পারেনি বিচারকদের জুরি বোর্ড। পরে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ২০১৭ সালের জুনে ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে চীনা শিক্ষার্থী জাং জিনজিয়াংকে অপহরণ করে ক্রিস্টেনসেন। পরে জাং জিনজিয়াংকে বেসবলের ব্যাট দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে ক্রিস্টেনসেন এবং জাং জিনজিয়াংয়ের মাথা শরীর থেকে আলাদা করে ফেলে। শরীরের আলাদা করা অংশ আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শিকাগোর দক্ষিণ-পশ্চিমের পিউরিয়ায় অনুষ্ঠিত পাঁচ সপ্তাহব্যাপী বিচার কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন জাং জিনজিয়াংয়ের বাবা-মা ও বাগদত্তা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/19/1563537807568.gif
যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মার্কিন যুবক ক্রিস্টেনসেন/ ছবি: সংগৃহীত

 

চীনা কর্মকর্তাদের সামনেই এই বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। রায়ে ক্রিস্টেনসেনকে মৃতুদণ্ড না দেওয়ায় চীনজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

ক্রিস্টেনসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ডিস্ট্রিক্ট জজ জেমস শহিদ বলেন, ‘ক্রিস্টেনসেনের এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড বর্ণনা করার মতো না।’ রায় অনুযায়ী ক্রিস্টেনসেনের কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বিচারক আরও বলেন যে, জাংয়ের শরীরের অবশিষ্ট অংশ কোথায় আছে তা হয়তো তার পরিবার আর নাও জানতে পারে।

রায় ঘোষণার সময় ক্রিস্টেনসেন কোনো কথা বলেনি। এদিকে জাংয়ের বাবা বঙ্গাও জাং গণমাধ্যমকে বলেন যে, জাংয়ের দেহাবশেষ ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত তার পরিবার শান্তি পাবে না।

আপনার মতামত লিখুন :

দিল্লিতে হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

দিল্লিতে হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
দিল্লিতে হাসপাতালের আগুন, ছবি: সংগৃহীত

ভারতের দিল্লিতে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সাইন্স (এআইআইএমএস) হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। আগুনের কালো ধোঁয়া হাসপাতালের আশেপাশে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে। এখনও পর্যন্ত হাসাপাতলটিতে আগুন নেভানর কাজে ফায়ার সার্ভিসের ৩৮টি ইউনিট কাজ করছে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, শনিবার (১৭ আগস্ট) বিকেল ৫টায় হাসপাতালটিতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এখনও পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। 

খবরে আরও জানানো হয়, হাসপাতালের জরুরী বিভাগের পাশে আগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566045678296.jpg

 

এ মূহুর্তে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নেভানোর কাজ করছে। ইতোমধ্যে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা হাসপাতাল থেকে মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা জানান, হাসপাতালের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় আগুনের কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়েছে। পিটিআই সংবাদসংস্থা থেকে মোবাইল ফোনে হাসপাতালের কম্পিউটার থেকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়।   

এদিকে হাসপাতালটিতে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি চিকিৎসারত ছিলেন। গত ৯ আগস্ট  তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, তিনি হাসপাতালের যে ভবনে আছেন সেটি নিরাপদ রয়েছে।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে৷

বিদেশি পর্যটকদের মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

বিদেশি পর্যটকদের মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা, ছবি: সংগৃহীত

বিদেশি পর্যটকদের মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে এ অঞ্চলের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে স্বদেশী নাগরিকদের এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) উত্তরাঞ্চলীয় শান স্টেটে সশস্ত্র বিদ্রোহী জোটের হামলার পরে বিদেশিদের জন্য পাইয়ন ওও লুইন, ন্যাংচো এবং থিবাবের ভ্রমণ বাতিল করতে ট্র্যাভেল এজেন্সিগুলোকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566022354804.jpg

 

মিয়ানমার পর্যটন উদ্যোক্তা সমিতির কার্যালয়ের কর্মকর্তা ইউ ময়ো ইয়ে বলেন, ট্র্যাভেল এজেন্সিগুলোকে বলা হয়েছে তারা যেন এখন বিদেশি পর্যটক এদিকে না নিয়ে আসে।

বৃহস্পতিবার মিয়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠী একজোট হয়ে আর্মি একাডেমিসহ ছয়টি স্থানে সমন্বিত হামলা চালায়। এটি ভয়াবহ ঘটনা। কারণ এ বিদ্রোহী জোটটি আক্রমণগুলিতে ১০৭ মিলিমিটার রকেট ব্যবহার করেছে বলে নিশ্চিত হয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। হামলায় সামরিক বেসামরিকসহ কমপক্ষে ১৪ জন নিহত হয়েছেন।

আরাকান আর্মি (এএ), মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স আর্মি এবং তাআং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি এক জোট হয়ে এ হামলা চালায়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566022335753.jpg

 

পর্যটন উদ্যোক্তা সমিতির কার্যালয়ের কর্মকর্তা ইউ ময়ো ইয়ে বলেন, কিছু বিদেশ ভ্রমণকারী ইতোমধ্যে থিবা পৌঁছেছে এবং কিছুদিনের জন্য সেখানে তারা আটকে যেতে পারে। আমরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি তবে আমরা জানি না কতজন সেখানে আটকে রয়েছেন। আমরা পর্যটন এজেন্সিগুলোকে সতর্কতা  অবলম্বন এবং ট্যুর বাতিল করতে বলেছি। ট্র্যাভেল এজেন্টদের যে অঞ্চলে  যুদ্ধ চলছে সে এলাকায় যেতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

পর্যটক নির্দেশক ইউ থান নাইং জানান, বর্ষাকাল হওয়ায় পাইয়ন ওও লুইন, ন্যাংচো এবং থিবাওতে দেশি পর্যটকদের সংখ্যা কম। তবে শুধুমাত্র ইউরোপীয় দেশগুলির পর্যটকরা বর্ষাকালে এই জায়গাগুলি পরিদর্শন করেন। কিন্তু ইতিমধ্যে অনেকে তাদের ভ্রমণ বাতিল করেছেন।

আরও পড়ুন, 

মিয়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠী একজোট হয়ে হামলা চালাচ্ছে

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র