পেনাংয়ে সবচেয়ে বেশি আটক বাংলাদেশি অভিবাসী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মালয়েশিয়ার পেনাংয়ে বছরের প্রথম ৬ মাসে সবচেয়ে বেশি আটক হয়েছেন বাংলাদেশের অবৈধ অভিবাসীরা। এরই মধ্যে অবৈধ অভিবাসী ধরতে বেশ সক্রিয় হয়ে উঠেছে মালয়েশিয়ার পেনাং ইমিগ্রেশন বিভাগ। তবে অভিযানের পূর্বেই তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়াতে বিপাকে পড়ছে সংস্থাটি।

পেনাং ইমিগ্রেশন বিভাগের পরিচালক মুহাম্মদ হুসনি মাহমুদ বলেছেন, তার অফিসারদের অভিযানে যাওয়ার বিষয়টি সার্বক্ষণিকভাবে একটি অপরাধী চক্র পর্যবেক্ষণ করছে এবং অভিযানের পূর্বেই অবৈধ অভিবাসীদের সিন্ডিকেটগুলোকে জানিয়ে দিচ্ছে। ফলে ইমিগ্রেশন কার্যালয় সেবেরাং জায়ায় নিরাপত্তা আরো বৃদ্ধির দিকে নজর দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, যাই হোক আমরাও নিজস্ব পরিকল্পনা তৈরি করেছি এই সিন্ডিকেটকে নিয়ন্ত্রণে আনতে। যারা অবৈধ অভিবাসীদের নিয়োগ দিয়েছেন এবং এই ধরনের গোয়েন্দাগিরি করছেন, তারা রক্ষা পাবেন না। কারণ আমরা অভিযানের সংখ্যা আরো বাড়িয়ে দিবো।

মুহাম্মদ হুসনি বলেন, বছরের প্রথম ৬ মাসে প্রতিদিন কমপক্ষে ৪ টি করে অভিযান পরিচালনা করেছি আমরা অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে এবং যারা অভিবাসী সংক্রান্ত অপরাধ ঘটিয়ে যাচ্ছে, তাদের আটক করতে।

তিনি বলেন, গত বছরের শেষ ৬ মাসে আটক হয়েছিলেন এক হাজার ৪৪৬ জন বিদেশি। চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে আটক হয়েছেন এক হাজার ৫৫৬ জন অবৈধ অভিবাসী।

তিনি জানান, আটক হওয়া অভিবাসীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আটক হয়েছেন বাংলাদেশের নাগরিক। মোট ৬৩১ জন বাংলাদেশি প্রথম ৬ মাসে আটক হয়েছেন। এরপরে রয়েছেন, ৩৪৬ জন ইন্দোনেশিয়ান, মায়ানমারের ৩৩১ জন, থাইল্যান্ডের ১২৬ জন, ভিয়েতনামের ১২৬ জন এবং বাকিরা অন্যান্য দেশের।

তিনি বলেন, এছাড়াও এই প্রথম ৬ মাসে ২ হাজার ৩৪ জন অভিবাসী বিভিন্ন মেয়াদের সাজা বরন করে মালয়েশিয়া নিজ নিজ দেশে ফিরে গিয়েছেন।

তিনি বলেন, যেসব অভিবাসী পেনাংয়ে কাজ করছেন, তাদের আমাদের আইন ও নিয়ম কানুন মেনেই থাকতে হবে।

আপনার মতামত লিখুন :