রেকর্ড ভাঙতে গিয়ে মারা গেলেন ‘চার চাকার দ্রুততম নারী’

ফিচার ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ করে নেওয়া গতির ঝড়ই কেড়ে নিল জেসি কম্বসের জীবন

জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ করে নেওয়া গতির ঝড়ই কেড়ে নিল জেসি কম্বসের জীবন

  • Font increase
  • Font Decrease

‘চার চাকার দ্রুততম নারী’ খেতাব পাওয়া রেস কার ড্রাইভার জেসি কম্বস মারা গেলেন নতুন রেকর্ড গড়তে গিয়ে। বর্তমান রেকর্ড ভাঙতে আরো দ্রুতগতিতে গাড়ি চালাতে গিয়ে মঙ্গলবার কার ক্র্যাশে আহত হয়ে মারা যান তিনি।

একটি জেটচালিত কার দিয়ে ল্যান্ড স্পিড রেকর্ড ভাঙতে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি, জানান রেস আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্ব ওরেগনের আলভোর্দ মরুভূমিতে ঘটে এই দুর্ঘটনা।

মহিলা রেসার হিসেবে তিনি খ্যাতি অর্জন করেছিলেন বেশ কয়েক বছর ধরেই। ২০১৩-তে, উত্তর আমেরিকান ঈগল সুপারসোনিক স্পিড চ্যালেঞ্জার প্রতিযোগিতায় চার চাকার রেস গাড়ির দ্রুততম নারী রেসার হবার গৌরব অর্জন করেন কম্বস। সেখানে প্রতি ঘণ্টায় ৩৯৮কিঃমিঃ পাড়ি দেওয়ার রেকর্ড গড়েন তিনি।

সেই বছরের অক্টোবরেই কম্বস নতুন রেকর্ড গড়েন প্রতি ঘণ্টায় ৪৮৩কিঃমিঃ পাড়ি দেওয়ার মাধ্যমে। আর এই গতির নেশাই কাল হলো তার জন্য। মঙ্গলবার নতুন গতির রেকর্ডের দিকে ধাবিত হতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়ে মারা যান তিনি।

“অগাস্ট ২৭, ২০১৯-এ বিকেল চারটার দিকে হারনি কাউন্টি ৯১১ সেন্টার একটি কল পায়, যাতে বলা হয় আলভোর্দ মরুভূমিতে ল্যান্ড স্পিড রেকর্ড ভাঙার প্রচেষ্টায় ভয়াবহ দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছে একজন,” জানায় স্থানীয় পুলিশ স্টেশন।

গতির খেলায় পরিপূর্ণ তার ক্যারিয়ার। প্রথম নারী হিসেবে তিনি অংশ নিয়েছিলেন কোনো আল্ট্রা ফোর ইভেন্টে। পুরুষদের রেসে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা প্রথম নারী রেসারও তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/29/1567078318924.jpg
◤ নারীদের জন্য নির্মিত বিভিন্ন টিভি শোতে সঞ্চালক হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি ◢


মোটরগাড়ি শিল্পে নারীর ক্ষমতায়নে তাঁর ভূমিকাও ছিল যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। শিল্প সংক্রান্ত বিষয়ে নারীদের শিক্ষাদানের ব্যাপারে অনলাইন উদ্যোগের সমন্বয়ক হিসেবেও রেখেছেন ভালো রকমের অবদান। এছাড়াও নারীদের সচেতনতা সৃষ্টির জন্য ‘অল গার্লস গ্যারেজ’ ও ‘ওভারহলিং’-এর মতো বিভিন্ন টিভি শো’তে সঞ্চালক হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :