ইয়েমেনে যুদ্ধাপরাধ : দায়ী হতে পারে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্স

ফিচার ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতিসংঘ মনে করছে, ইয়েমেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সৌদি আরব ও আরব আমিরাতের জোটকে অস্ত্রশস্ত্র, রসদ ও গোয়েন্দা তথ্য দিয়ে সাহায্য করে থাকতে পারে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্স। আর সেরকম প্রমাণিত হলে যুদ্ধাপরাধের দায়ে দেশ তিনটিকে অভিযুক্ত করা যায় বলে মনে করছে সংস্থাটি।

ইতোমধ্যে যুদ্ধের কৌশল হিসেবে ইয়েমেনের বেসামরিক মানুষদের ক্ষুধার্ত রাখার অভিযোগ রয়েছে সৌদি-আমিরাত জোটের বিরুদ্ধে।

আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধে সম্ভাব্য অভিযুক্তদের এক গোপন তালিকা প্রস্তুত করেছে জাতিসংঘের তদন্তকারীরা। আরব দেশগুলো ও ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে চলমান যুদ্ধে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে এই প্রতিবেদন।

তদন্তকারীরা অবশ্য যুদ্ধাপরাধের চিহ্ন পেয়েছেন উভয় পক্ষেরই। আরব দেশগুলোর ভূমিকার পাশাপাশি হুতি বিদ্রোহীদের পেছনে ইরানী মদদেরও উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে যেমন আরব জোটকে দায়ী করা হয়েছে ইয়েমেনের বেসামরিক মানুষের দুরাবস্থায়, তেমনি হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে শিশুদের ব্যবহার ও অবৈধ অবরোধ আরোপের অভিযোগ তোলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে ইয়েমেনের ক্ষমতাসীন সরকারকে উচ্ছেদ করে সেখানকার হুতি বিদ্রোহীরা। এরপর সৌদি আরবের নেতৃত্বে সুন্নী মুসলিম দেশগুলো আগের সরকারকে পুনর্বহালের জন্য যুদ্ধ করছে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে। এ যুদ্ধে প্রাণ হারিয়েছে কয়েক হাজার মানুষ। আশঙ্কা রয়েছে দুর্ভিক্ষেরও।

আপনার মতামত লিখুন :