প্রত্যর্পণ বিল প্রত্যাহারের পরও হংকংয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিল প্রত্যাহারের ঘোষণার পরও থেমে নেই হংকংয়ের বিক্ষোভ। টানা দুই মাস ধরে চলা এ বিক্ষোভ এখনও হংকংকে অস্থিতিশীল করে রেখেছে বলে জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

গত বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে প্রস্তাবিত প্রত্যর্পণ বিল প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি ল্যাম। কিন্তু এ ঘোষণার পরও হংকংয়ের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়, পুলিশ বিক্ষোভকারীদের উপর টিয়ার গ্যাস, পেপার স্প্রে ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করছে।

বিক্ষোভের ১৪ সপ্তাহ পরেও বিক্ষোভকারীদের মিছিলে উত্তাল মংকক শহরের প্রিন্স এডওয়ার্ড রেলস্টেশন। বিক্ষোকারীরা কালো পোশাক-ছাতা এবং মাস্ক পরে বিক্ষোভে যোগ দেন। তাদের মুখে একটাই স্লোগান- চীনের নিয়ন্ত্রণ থেকে হংকংয়ের মুক্তি চাই।

জাস্টিন নামে এক বিক্ষোভকারী বলেন, 'আমরা সরকার ও পুলিশের উপর ক্ষুব্ধ কারণ তারা আমাদের সঙ্গে অন্যায় করছে।'

এদিকে বিক্ষোভের মুখে মংকক শহরের প্রিন্স এডওয়ার্ড রেলস্টেশন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, হংকং চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হিসেবে বিবেচিত হলেও ২০৪৭ সাল অবধি অঞ্চলটির স্বায়ত্তশাসনের নিশ্চয়তা দিয়েছে চীন। ১৯৯৭ সালে হংকংকে চীনের কাছে ফেরত দেওয়া হয়েছিল। ২০১৮ সালের এক ঘটনার প্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত বিলটি পাশ করা হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে তাইওয়ানে ঘুরতে গিয়ে ২০ বছর বয়সী এক নারী তার প্রেমিকের দ্বারা নিহত হন। গর্ভবতী অবস্থায় তাকে কুপিয়ে হত্যা করে হংকংয়ে পালিয়ে যান ঘাতক। তাইওয়ানের কর্মকর্তারা অভিযুক্ত ব্যক্তিকে কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করতে বলেন। তাইওয়ান ও হংকংয়ের বন্দী বিনিময়ের চুক্তি না থাকায় প্রত্যর্পণ বিলটি নতুন করে সামনে আসে। 

হংকংয়ের বিক্ষোভকারীরা অভিযোগ করে জানান, প্রস্তাবিত প্রত্যর্পণ বিলটি পাশ করা হলে হংকংয়ের উপর চীনের নিয়ন্ত্রণ বেড়ে যাবে। এরই ধারাবাহিকতায় হংকংয়ের সাধারণ মানুষ প্রত্যর্পণ বিল প্রত্যাহারের দাবি নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন। পরবর্তীতে বিক্ষোভ বড় আকার ধারণ করলে চীনের উপর হংকংয়ের নিয়ন্ত্রণ থেকে অব্যাহতি চান বিক্ষোভকারীরা।  

আপনার মতামত লিখুন :