কাশ্মীর নিয়ে বিশ্ব উদাসীন থাকতে পারে না: কুরেশি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
শাহ মেহমুদ কুরেশি

শাহ মেহমুদ কুরেশি

  • Font increase
  • Font Decrease

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেছেন, ভারত দখলকৃত কাশ্মীরে যে ট্র্যাজেডি আমাদের চোখের সামনে উদ্ভূত হচ্ছে তাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় অবশ্যই উদাসীন থাকতে পারে না।

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) জেনেভাতে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের ৪২তম অধিবেশনে কাশ্মীরে ভারতের সাম্প্রতিক পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে এ কথা বলেন কুরেশি।

অধিবেশন শেষে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাশ্মীরকে ভারতের রাজ্য উল্লেখ করে সাংবাদিকদের বলেন, কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে এসেছে বলে গোটা বিশ্বের সামনে তুলে ধরছে ভারত। তাহলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলোকে ভারতের ওই রাজ্যে কেন ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না?

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের ভাষণে কুরেশি বলেন, আজ আমি মানবাধিকার কাউন্সিলের দ্বারস্থ হয়েছি। মানবাধিকার নিয়ে বিশ্বের বিবেকের কাছে উপস্থিত হয়েছি। ভারতের অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণের জন্য ন্যায়বিচার ও শ্রদ্ধা কামনা করছি।

তিনি বলেন, আমাদের অবশ্যই এই মর্যাদাপূর্ণ সংস্থাটিকে বিশ্ব মঞ্চে বিব্রত হতে দেওয়া উচিত না। এই কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে পাকিস্তান নৈতিকভাবে এটির সুনাম রক্ষা করতে বাধ্য বলে মনে করি।

শাহ মেহমুদ কুরেশি জোর দিয়ে বলেন, কাশ্মীরে যে ট্র্যাজেডির উদ্ভব ঘটেছে তাতে উদাসীন থাকবেন না। আমাদের অবশ্যই সিদ্ধান্ত নিতে হবে ও দৃঢ়তার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ভারতকে অবিলম্বে বন্দুকের ব্যবহার বন্ধ করে, রক্তপাত বন্ধ করে, কারফিউ তুলে নিয়ে শৃঙ্খলা ও যোগাযোগের ব্যবস্থা ফিরিয়ে দিয়ে রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি দিতে হবে।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের রেজ্যুলুশন এবং বিভিন্ন মানবাধিকার কার্যালয় কাশ্মীরিদের মানবাধিকার লঙ্ঘনে জড়িত অপরাধীদের বিচারের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করুক। এ প্রসঙ্গে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার অফিসের পরামর্শ অনুসারে তদন্ত কমিশন (সিওআই) গঠন করুক। কাশ্মীরে ভারতের মানবাধিকার লঙ্ঘনের ওপর নজরদারি ও রিপোর্ট করার জন্য অনুমোদন দিক এবং নিয়মিত কাউন্সিলকে আপডেট করুক।

কাশ্মীরে মানবাধিকার সংগঠন ও আন্তর্জাতিক প্রচারমাধ্যমকে নিরবচ্ছিন্নভাবে প্রবেশের অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানান পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি।

আপনার মতামত লিখুন :