শিগগিরই পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে কাজ শুরু করবে উত্তর কোরিয়া

বৈঠক শেষে দুপুরের খাবারের পর দ্বিপক্ষীয় একটি বিবৃতিতে সই করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন।

চুক্তি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট-ডিপিআরকে (ডেমোক্রেটিক পিপলস রিপাবলিক কোরিয়া) সম্পর্ক স্থাপনে নতুনভাবে কাজ করবে। যাতে দুই দেশের জনগণের দীর্ঘ মেয়াদী শান্তি ও উন্নতির বিষয়টি প্রতিফলিত হয়।

কোরিয়া উপদ্বীপে দীর্ঘস্থায়ী ও স্থিতিশীল শান্তি রক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ডিপিআরকে যৌথভাবে কাজ করবে।

শিগগিরই কোরিয়ান উপদ্বীপে সম্পূর্ণ পারমাণবিক অস্ত্র নিরসনে কাজ করতে ডিপিআরকে প্রতিশুতিবদ্ধ।

এবং যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়া যুদ্ধবন্দীদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে ভূমিকা রাখবে। যেসব যুদ্ধবন্দী এরই মধ্যে চিহ্নিত হয়েছেন তাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া দ্রুত শুরু করবে। বিবিসির এক বিশ্লেষণে এসব তথ্য বেরিয়ে আসে।

চুক্তি স্বাক্ষরের পর ট্রাম্প বলেন, ‘এই বেঠক করতে পেরে আমি গর্ব বোধ করছি। আমি আশা করছি দু’জনে মিলে আমরা কিছু করতে পারব।’ তবে বৈঠকের ব্যাপারে পরবর্তীতে বিষদভাবে কথা বলবেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সিঙ্গাপুরের সান্তোসা আইল্যান্ডে একটি বিলাশবহুল হোটেলে অনুষ্ঠিত এই বৈঠক ছিলো উত্তর কোরিয়ার কোন শীর্ষ নেতা এবং মার্কিন প্রেসিডেন্টের মধ্যে প্রথম বৈঠক। যার দিকে নজর ছিলো গোটা বিশ্ববাসীর।

 

আন্তর্জাতিক এর আরও খবর