যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা বন্ধ করতে হবে: ট্রাম্প  

 

ঢাকা: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন কোরীয় উপদ্বীপে দশকের পর দশক ধরে চলা যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা বন্ধ করতে হবে। এ অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬ হাজার সৈন্য মোতায়েন রয়েছে যারা বাড়ি ফিরতে চায়। তাছাড়া এ যুদ্ধ যুদ্ধ খেলায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রচুর অর্থ ব্যয় হয় তা বন্ধ করার সময় এসেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে কিম-ট্রাম্প বৈঠক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে ডোনাল্ড ট্রাম্প তিনি এসব কথা জানান। 

এছাড়া এখনেই উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে এখনই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে না যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, এ ব্যাপারে তিনি আন্তরিক। তবে, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত হলেই কেবল নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হবে।

এ বৈঠকটি সফলভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন ছাড়াও চীন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রনেতাদের ধন্যবাদ জানান আমেরিকার প্রেসিডেন্ট।

ট্রাম্প বলেন, শান্তি জন্য বড় এক ঘটনা ছিল আজকের দিনটি। দুই কোরিয়ার মানুষ একই সংস্কৃতি, ভাষা, জীবন যাপন ও নিয়তির অংশ। তাদের নিজেদের থেকে দূরে রাখার দিন শেষ হতে যাচ্ছে।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জন উনকে হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ জানানোর পর তিনি তা সাদরে গ্রহণ করেছেন বলেও জানান তিনি। এ সময় উনের সঙ্গে আবারো বৈঠকের ইচ্ছে আছে বলে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

মঙ্গলবার সকালে কিমের সঙ্গে ৩৫ মিনিটের একান্ত বৈঠক শেষে দ্বিতীয় পর্বে দুই দেশের কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠকে হয়।

এরপরেই ট্রাম্প সাংবাদিকদের জানান, উত্তর কোরিয়ার নেতা সম্পূর্ণভাবে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ করণে প্রতিজ্ঞা করেছেন। এরই মধ্য কিছু অবকাঠামেো ধ্বংস করেছেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে নিয়ে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে কাজ করা হবে।

সমঝোতা স্বাক্ষরের প্রতিক্রিয়ায় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম বলেছেন, বৈঠক আয়োজন করার জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

কোরীয় উপদ্বীপে পূর্ণাঙ্গ পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে একসঙ্গে কাজ শুরুর অঙ্গীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়া।

মঙ্গলবার (১২ জুন) দুই দেশের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের পর এই সংক্রান্ত একটি নথিতে স্বাক্ষর করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন।

 

আন্তর্জাতিক এর আরও খবর