loader
Foto

দুপুরের খাবার সকালে খেলেন ট্রাম্প ও কিম!

এত সকাল সকাল কেউ দুপুরের খাবার খায়! ট্রাম্প ও কিম খান। এই দুই নেতা থাকেন বিশ্বের দুই প্রান্তে। যে কারণে তাদের মধ্যহ্ন ভোজের সময়ও ভিন্ন।

কিন্তু পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ধাক্কায় তাদের ভোজের সময় স্থানীয় সময় সকাল এগারোটায় আয়োজন করা হয়। কারণ সাতসকালে দুই নেতা বসেছিল বৈঠকে। তাই শরীরেও জাদরেল এ দুই নেতার ক্ষুধাও লেগে যায় বেশ দ্রুত।

হোয়াইট হাউজ সূত্রে জানা গেছে, ট্রাম্প-কিমের মধ্যাহ্নভোজে অক্টোপাস থেকে বিফ ছাড়াও, শত রকম পদের আয়োজন ছিল।

/uploads/files/hY204qJplfpDbUpZN7AlR0YxVnErGOA4PTwGfa1K.jpeg

মঙ্গলবার (১২ জুন) সিঙ্গাপুরের সেন্টোসার ক্যাপিলা হোটেলে মুখোমুখি হয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জং উন। এরপর মুখোমুখি লম্বা খাবার টেবিলে।

এ দিন ক্যাপিলা হোটেলে দুই রাষ্ট্রপ্রধানের মধ্যাহ্নভোজও উঠে এল খবরের শিরোনামে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং উত্তর কোরিয়ার শাসকের মধ্যাহ্নভোজও এক কথায় ‘হাই প্রোফাইল’। কী ছিল না তাতে! সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় বেলা ১১টা, বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টা নাগাদ মধ্যাহ্নভোজ সারেন কিম ও ট্রাম্প।

/uploads/files/5esEBMmyIFUIQu1wBgIoMHvFE00F5dSVO4WF3aZw.jpeg

মধ্যাহ্নভোজের প্রথমেই ছিল চিংড়িমাছ মিশ্রিত সালাদ। কাঁচা আম আর মধুর সালাদও ছিল, যার স্থানীয় নাম ‘গ্রিন ম্যাঙ্গো কেরেবু’। ছিল ফ্রায়েড রাইস সঙ্গে গরুর মাংসের ভুনা। এই মাংসের পদটি পরিবেশন করা হয় সিদ্ধ আলু আর ব্রোকলি দিয়ে। সঙ্গে রেড ওয়াইন। ছিল অক্টোপাসের বিশেষ পদও। ‘স্টাফ্ড কিউকাম্বার’ নামে কোরিয়ার বিশেষ একটি পদও ছিল এ দিন।

সঙ্গে ছিল কিমের বিশেষ পছন্দের ‘সুইট অ্যান্ড সাওয়ার ক্রিসপি পর্ক’ (টক মিষ্টি শুকরের মাংস), চিকেন ও চিলি সস। এ ছাড়াও ছিল ফ্রেঞ্চ পদ বিফ শর্ট রিব কনফিট-পটাটো ডাউফিনিওস।

ডেজার্ট হিসেবে ছিল তিন ফ্লেভারের আইস্ক্রিম- ডার্ক চকোলেট, চেরি কুকিজ ও ভ্যানিলা। এছাড়াও আর কত কী!

Author: বার্তা ডেস্ক, বার্তা২৪ ডটকম

barta24.com is a digital news outlet

© 2018, Copyrights Barta24.com

Editor in Chief: Alamgir Hossain

Email: [email protected]

[email protected], [email protected]

+880 1707 082 000

8/1 New Eskaton Road, Gausnagar, Dhaka-1000, Bangladesh