Alexa

কাশ্মীরের মুকুটের রত্ন ডাল লেক

কাশ্মীরের মুকুটের রত্ন ডাল লেক

কাশ্মীর। ছবি: বার্তা২৪.কম

ডাল লেক, শ্রীনগর, কাশ্মীর থেকে: এটা অসাধারণ, চোখ জুড়ানো, স্মৃতিকে ফ্রেমে বাঁধাই করার মতো সৌন্দর্য। মেঘ ছোঁয়া পাহাড় থেকে যেন এক লেক বেরিয়ে এসেছে। সন্ধ্যায় যখন দক্ষিণ পশ্চিমের আকাশে পাহাড়ের মাথায় তিলকের মতো চাঁদ উঠতে থাকে, তখনই বোঝা যায় এই লেকের সৌন্দর্য মাদকতায় ভরা।

চাঁদের নিচের পাহাড়গুলোর নামও বেশ। স্থানীয়রা এগুলোকে চশমা শাহী, পারিমাহাল নামে ডাকে। যেন সকালে রওনা করে বিকেলে পারিমাহালের মগে উঠতে পারলে চাঁদটাকে ধরা যেত।

লেকের পাশের মূল সড়কের ধার ধরে ঘাট রয়েছে ১ থেকে ১৫ পর্যন্ত। এখানে তাজ থেকে শুরু করে দুনিয়ার সব তারকা হোটেল রয়েছে। মিশন কাশ্মীর ছবির জন্য এই লেক খ্যাত। পুরো পদ্মা ফুলে ভেসে থাকা এই লেকের পূর্বাংশ দেখতে দেশ বিদেশের পর্যটকরা ছুটে আসেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/23/1534999257674.jpg

লেকের উত্তর দিকে হাউজ বোটগুলোর অবস্থান। একটার গায়ে আরেকটা লেগে আছে। যারা নৌকা থেকে এই লেক আর পাহাড়কে উপভোগ করতে চান, তারা এসব হাউজ বোটে রাত কাটাতে পারেন।

কাশ্মীরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগর। শীতে এটা বরফে ঢাকা পড়ে যায়। কাশ্মীরের মুকুটের রত্ন বলা হয় এই শ্রীনগরকে। আর তার প্রধান সৌন্দর্য এই ডাল লেক। শ্রীনগর এয়ারপোর্ট থেকে ট্যাক্সিতে আধা ঘণ্টার পথ ডাল লেক। স্থানীয়রা একে বলে ডাল ঝিল৷ শীতে ২০ মিটার গভীর পুরো লেক বরফ হয়ে যায়। এর ওপর দিয়ে হেঁটে বেড়ায় মানুষ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/23/1534999272304.jpg

এই শহরের অন্যতম ব্যবসায়িক স্থানও এই লেক। মাছ ধরা এবং জলজ ফুলের প্রধান উৎস এই লেক। প্রায় ১৮ বর্গ কিলোমিটারের এই লেকে গুল্ম, লতা আর জলজ ফুলে ভরা। স্বচ্ছ পানির নিচে সবুজ গুল্মগুলো যেন নড়েচড়ে অভিনন্দন জানাচ্ছে। হাত দিয়ে ছুঁয়ে দেখতে চাইলে পানির ঠান্ডা টের পাওয়া যায়।

এখানে মাঝারি ধরনের খাটিয়া আর কাপড়ের টুল বসানো নৌকাকে শিখার বলে। আমরা বিকেল নাগাদ শিখারে উঠে বসি। শান্ত লেকের পানিতে বৈঠা যেন মৃদু বাড়ি দিচ্ছিল, পানিতে যে শব্দ হচ্ছে তা যেন নীরবতার দরজার কড়া খুলে দেওয়ার শব্দ।

লেকের উত্তর পূর্ব কোনে একটা বাজার, ভাসমান। এখানে নৌকায় করে দোকান থেকে দোকানে ঘুরতে হয়৷ হাউজ বোট থেকে মূল সড়ক বা দোকানে যেতে হলে নৌকাই ভরসা। এটাকে কাশ্মীরে ভেনিস বললে ভুল হবে না।

আপনার মতামত লিখুন :