Alexa

সদর সাহেব রহ. আমার আধ্যাত্মিক নেতা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

সদর সাহেব রহ. আমার আধ্যাত্মিক নেতা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

গওহরডাঙ্গা মাদরাসায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন মুফতি রুহুল আমীন, ছবি: বার্তা২৪.কম

উপমহাদেশের অন্যতম আধ্যাত্মিক নেতা, ধর্মীয় চিন্তাবিদ ও সমাজ সংস্কারক মোজাহেদে আজম আল্লামা শামছুল হক ফরিদপুরি (সদর সাহেব) রহমাতুল্লাহি আলাইহির কবর জিয়ারত করেছেন নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) জুমার নামাজের পর গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় আলেমদের নিয়ে গওহরডাঙ্গা মাদরাসা মসজিদ সংলগ্ন কবর জিয়ারত করেন এবং গওহরডাঙ্গা মাদরাসা মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন।

এর আগে গওহরডাঙ্গা মাদরাসার পৌঁছলে মাদরাসার মহাপরিচালক পীরে কামেল আল্লামা মুফতি রুহুল আমীন ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান।

কবর জিয়ারত শেষে শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘আমি গওহরডাঙ্গা মাদরাসার ছাত্র। হজরত সদর সাহেব হুজুরের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিলো। তিনি ছিলেন আমার ধর্মীয় ও আধ্যাত্মিক গুরু। আমি আমার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং আলেম-উলামাদের দোয়া নিয়ে মন্ত্রণালয়ের কাজ শুরু করতে চাই।’

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাকে যে গুরু দায়িত্ব দিয়েছেন, তা আমি দেশের আলেম-উলামা, পীর-মাশায়েখদের সঙ্গে পরামর্শ করে সম্পাদন কররো। আমি দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী এই মাদরাসার ছাত্র ছিলাম এবং দীর্ঘদিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছি। আমি সবার সহযোগিতা নিয়ে মন্ত্রণালয় পরিচালনা করবো।’

আলহাজ শেখ মো. আব্দুল্লাহ আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমার রাজনৈতিক নেতা। আর আল্লামা শামসুল হক ফরিদপুরি (রহ.) হলেন আমার ধর্মীয় নেতা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/12/1547293402180.jpg
আল্লামা শামসুল হক ফরিদপুরি (রহ.) -এর কবর জিয়ারত করছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী, ছবি: বার্তা২৪.কম

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আমি কোনো দুর্নীতি করি না কাউকে দুর্নীতি করতেও দেবো না। বক্তব্যে তিনি গওহরডাঙ্গা মাদরাসায় একটি ছাত্রাবাস নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রতি দেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার শিক্ষা সচিব মুফতি নুরুল ইসলাম, কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড গওহরডাঙ্গার মহাসচিব মাওলানা শামছুল হক, তানজিমুল মুদাররিসিন বাংলাদেশের সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা ঝিনাত আলী, কাজুলিয়া মাদরাসার মোহতামিম মাওলানা আবুল কালাম, মুসলিম এতিমখানার মাওলানা হায়াত আলী, কোর্ট মসজিদ মাদরাসার মোহতামিম মুফতি আব্দুল হাফিজ, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মুফতি উসামা আমীন, খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশের মুফতি মোহাম্মদ তাসনীম, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মুফতি হারুনুর রশীদ, মাওলানা আনিছুর রহমান ও মাওলানা আতাউর রহমান প্রমুখ।

এর আগে সকালে গোপালগঞ্জে নিজ বাসভবনে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, আল্লাহর মেহমান হজযাত্রীদের চোখের পানি আর দেখতে চাই না। যাদের প্রতারণার কারণে হজযাত্রীদের চোখের বের হবে তাদের চোখের পানিও আমি বের করে ছাড়বো।

আপনার মতামত লিখুন :