Alexa

ইরান আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা শুরু, লড়বেন বাংলাদেশের ৩ প্রতিনিধি

ইরান আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা শুরু, লড়বেন বাংলাদেশের ৩ প্রতিনিধি

ইরান আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা শুরু, লড়ছেন বাংলাদেশের ৩ প্রতিনিধি, ছবি: সংগৃহীত

ইরানের রাজধানী তেহরানে বুধবার (১০ এপ্রিল) থেকে ৩৬তম আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ৩ প্রতিযোগী অংশ নিচ্ছেন।

৬২টি দেশের প্রতিনিধি ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন। প্রতিযোগিতা চলতে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত।

ইরানের ইসলামি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস সালেহি প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষণা করেছেন।

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া বাংলাদেশি হাফেজ ও ক্বারিরা হলেন, হাফেজ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, আল ইমরান এবং আয়েশা সিদ্দিকা। আয়েশা সিদ্দিকার সঙ্গে অভিভাবক হিসেবে ইরান গেছেন তার বাবা।

হাফেজ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার পাজুনিয়া গ্রামের আবদুল হালিমের ছেল। সে হাফেজ আবু তাহের গুলজার পরিচালিত টঙ্গি মুকাদ্দামাতুল কোরআন হিফজ মাদরাসার ছাত্র।

হাফেজ আয়েশা সিদ্দিকা যাত্রাবাড়ির মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসা মহিলা শাখার ছাত্রী।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/11/1554965158954.gif

বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা জানুয়ারি মাসে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত ইরান আন্তর্জাতিক হিফজ প্রতিযোগিতার বাংলাদেশ প্রতিনিধি বাছাই পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়ে ইরান যাওয়ার টিকিট লাভ করেন।

বিশ্বে পবিত্র কোরআনের সমৃদ্ধ সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দেওয়া এবং কোরআনের চর্চা বাড়ানোই এ প্রতিযোগিতার প্রধান উদ্দেশ্য। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের নগদ অর্থসহ নানা পুরস্কার দেওয়া হয়।

বিভিন্ন মুসলিম দেশের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন ও রাশিয়াসহ নানা দেশের প্রতিযোগীরা অংশ নিয়েছেন। তবে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়নি মার্কিন কোনো প্রতিযোগী। এমনকি কোনো মার্কিন প্রতিযোগী আমন্ত্রণও গ্রহণ করেননি। কারণ, তাদের পাসপোর্টে ইরানি সিল থাকলে পরবর্তীতে তাকে মার্কিন নিরাপত্তা বাহিনীর হেনেস্তার শিকার হতে হয়।

আপনার মতামত লিখুন :