Alexa

শুধু পানি ও খেজুর দিয়ে ইফতারের সুযোগ ইন্দোনেশিয়ার ট্রেনে

শুধু পানি ও খেজুর দিয়ে ইফতারের সুযোগ ইন্দোনেশিয়ার ট্রেনে

শুধু পানি ও খেজুর দিয়ে ইফতারে সুযোগ পাচ্ছেন ইন্দোনেশিয়ার ট্রেনযাত্রীরা, ছবি: সংগৃহীত

ম্যাস র‌্যাপিড ট্রেনে (এমআরটি) সব ধরনের খাবার নিষিদ্ধ। তবে রমজান মাসে এই নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে ইন্দোনেশিয়ার সরকার। তারা জানিয়েছেন, এমআরটিতে শুধু পানি ও খেজুর দিয়ে ইফতার করার সুযোগ পাবেন।

পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ইন্দোনেশিয়ার ম্যাস র‌্যাপিড ট্রেন (এমআরটি) কর্তৃপক্ষ তাদের নতুন এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এমআরটি ট্রেনের ভেতর যেকোনো কিছু পানাহারের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, রমজান মাসের জন্য তা কার্যকর হবে না। ইন্দোনেশিয়ার গণমাধ্যম জাকার্তা পোস্টে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইন্দোনেশিয়ায় রমজান মাসে রোজা পালনকারীরা ট্রেনের ভেতর কেবল পানি ও খেজুর দিয়ে ইফতার করতে পারবেন। এসব খাদ্য ছাড়া অন্য কোনো কিছু দিয়ে ট্রেনের ভেতর ইফতার করা যাবে না বলে জানিয়েছে এমআরটি কর্তৃপক্ষ।

সেখানকার পিটি এমআরটি জাকার্তা করপোরেট সেক্রেটারি বিভাগের প্রধান এম কামালুদ্দিন বলেন, কফি বা অন্য স্বাদযুক্ত পানীয়তে ট্রেনের মেঝে নোংরা ও আঠালো হয়ে যায়। সে তুলনায় পানিতে এমনটা হওয়ার সম্ভবনা কম।

তিনি বলেন, ইসলামে খেজুর দিয়ে রোজা ভাঙার কথা বলা হয়েছে এবং খেজুর এমন একটি ফল যার কোনো অংশ মেঝেতে পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

কামালুদ্দিন আরও বলেন, ট্রেনের ভেতর ইফতারির সময় হলে রোজাদার যাত্রীদের উদ্দেশ্যে তা ঘোষণা করা হবে। এ সময পানি ও খেজুর ছাড়া অন্য কোনো পানাহার থেকে বিরত থাকার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দেওয়া হবে যাত্রীদের।

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ ইন্দোনেশিয়ায় ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে পবিত্র রমজান। প্রায় ২০ কোটি ৩০ লাখ মুসলমানের বসবাস ইন্দোনেশিয়ায়। পবিত্র রমজানে দেশটির বেশিরভাগ মসজিদে মুসল্লিদের ভিড় থাকে প্রচুর। শুধু নামাজের সময় নয়, দিনের বেশিরভাগ সময় মসজিদগুলোতে সময় কাটান তারা।

দেশটিতে পবিত্র রমজান উপলক্ষে স্থানীয় পর্যায়ে বিভিন্ন উৎসব পালিত হয়। তবে সরকারের বিধি-নিষেধও পালন করা হয় কঠোরভাবে।

-জাকার্তা পোস্ট অবলম্বনে

আপনার মতামত লিখুন :