রংপুরে দ্রুত গতিতে চলছে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ

ফরহাদুজ্জামান ফারুক, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, রংপুর
রংপুরে দ্রুত গতিতে চলছে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রংপুরে দ্রুত গতিতে চলছে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামি শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য প্রসারে উত্তরের বিভাগীয় নগরীর রংপুরে নিমির্ত হচ্ছে মডেল মসজিদ কমপ্লেক্স। রংপুর মহানগরীর কাচারী বাজার রোডে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে এই মসজিদ কমপ্লেক্সটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে আগ্রাধিকারভিত্তিক প্রকল্পের আওতায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। নির্মাণ কাজ করছে গণপূর্ত অধিদফতর। আর এটি বাস্তবায়ন করছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা)।

রংপুর বিভাগীয় ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে, ইসলামি শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য প্রসারে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ কমপ্লেক্স নির্মাণ করবে বর্তমান সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় রংপুরে এই মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। এই মসজিদের নির্মাণ ১৫ কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা) রংপুর বিভাগীয় পরিচালক মো. মহিউদ্দীন চৌধুরী বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘নির্মাণাধীন এই মসজিদে নারী-পুরুষদের জন্য আলাদা অজু ও নামাজের ব্যবস্থা থাকবে। থাকবে গ্রন্থাগার, সম্মেলন কক্ষ ও গবেষণা কেন্দ্র। শিশুদের জন্য শিক্ষা সুবিধা থাকবে। অতিথি ও বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণ সুবিধাও রাখা এ হবে মসজিদে। এছাড়া মৃতদেহ গোসল করানো এবং হজযাত্রী ও ইমামদের প্রশিক্ষণের সুবিধাও থাকবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/09/1562680803785.jpg

তিনি আরও বলেন, ‘ইসলামিক ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে এসব মসজিদ পরিচালিত হবে। এসব মসজিদের খতিব, ইমাম, মোয়াজ্জেন, খাদেম সকলেই সরকারি বেতনভুক্ত হবেন।’

অন্যদিকে রংপুর গণপূর্ত বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নির্মাণাধীন মডেল মসজিদ কমপ্লেক্সটির জন্য প্রাক্কলিত ব্যয় ১৫ কোটি টাকা ধরা হয়েছে। মসজিদটি পাঁচ তলা হবে। দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলাতে একই আদলে এ ধরণের মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। এর জন্য জায়গা লাগবে প্রায় ৪০ শতক। প্রতিটি মসজিদ তৈরিতে প্রাথমিকভাবে সম্ভাব্য ব্যয় প্রায় ১২ থেকে ১৫ কোটি টাকা ধরা হয়েছে।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এই মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রগুেলা ইসলাম শিক্ষার কেন্দ্র হিসেবে কাজ করবে বলে মনে করছেন স্থানীয় ইসলামি চিন্তাবিদরা। তারা বলছেন, সরকারের এই প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন হলে মডেল মসজিদকে কেন্দ্র করে পর্যটন শিল্পের বিকাশের পাশাপাশি ধর্মীয় প্রচার-প্রচারণা আরও বাড়বে।

আপনার মতামত লিখুন :