Alexa

ভোটে জেতার কোনো ম্যাজিক জানি না: প্রিয়াঙ্কা

ভোটে জেতার কোনো ম্যাজিক জানি না: প্রিয়াঙ্কা

ভাই রাহুলের সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা, ছবি: সংগৃহীত

কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন, 'আমি কোনো ম্যাজিশিয়ান নই। আমি ভোটে জেতার কোনো ম্যাজিক জানি না। সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আপনাদের সকলকেই একসাথে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সকলের উদ্যোগেই জেতা সম্ভব। কারও একার পক্ষে কোনো কিছু করা সম্ভব নয়।'

সোমবার (৮ এপ্রিল) এক দলীয় বৈঠকে নেতা কর্মীদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন তিনি।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, নির্বাচনী প্রচারে রাহুল গান্ধীর মত অতটা আক্রমণাত্মক নয় প্রিয়াঙ্কা। তার জনসভার ভাষণে মোদিকে নিয়ে কটাক্ষ থাকলেও ততটা ঝাঁজ নেই। তাই সবেমাত্র রাজনীতিতে পা রাখা প্রিয়াঙ্কাকে দেখতে জায়গা জায়গায় ব্যাপক ভিড় হলেও, সেই ভিড় কতটা ভোটে পরিণত হবে, তা নিয়ে তার দলের ভেতরেই জল্পনা শুরু হয়েছে।

তবে প্রিয়াঙ্কা ভোটে জেতা নিয়ে, নিজের সম্পর্কে যাই বলুক না কেনো, বা দলীয় জল্পনার একভাগ যাই ভাবুক না কেনো, রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রীর কুরসিতে বসাতে ইন্দিরামুখী প্রিয়াঙ্কাতেই বাজি ধরেছেন তার ভক্তরা।

এবারের লোকসভা ভোটে নিজে প্রার্থী না হলেও নরেন্দ্র মোদিকে চাপে রাখতে উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব একাই নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। নির্বাচনী প্রচারের পরিকল্পনা সাজিয়ে প্রচারণায় ঝড়ও তুলতে শুরু করেছেন তিনি। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন দাদা রাহুল গান্ধীও। ঠিক হয়েছে, উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলবেন প্রিয়াঙ্কা আর পাশাপাশি হবে রাহুল-প্রিয়াঙ্কার যৌথ সভা। সেই মতোই এগোচ্ছে প্রচার পরিকল্পনাও।

অপরদিকে, উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব নেওয়ার পাশাপাশি দিল্লিতে দলের ১৫ নম্বর গুরদ্বার রকাবগঞ্জ রোডের, বাংলোয় ঘন ঘন বৈঠক করেছেন প্রিয়াঙ্কা। বাংলোটি কংগ্রেসের ওয়াররুম বলে পরিচিত। যেখান থেকে দলের থিঙ্কট্যাঙ্করা ভোট যুদ্ধের গুটি সাজায়। দেশের যেকোনো নির্বাচনে নেতৃত্ব প্রদানকারীরা এখান থেকেই ভোট পরিচালনা করে থাকেন।

সেখানেই দলের নির্বাচনী ইসতেহার থেকে প্রচার কর্মসূচি, এমনকি খুঁটিনাটি বিষয়েও তিনি মত দিচ্ছেন। দলীয় সূত্রে খবর, সেখানেই এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, নির্বাচনী প্রচারে উত্তরপ্রদেশের বাইরে কোথাও যেতে সমস্যা নেই। দল চাইলে যাবেনও।

তিনি বলেছেন, 'তবে ভোট জেতার আমার কোনো ম্যাজিক জানা নেই।' এই কথাটি বাইরে আসতেই দলের একাংশের মধ্যে হতাশা তৈরি হয়েছে বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত লিখুন :