Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

স্টার জলসায় আসছে কমেডি সিরিয়াল কলের বউ

স্টার জলসায় আসছে কমেডি সিরিয়াল কলের বউ
নতুন ধারাবাহিক কলের বউয়ের দুই প্রধান চরিত্র, ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

স্টার জলসায় আসছে পুরোপুরি কমেডি ধাঁচের ধারাবাহিক নাটক কলের বউ। পরিচালক স্নেহাশীষ চক্রবর্তী নাটকটি পরিচালনা করছেন। ধারাবাহিকের নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে ধারাবাহিকটি আদ্যপ্রান্ত একটি কমেডি নাটক হতে চলেছে।

সম্পূর্ণ পারিবারিক কমেডি নিয়ে আগামী ২৭শে মে স্টার জলসায় আসছে কলের বউ।

একজন সাইন্টিস্ট আর তার দুই বউ। একজন অশিক্ষিত অপরজন রোবট। সাইন্টিস্ট দ্বীপ নারায়ণ হুবহু তার বউয়ের আদলে বানিয়ে ফেলেছে রোবট। আর এই রোবটই একান্নবর্তী পরিবারে সুপার বউ হয়ে উঠবে। এই নিয়ে নাটকের গল্প এগিয়ে যাবে।

ধারাবাহিকে সাইন্টিস্টের চরিত্রে অভিনয় করেছেন রোহন ভট্টাচার্য। এই বিষয়ে রোহন জানান, দ্বীপ নারায়ণ একজন রোবোটিক ইঞ্জিনিয়ার, পরিবারের শিক্ষিত বলতে সে আর তার দিদি। কলের বউ একেবারে অন্য ধরনের একটি কমেডি সিরিয়াল, এরকম একটা চরিত্রে কাজ করার জন্য অপেক্ষা করছিলাম।

রোহনের দ্বৈত স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করছেন তৃনা সাহা। যিনি দীর্ঘদিন বড় পর্দায় কাজ করে ছোটপর্দায় কামব্যাক।

এই বিষয়ে তৃনা বলেন, 'চ্যালেঞ্জিং তো বটেই, একটাই নিজেকে সামলাতে পারছি না, দুদুটো নিজেকে সামালান ভাবাই যাচ্ছে না।'

এছাড়া কলের বউতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীপঙ্কর দে, বিমল চক্রবর্তী, রত্না ঘোষাল, রূপসা চক্রবর্তী, শুভাশীষ মুখার্জিসহ আরও অনেকে।

 

আপনার মতামত লিখুন :

কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স রওনা দেবে রাত ২টায়

কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স রওনা দেবে রাত ২টায়
নিহত দুই বাংলাদেশির পাসপোর্টের ছবি

কলকাতায় গাড়িচাপায় নিহত দুই বাংলাদেশির মরদেহ সড়ক পথে অ্যাম্বুলেন্সে করে শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে রওনা দেবে।

কলকাতায় বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের কর্মকর্তা মোফাখখারুল ইকবাল বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, অ্যাম্বুলেন্সে করে সড়ক পথে মরদেহ দুটি ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে। ডেথ সার্টিফিকেট নিয়ে বাংলাদেশি নাগরিক হিসেবে শনাক্ত করে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আঞ্চলিক দপ্তরের সাথেই যোগাযোগ করে সব কার্যক্রম সম্পন্ন করা হচ্ছে। কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশন এ বিষয়ে সব রকম সহযোগিতা করছে।

আরও পড়ুন: কলকাতায় গাড়িচাপায় ২ বাংলাদেশির মৃত্যু, ঘাতক গ্রেফতার

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দিবাগত রাতে কলকাতার শেক্সপিয়র সরণিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত হন। তারা হলেন— মহম্মদ মইনুল আলম (৩৬) ও ফারহানা ইসলাম তানিয়া (৩০)। প্রথম জনের বাড়ি বাংলাদেশের ঝিনাইদহে। অন্য জনের বাড়ি ঢাকার মোহাম্মদপুরে।

শনিবার (১৭ আগস্ট) ঘাতক গাড়ির চালককে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ।

কলকাতায় গাড়িচাপায় ২ বাংলাদেশির মৃত্যু, ঘাতক গ্রেফতার

কলকাতায় গাড়িচাপায় ২ বাংলাদেশির মৃত্যু, ঘাতক গ্রেফতার
ঘাতক জাগুয়ারের চালক আরসালান পারভেজ

কলকাতার সেক্সপিয়র সরণিতে মধ্যরাতে দ্রুত গতির একটি জাগুয়ারের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা গেছেন দুই বাংলাদেশি। ঘাতক ওই জাগুয়ারের চালককে গ্রেফতার করেছে সেক্সপিয়র থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) মধ্যরাতে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে শেক্সপিয়র সরণি ও লাউডন স্ট্রিটের সংযোগস্থলে।

কলকাতার সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, শেক্সপিয়র সরণি ধরে বিড়লা প্ল্যানেটোরিয়ামের দিক থেকে কলামন্দিরের দিকে যাওয়ার সময় প্রচণ্ড গতির একটি জাগুয়ার সজোরে ধাক্কা মারে একটি মার্সিডিজকে। এরপর জাগুয়ারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা দুই পথচারীকে পিষে দেয়। ভেঙেচুরে যায় কংক্রিটের তৈরি কলকাতা পুলিশের একটি কিয়স্কও।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566045598521.jpg

গুরুতর জখম ওই দু’জনকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। এ ঘটনায় গুরুতর জখম হন মার্সিডিজের চালক ও আরোহী। ঘটনার পরই গাড়ি ফেলে পালিয়ে যান জাগুয়ারের চালক।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ জানিয়েছে মৃত দু’জনেই বাংলাদেশি নাগরিক। চিকিৎসা করাতে তারা গত ১৫ দিন ধরে কলকাতায় অবস্থান করছিল। তারা উঠেছিলেন ওই এলাকারই একটি হোটেলে।

নিহত দুই বাংলাদেশি হলেন—কাজি মহম্মদ মইনুল আলম (৩৬) ও ফারহানা ইসলাম তানিয়া (৩০)। প্রথম জনের বাড়ি বাংলাদেশের ঝিনাইদহে। অন্য জনের বাড়ি ঢাকার মহম্মদপুরে।

ঘাতক জাগুয়ারটি চালাচ্ছিলেন অভিজাত রেস্তরাঁ চেন আরসালানের মালিকের ছেলে আরসালান পারভেজ। এ খবর নিশ্চিত হয়েই ২২ বছর বয়সী আরসালান পারভেজকে শনিবার গ্রেফতার করে শেক্সপিয়র থানার পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতার আরসালান পারভেজকে শনিবার (১৭ আগস্ট) আলিপুর আদালতে তোলা হবে। এ গাড়ি দুর্ঘটনায় পুলিশ জাগুয়ারের চালকের বিরুদ্ধে আগের চেয়ে আরও কঠোর ধারায় মামলা দায়ের করেছে। প্রথমে ৩০৪ ধারায় মামলা সাজানো হয়েছিল। সেটা অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা হলেও জামিনযোগ্য ছিল।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র