কলকাতার পূজা জমে উঠবে রহস্য-রোমাঞ্চ-বিনোদনে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, কলকাতা
দুর্গাপূজা টলিউড নিয়ে আসছে রহস্যের একগুচ্ছ বাংলা সিনেমা।

দুর্গাপূজা টলিউড নিয়ে আসছে রহস্যের একগুচ্ছ বাংলা সিনেমা।

  • Font increase
  • Font Decrease

অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু দুর্গাপূজা। ফলে পূজার ক্ষণগণনা শুরু হয়ে গিয়েছে কলকাতায়। আর তার সাথেই রাস্তায় অস্থায়ী হোর্ডিং আর ছবির পোস্টারে হাজির গুমনামি বাবা প্রসেনজিৎ কিংবা মিতিনমাসি রূপে কোয়েল অথবা অ্যাকশন দৃশ্যে দেব। বাদ নেই ব্যোমকেশ রূপী পরমব্রত। অর্থাৎ পূজায় টলিউড নিয়ে আসতে চলেছে রহস্যের একগুচ্ছ বাংলা সিনেমা। অবশ্য সারা বছরই টলিপাড়ায় নিত্যনতুন ছবি নিয়ে হাজির থাকে প্রযোজকরা। তবে বাংলা ছবি আর কলকাতার বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজায় চিরকালই একটু বেশী মাখামাখি হয়। সাথে প্রযাজকদের নতুন অফার টিকিটে ডিসকাউন্ট। বাই ওয়ান গেট ওয়ান! দর্শক টানতে একটা টিকিট কাটলে দ্বিতীয়টি বিনামূল্যে!

দেখে নেওয়া যাক, কী কী বাংলা ছবি আসতে চলেছে এবারের পূজায়। পরিচালক অরিন্দম শীলের নতুন ছবি ‘মিতিনমাসি’। গত পূজাতে তার পরিচালনায় আবির অভিনীত ব্যোমকেশ কলকাতার বাঙালির বেশ পছন্দ হয়েছিল। এবার পরিচালক এক নতুন চরিত্র হাজির করছে দর্শকদের কাছে। পূজাতে অরিন্দম আনছেন সাহিত্যিক সুচিত্রা ভট্টাচার্যের সৃষ্টি ‘মিতিনমাসি’কে।

বইবিমুখ বাঙালি হয়তো অনেকে মিতিনমাসিকে চিনতে না পারলেও সিনেমায় মিতিনমাসির চরিত্রে কোয়েল মল্লিককে কমবেশি সকলেই চেনেন। গোয়েন্দা চরিত্রে কোয়েলকে দেখা যাবে ছবিতে। ইতিমধ্যে মিতিনমাসি নিয়ে মারাত্মক কৌতূহল তৈরি হয়েছে দশর্কদের মধ্যে। মহিলা গোয়েন্দা বলে কথা। মিতিন একেবারে সাহিত্যের পাতা থেকে উঠে আসা গোয়েন্দা। যার রয়েছে গোয়েন্দা এজেন্সি। ছবিতে অ্যাকশন এবং ইমোশন দুইই রয়েছে।

তবে, পূজার বাজারে শুধু মহিলা গোয়েন্দা নন আছে সাহিত্যিক শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের গোয়েন্দা ব্যোমকেশ বক্সীও। গত বছরের মতো এই বছরেও পূজায় আসছেন তিনি। তবে এবার তার রূপ বদলেছে। শুধু রূপ নয়, বদলেছে পরিচালকও। তরুণ পরিচালক সায়ন্তন ঘোষালের পরিচালনায় মগ্ন মৈনাকের গল্প অবলম্বনে আসতে চলেছে ‘সত্যান্বেষী ব্যোমকেশ’। ব্যোমকেশের চরিত্রে রয়েছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং অজিতের চরিত্রে রুদ্রনীল ঘোষ। এছাড়া ছবিতে রয়েছেন গার্গী রায় চৌধুরী। তবে সায়ন্তনকে সহযোগিতা করেছেন আরেক পোড় খাওয়া পরিচালক অঞ্জন দত্ত। আপাতত ছবির কাজ শেষ। মুক্তির অপেক্ষা।

এখানেই শেষ নয়। রহস্যপ্রেমী বাঙালির কাছে এই পূজায় আসছে ডাবল সুপারস্টার। প্রসেনজিৎ ও দেব।

পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ‘গুমনামি’ ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপধ্যায়ের লুক বাঙালির কৌতুহল বাড়িয়ে দিয়েছে। ছবি রিলিজ হওয়া মাত্রই যে ভালো আয় করবে তা এখনই টের পাওয়া যাচ্ছে। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে নিয়ে তৈরি ছবিটি। বলা যায়, এক ঐতিহাসিক মিথ। যার মিথ্যে বা সত্যি কোনোটাই স্বীকার করেনি ভারত সরকার। যেখানে দেখানো হয়েছে নেতাজি দেশে ফিরে এসেছিলেন এক সন্ন্যাসীর বেশে। কিন্তু তৎকালীন সরকারের চাপে ফের নিরুদ্দেশ হয়ে যান তিনি। আর এই গুমনামি বাবার চরিত্রে অর্থাৎ প্রসেনজিতের ভুমিকায় নেতাজিকে দেখার জন্য মুখিয়ে দর্শকরা।

সৃজিতের মতে, প্রত্যেক বছরই এই সময়টা একটা প্রতিযোগিতার বাতাবরণ তৈরি হয়। কাজেই আলাদা করে কিছু অনুভব করছি না। প্রসেনজিৎ থেকে গুমনামি বাবা হয়ে ওঠার জন্য প্রস্থেটিক মেকআপ ব্যবহার করা হয়েছে। ছবির ট্রেলারে প্রতিদিন হিট বাড়ছে।

প্রসেনজিতের সাথে বাজারে আসছে দেবের নতুন বাংলা ছবি ‘পাসওয়ার্ড ২’। পরিচালক কিন্তু হেভিওয়েট কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়। ছবির বিষয়বস্তু হল সাইবার অপরাধের অন্ধকার দুনিয়া। একেবারে জ্বলন্ত ইস্যু। ছবির শ্যুটিং হয়েছে সিঙ্গাপুরে। ছবির শ্যুটিং ইতিমধ্যে শেষ। ছবিতে দেবের সঙ্গে রয়েছেন রুক্মিণী মৈত্র ও পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। ছবিতে দেব সাইবার ক্রাইম বিভাগের প্রধান। রুক্মিণী হলেন হ্যাকার। পরমের চরিত্রে নানা রকমের শেডস রয়েছে আর রয়েছেন পাওলি দাম।

পরিচালকের মতে, কলকাতায় সবচেয়ে বেশি মানুষ ছবি দেখেন এই দুর্গাপূজার সময়। সাইবার ক্রাইম বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য এ ছবি তৈরি করা হয়েছে। থ্রিলারের মোড়কে সাইবার ক্রাইমের বিষয়টি বোঝানো হয়েছে।’

অতএব, বোঝাই যাচ্ছে হেভিওয়েট পরিচালকদের চোখে রহস্য রোমাঞ্চে ভরে উঠবে এবারে কলকাতার পূজা।

আপনার মতামত লিখুন :