চবির ভর্তি পরীক্ষায় নির্বাচনী আমেজ

রকিব কামাল, স্টাফ করেসপেন্ডন্ট, বার্তা২৪.কম
ভর্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য দ্রুতযান স্পেশাল সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা

ভর্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য দ্রুতযান স্পেশাল সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ (সম্মান) স্নাতক শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষায় জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আমেজ দেখা গেছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটারদের মন জয় করে প্রার্থীতা নিশ্চিত করতে চায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। তাই বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি ভর্তি পরীক্ষাকেও প্রচারণার হিসেবে বেছে নিয়েছেন তারা।

দীর্ঘদিন ধরে মনোনয়ন প্রত্যাশী ও স্থানীয় সংসদ সদস্যরা নিজ উদ্যোগে পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতের স্বার্থে দ্রুতযান ফ্রি স্পেশাল সার্ভিসের ব্যবস্থা করছেন। এছাড়া পরীক্ষার সার্বিক দিক বিবেচনা করে বিভিন্ন পরামর্শ ও পৃষ্ঠপোষকতাও করছেন।

এসব ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া বিভিন্ন অ্যাসোসিয়েশনের নাম সহায়তাও নিতে দেখা যায়।

বিশেষ করে চট্টগ্রামের সংসদীয় আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ও সংসদ সংসদের মধ্যে এ প্রবণতা লক্ষ্য করা গেছে। রয়েছে কক্সবাজারের  মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নিজ নিজ আসনের শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের কষ্ট লাগবে দ্রুতযান ফ্রি পরিবহনের সার্ভিসের ব্যবস্থা করে ভোটারদের মন জয়ে কাজ করছেন। এসব পরিবহনে শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন ও শুভ কামনা জানানো হচ্ছে।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের অর্থসম্পাদক ও ব্যবসায়ী মো. মুজিবুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামের সংসদীয়-১৬ বাঁশখালী উপজেলা আসন  থেকে মনোনয়নের আশায় তদবির ও দৌঁড়ঝাপ করে যাচ্ছেন।

তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সংগঠন বাঁশখালী অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে ভর্তিচ্ছুদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ফ্রি দ্রুত সার্ভিসের ব্যবস্থা করে দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মুজিবুর রহমান বার্তা২৪.কমকে বলেন, আল্লাহ আমাকে অনেক দিয়েছেন, আমি সবসময় চেষ্টা করি অর্জিত এসব সম্পদ দিয়ে মানুষের সহায়তা করতে। এখানে কে কিভাবে নিলো তা না দেখে আমি মানুষের কষ্ট ও দুর্ভোগ লাগবে নিয়োজিত থাকব। আমি সব সময় চাই গ্রাম থেকে উঠে আসা মানুষটি সর্বোচ্চ নাগরিক সুবিধা পাক। এর আগেও এলাকায় জনগণের স্বার্থে কাজ করেছেন বলেও জানান তিনি।

চট্টগ্রামের-১২ পটিয়া উপজেলার সংসদ সদস্য শামসুল আলম দুই তলা বিআরটিএ বাসের ব্যবস্থা করেছেন।

কক্সবাজারের পেকুয়া-চকরিয়া সংসদীয় আসন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ্ব জাফর আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর গ্রিন সিগনেল পেয়েছেন বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে আলহাজ্ব জাফর আহমেদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব না হলে  তার পক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাসোসিয়েশের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বার্তা২৪.কমকে বলেন, উনি অনেকদিন ধরে মানুষের উন্নয়ন ও সেবায় কাজ করছেন। উনার কাজের খুশি হয়ে এলাকার মানুষ ও প্রধানমন্ত্রী আস্থা লাভ করেছেন।

এছাড়াও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আকতারুজ্জমান পারভেজ অনেকটা নীরবে  সংসদীয় আসন -২ ফটিকছড়ির থেকে মনোনয়নের জন্য কাজ করছেন।

চন্দনাইশ ও সাতকানিয়ার অংশের সংসদীয় আসন-১৪ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ রিয়েল অ্যাস্টেট (রিহ্যাব) চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্রের সফরসঙ্গী ছিলেন। তিনি ও বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মুক্তিযুদ্ধা নজরুল ইসলাম চৌধুরী ফ্রি বাস সার্ভিসের উদ্যোগ নিয়েছেন।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে শিক্ষার্থীরা জানান, জনপ্রতিনিধিদের এমন সম্পৃক্ততা নির্বাচনমুখী না হয়ে যদি সব সময় অব্যাহত থাকত তাহলে শিক্ষার্থীরা উপকৃত হত।

আপনার মতামত লিখুন :