Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

রাবি সাংবাদিককে মারধর: ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কার দাবি

রাবি সাংবাদিককে মারধর: ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কার দাবি
ছবি: বার্তা২৪
রাবি করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease
 
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক খোলা কাগজের রাবি প্রতিনিধি আলী ইউনুস হৃদয়কে মারধরকারী ছাত্রলীগ নেতা সাবরুন জামিল সুষ্ময়ের বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকরা।
 
রোববার (০২ ডিসেম্বর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়। এ সময় সংহতি জানিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ এবং রাবি প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা।
 
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার ঘটনা নতুন নয়। প্রতিনিয়ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকরা ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীদের দ্বারা নির্যাতিত হয়ে আসলেও এর কোনো বিচার আমরা পাইনি। গত শনিবার (১ ডিসিম্বের) সাংবাদিক আলী ইউনুসকে মারধর করেছে সুষ্ময়। গণতান্ত্রিক দেশে যে কারও কোনো সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানানোর অধিকার রয়েছে। কিন্তু সেই প্রতিবাদ কর্মসূচিতে ছাত্রলীগকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করার অধিকার কে দিয়েছে? ছাত্রলীগই যদি শান্তি বজায়ে ভূমিকা রাখতে চায় তাহলে পুলিশ প্রশাসন রাখার কি দরকার?
 
বক্তারা আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করলেও প্রক্টর সেখানে নীরব ছিলেন। হামলা হতে দেখেও তিনি এগিয়ে আসেননি আর পুলিশকেও কোনো নির্দেশনা দেননি। 
 
যে প্রক্টর শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে পারে না তার দায়িত্বে থাকার কোনো অধিকার নেই বলেও দাবি করেন বক্তারা।
 
মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ছালেকীন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জাহিদ, যুগ্ম সাধারণ  সম্পাদক  সাইফ সাইফুল্লাহ,  কোষাধ্যক্ষ  মঈন উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক সুজন আলী, রাবি প্রেসক্লাবের সভাপতি তুষার আহমেদ, সহ-সভাপতি ইমদাদুল হক সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক মানিক রায়হান বাপ্পী, কোষাধ্যক্ষ জাহিদুল ইসলাম জয়, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শিহাবুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক ফরিদ আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক আরাফাত রহমানসহ সাংবাদিকতা বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী ও ছাত্রজোটের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী।
 
উল্লেখ্য, রাবির কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে ১-৬ ডিসেম্বর জাজ মাল্টিমিডিয়া ‘দহন’ সিনেমাটি প্রদর্শনীর আয়োজন করে। প্রথমদিন প্রদর্শনী শুরুর আগ মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সেখানে জড়ো হয়ে প্রদর্শনীর প্রতিবাদ জানালে প্রক্টরের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করে। এ সময় দৈনিক খোলা কাগজের রাবি প্রতিনিধি আলী ইউনুসের ওপর হামলা করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাবরুন জামিল সুষ্ময়।
আপনার মতামত লিখুন :

পর্যাপ্ত বাসের দাবিতে শিক্ষকদের বাস অবরোধ

পর্যাপ্ত বাসের দাবিতে শিক্ষকদের বাস অবরোধ
শিক্ষকদের বাস অবরোধ করে জাবি ছাত্র ইউনিয়ন, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত বাসের দাবিতে শিক্ষকদের বাস অবরোধ করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়ন সংসদ।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুর ১টায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদ'র ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বরে রাখা বাসগুলো অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এতে শিক্ষকদের ঢাকাগামী কয়েকটি বাস নির্ধারিত সময়ে ছেড়ে যেতে পারেনি।

শিক্ষার্থীদের অবস্থানের খবর জানতে পেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন অফিসের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক আলী আজম তালুকদার ও ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/20/1566304255422.jpg

 

এসময় তারা শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো শুনেন এবং আগামী ১০ দিনের মধ্যে শিক্ষার্থীদের পরিবহন সংকট নিরসনের লক্ষে পরিবহন পুলের দুইটি বাস সংযুক্ত করার আশ্বাস দেন পরিবহন অফিসের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক আলী আজম তালুকদার। এছাড়া শিক্ষার্থীদের বাসের নষ্ট ফ্যান ও লাইট ঠিক করার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। অধ্যাপক আলী আজমের প্রতিশ্রুতির প্রেক্ষিতে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম অনিক বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'বাস সংকট সমাধানের লক্ষে আমরা দীর্ঘদিন ধরে কথা বলে আসছি। কিন্তু বারবার প্রতিশ্রুতির পরও আমরা কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে দেখছিনা। তবে অধ্যাপক আলী আজমের প্রতিশ্রুতির প্রেক্ষিতে আজকের অবস্থান কর্মসূচি তুলে নিয়েছি। কিন্তু কথার বরখেলাপ হলে পুনরায় অবস্থান কর্মসূচি কিংবা আরও কঠোর কর্মসূচি হাতে নেওয়া হবে।’

জবি উপাচার্যের মা আর নেই

জবি উপাচার্যের মা আর নেই
মরিয়ম বেগম, ছবি: সংগৃহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের মা মরিয়ম বেগম আর নেই। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) রাত সোয়া ১টায় বার্ধক্যজনিত কারণে ঢাকায় উত্তর মুগদাস্থ ছেলের বাড়িতে মারা যান তিনি। তিনি সাত ছেলে, এক মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

উপাচার্যের মায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা সমিতি, সাংবাদিক সমিতি, কর্মচারী সমিতি এবং অন্যন্য দফতর।

শোক প্রকাশ করে শিক্ষক সমিতির সভাপতি দীপিকা রানী সরকার বলেন, ‘উপাচার্যের মায়ের মৃত্যুতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা শোকাহত। আমরা তার মাগফেরাত কামনা করছি। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি ।

মঙ্গলবার বাদ আসর কুমিল্লার হরিপুরে নিজ গ্রামের বাড়িতে মরহুমার নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র