Alexa

রাবি সাংবাদিককে মারধর: শাস্তির দাবি জবিসাসের

রাবি সাংবাদিককে মারধর: শাস্তির দাবি জবিসাসের

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক খোলা কাগজের প্রতিনিধি আলী ইউনুস হৃদয়ের ওপর ছাত্রলীগের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জবিসাস)। একই সঙ্গে হামলাকারীদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

রোববার (২ ডিসেম্বর) জবিসাসের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম আকাশ ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির এক যৌথ বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, সাংবাদিকদের ওপর হামলা, নির্যাতন এবং সাংবাদিক হত্যা এদেশে নতুন কিছু নয়। পেশাদারিত্ব এবং বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করতে গেলেই বরাবরের মতোই স্বার্থান্বেষী মহলের রোষানলে পড়তে হচ্ছে সাংবাদিকদের। গত শনিবার (১ ডিসেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাবরুল জামিল সুষ্ময় কর্তৃক হামলার শিকার হন আলী ইউনুস হৃদয়। সাংবাদিকদের ওপর ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনের এ ধরনের হামলা ন্যাক্কারজনক এবং বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার চর্চার ক্ষেত্রে বাধা।

বিবৃতিতে তারা আরও বলেন, পূর্বেও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকের ওপর হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটলেও আমরা এর বিচার দেখতে পাইনি। বিচারহীনতার সংস্কৃতিই এসব ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটাচ্ছে। তাই অবিলম্বে সাংবাদিক ইউনুস আলীর মতো আরও যত হামলার ঘটনা রয়েছে সেসব ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবি করছি। যাতে ভবিষ্যতে আর কেউ এ ধরনের জঘন্য কাজ করতে সাহস না করে।

উল্লেখ্য, রাজশাহীর উপহার সিনেমা হলটি গেল ১১ অক্টোবর বন্ধ হয়ে যাওয়ায় জাজ মাল্টিমিডিয়ার নির্মিত ‘দহন’ সিনেমাটি প্রদর্শনীর জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনটি ভাড়া নেয়। ১ থেকে ৬ ডিসেম্বর সিনেমাটি প্রদর্শিত হওয়ার কথা। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিলেন।

তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার সিনেমা প্রদর্শনী বন্ধের জন্য আন্দোলন করে সাধারণ শিক্ষার্থী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বাম ছাত্র সংগঠনগুলো। আন্দোলনকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশের উপস্থিতিতে তাদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। হামলাকালে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিক হৃদয়কে মারধর করে ছাত্রলীগ নেতা সুস্ময়।

আপনার মতামত লিখুন :

ক্যাম্পাস এর আরও খবর