সংঘর্ষের ঘটনায় জাবিতে পুলিশ মোতায়েন

জাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে/ ছবি: বার্তা২৪.কম

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে/ ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ ১০ জন আহত হয়। আর এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে শতাধিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এরপর সন্ধ্যার পর থেকেই অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়। যেকোনো সময় আবাসিক হলগুলোতে তল্লাশি চালানো হতে পারে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল ও বর্তমান শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চলের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ছয় রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনাও ঘটে।

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৫টার দিকে রাজিব ও তার স্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসেন। এ সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চঞ্চল তার নেতাকর্মীদের নিয়ে রাজিবের ওপর হামলা চালান। এতে রাজিব ও তার স্ত্রী আহত হন।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রাজিবের অনুসারীরা হল থেকে বিভিন্ন দেশি-বিদেশি অস্ত্র নিয়ে বের হন এবং চঞ্চলের আবাসিক হলে (শহীদ সালাম বরকত হল) হামলা চালাতে যান। এ সময় পূর্ব থেকে অবস্থান করা চঞ্চলের অনুসারীরা প্রতিরোধ গড়ে তোলে এবং বটতলা এলাকায় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘সেন্ট্রাল ফিল্ডে রাজিবের ওপর আক্রমণ হয় পরে আমি যেয়ে সমাধান করি। কিন্তু পরবর্তীতে আবার রাজিব ও চঞ্চল গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।’

হামলার সময়ে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারে কোনো পদক্ষেপ নেবেন কিনা জানতে চাইলে ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘অবশ্যই নেবো, বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো রেড দেওয়া সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে। আমরা এ ব্যাপারে ভাবছি, পরিস্থিতি বুঝে হলগুলো রেইড দিতে পারি। এছাড়া অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য ক্যাম্পাসে সার্বক্ষণিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

আপনার মতামত লিখুন :