Alexa

কুবিতে সেশনজটের দায় কার?

কুবিতে সেশনজটের দায় কার?

সেশনজট নিয়ে কুবিতে সাঁটানো পোস্টার, ছবি: বার্তা২৪

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) বিভিন্ন বিভাগে সেশনজট প্রকট আকার ধারণ করেছে। ফলে সেশনজটের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন শিক্ষার্থীরা। এরই অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক ভবনসহ বিভিন্ন ভবনে পোস্টার লাগানো হয়েছে। যদিও এসব পোস্টার কে বা কারা লাগিয়েছে তা জানে না প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবন ঘুরে দেখা গেছে, ভবনগুলোর সামনের দিকের দেয়ালে ‘মাননীয় ভিসি স্যার, সেশনজটের দায়ভার কার???’; ‘২৫ মাসেও তৃতীয় সেমিস্টারে বসতে পারিনি!!!’; ‘মাননীয় ভিসি স্যার, আপনার সন্তানরা সেশনজট থেকে মুক্তি চায়’; ‘সেশনজটমুক্ত কুবি চাই’ এবং 'গর্জে উঠো কুবিয়ান’ প্রভৃতি স্লোগান লেখা পোস্টার সাঁটানো রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সোমবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকেই বিভিন্ন ভবনে তারা এসব পোস্টার দেখতে পায়। তারা এসব পোস্টারের লেখাগুলো যুক্তিযুক্ত বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/25/1553526084720.jpg

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় প্রতি বিভাগেই সেশনজট রয়েছে। আর এ সমস্যাগুলো শিক্ষকদের কারণেই সৃষ্টি হচ্ছে। অনেক শিক্ষক মাসের পর মাস ক্লাস নেন কিন্তু শিক্ষার্থীরা কতটুকু বুঝছেন সে বিষয়ে তারা অবগত নন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই, আইসিটি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, ফার্মেসি, নৃবিজ্ঞান, প্রত্নতত্ত্ব, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রায় সব ব্যাচের শিক্ষার্থীরা সেশনজটে পরেছেন। শিক্ষার্থীরা বার বার শিক্ষকদের সমস্যার কথা বললেও তা সমাধানে সহযোগিতা পাচ্ছেন না।

পোস্টার লাগানোর বিষয়ে কুবির প্রক্টর কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'কে বা কারা এগুলো লাগিয়েছে তা আমরা জানি না। তবে এর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের মান ক্ষুণ্ণ হয়েছে। যারা এসব পোস্টার লাগিয়েছেন তারা বিভাগীয় প্রধান বা উপাচার্যকে বিষয়টি জানাতে পারতেন। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।'

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'আমরা সেশনজট নিরসনে কাজ করছি। শিগগিরই সবার সাথে বসে সমস্যা সমাধানে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

আপনার মতামত লিখুন :