Alexa

ব্যাপক উদ্দীপনায় রাবিতে বৈশাখ উদযাপন

ব্যাপক উদ্দীপনায় রাবিতে বৈশাখ উদযাপন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মঙ্গল শোভাযাত্রা / ছবি: বার্তা২৪

প্রতিবারের ন্যায় এবারও বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) উদযাপিত হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। বাঙলির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনকে বরণ করতে সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগ, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শোভাযাত্রা, পান্ত-ইলিশ উৎসব, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে। এসব কর্মসূচিকে ঘিরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকসহ সকলের মধ্যে ব্যাপক উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, রঙিন শাড়ি ও পাঞ্জাবি পরে ছেলে-মেয়েরা ক্যাম্পাসে মাতিয়ে বেড়াচ্ছেন। ক্যাম্পাসের সর্বত্র চলছে বন্ধ-বান্ধবী, প্রেমিক-প্রেমিকাদের খুনসুটি। এছাড়া বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো চত্বরে চত্বরে প্রদর্শনীমূলক স্টল দিয়ে পুরো ক্যাম্পাসকে এক নতুন রূপে সাজিয়েছে। নতুন নতুন বাহারি রঙের পোশাকে তরুণ-তরুণীদের মধ্যে আনন্দের উচ্ছ্বাস, বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ক্যাফেটরিয়া, সিলসিলাসহ ক্যান্টিনগুলোতে পান্তা-ইলিশের ধুম। সবমিলে মতিহারের সবুজ চত্বর যেন আজ নতুন করে প্রাণ ফিরে পেয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের উদ্যোগে বিশাল মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্যদ্বয় অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়াসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/14/1555232457838.jpg

ক্যাম্পাস ঘুরে আরও দেখা যায়, এবারে চারুকলা অনুষদের উদ্যোগে যে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয় সেটিতে থিম হিসেবে শোভা পেয়েছে হাতি, ঘোড়া ও ময়ূর। চারুকলা চত্বর থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে পুরনরায় চারুকলা অনুষদ চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় শিক্ষার্থীরা নেচে গেয়ে উল্লাস করছেন। এ সময় কারও হাতে একতারা, কারও হাতে ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড দেখা গেছে। এছাড়া কেউবা সেজেছেন বর-কনে, আবার কেউবা বাউল সেজে গান গেয়ে নেচে বেড়াচ্ছেন।

এছাড়া দিবসটি উদযাপন করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র কলা ভবন, সৈয়দ ইসমাঈল হোসনে সিরাজী ভবন, মমতাজ উদ্দিন কলা ভবন, শহীদুল্লাহ কলা ভবন, বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক, সত্যেন্দ্রনাথ বসু ভবন, মুহম্মদ কুদরত-ই-খোদা, স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু, ও জামাল নজরুল ইসলাম ভবনের সামনে বিভিন্ন বিভাগ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা নেচে গেয়ে আনন্দ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস ভবনের সামনে আয়োজন করা হয়েছে ছাত্র-শিক্ষক রম্য বিতর্ক প্রতিযোগিতা।

আপনার মতামত লিখুন :