Alexa

রাবিতে দলীয় নেতাকে তিন ছাত্রলীগের নেতার মারধর

রাবিতে দলীয় নেতাকে তিন ছাত্রলীগের নেতার মারধর

রাবিতে ছাত্রলীগের এক নেতাকে মারধর, ছবি: বার্তা২৪

তুচ্ছ ঘটনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্রলীগের এক নেতাকে মারধর করেছে বলে তিন ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শহীদ হবিবুর রহমান হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী সাদিকুল ইসলাম আশিক চারুকলা অনুষদের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। অপরদিকে অভিযুক্ত মারধরকারীরা হলেন- ছাত্রলীগ নেতা শাফিউর রহমান, হাসিবুল ইসলাম শান্ত এবং সাদাত আনোয়ার। সাদাত ইতিহাস বিভাগের সভাপতি। বাকি সবাই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক। আশিক ছাত্রলীগের কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক উপ-সম্পাদক সৌমিত্র কর্মকার রানার অনুসারী।

আশিক অভিযোগ করে বলেন, ‘সন্ধ্যার দিকে আমি এক ছোট ভাইকে সঙ্গে নিয়ে মোটর সাইকেলে করে হবিবুর হলের দিকে যাচ্ছিলাম। একই সময়ে ওই রাস্তায় মোটরসাইকেলযোগে শাফি, সাদাত ও শান্তও যাচ্ছিলেন। তাদের মোটর সাইকেলকে ওভারটেক করায় তারা আমাদের থামতে বলেন। আমরা হবিবুর হলের সামনে গিয়ে মোটর সাইকেল থামালে তারা এসে আমার সঙ্গে তর্ক শুরু করেন এবং আমার পরিচয় জানতে চান। আমি পরিচয় দেওয়ার পরও তারা আমার উপর চড়াও হন এবং আমাকে মারধর করেন।’

অপরদিকে মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে শান্ত বলেন, ‘আশিক বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল নিয়ে আমাদের অতিক্রম করে। এ সময় সাদাতের হাতের সঙ্গে তাদের মোটর বাইকের ধাক্কা লাগে। পরে আমরা তাদেরকে থামতে বলি। তাদের সঙ্গে আমাদের সামান্য তর্ক হয়েছে। মারধরের কোন ঘটনা ঘটেনি।’ আরেক অভিযুক্ত শাফিও একই কথা বলেন। তবে সাদাতের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ঘটনার পরপরই সৌমিত্র কর্মকার রানা বলেন, ‘আমার ছোট ভাইকে মারধর করা হয়েছে। আমি দ্রুত জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ছাত্রলীগের ঊর্ধ্বতন নেতাদের কাছে দাবি জানাচ্ছি।’

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘আমি বিষয়টি শুনেছি। আমি সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়টি দেখবো।’

এর আগে সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী বাপ্পীকে মারধর করে ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী।

আপনার মতামত লিখুন :

ক্যাম্পাস এর আরও খবর