Alexa

সেই ছাত্রলীগ নেত্রী দিশাকে অপহরণ চেষ্টার অভিযোগ

সেই ছাত্রলীগ নেত্রী দিশাকে অপহরণ চেষ্টার অভিযোগ

ছাত্রলীগ নেত্রী শ্রাবণী দিশা/ ছবি: সংগৃহীত

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদ বঞ্চিত হয়ে প্রতিবাদের কারণে হামলার শিকার হন শ্রাবণী দিশা। পরে তাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ করছেন দিশা। দিশা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

রোববার (১৯ মে) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন।

শ্রাবণী দিশা জানান, বদরুন্নেছা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এস কে রিমা তাকে ফোন দিয়ে বলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শিক্ষা উপ -মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল কথা বলতে চান।

সন্ধায় রিমা হাতিরপুলের একটি বাসায় শ্রাবণী দিশার কাছে যান। কিন্তু রিমার আচরণ দেখে দিশা বুঝতে পারেন নওফেলের কথা বলে তাকে বের করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। এ সময় তড়িঘড়ি করে রিমা বেরিয়ে যান। পরে তারা জানতে পারেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বর্তমানে চীনে অবস্থান করছেন।

পরে এই ঘটনায় শ্রাবণী দিশা শাহবাগ থানায় শনিবার রাতে সাধারণ ডায়েরিও করেছেন (জিডি নম্বর ১২০১)।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/19/1558265627834.jpg
সংবাদ সম্মেলনে শ্রাবণী দিশা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

 

অভিযুক্ত সেই ছাত্রলীগ নেত্রী এস কে রিমা বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নওফেল আমার কাছে ফোন করে শ্রাবণী দিশার নম্বর চান। পরে শ্রাবণী দিশা নিজেই আমাকে ফোন দিয়ে হাতিরপুলে একটি বাসায় যেতে বলেন। আমি সেখানে যাই। তার সঙ্গে আমার স্বাভাবিক কথাবার্তা হয়। অপহরণের কী হলো এখানে বুঝতেছি না।’

সংবাদ সম্মেলনে শ্রাবণী দিশা বলেন, ‘যার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছি তাকে গ্রেফতার করা হয়নি। যার কারণে আমি এখনও শঙ্কিত।’

সোমবারের মধুর ক্যান্টিনে হামলার সঙ্গে এই অপহরণ চেষ্টার কোনো যোগসূত্র রয়েছে কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগকে বিতর্কিত ও প্রধানমন্ত্রীকে বিব্রত করার জন্যই এই ঘটনা ঘটানো হয়।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন গৌরব ৭১ এর সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহীন।

প্রসঙ্গত, ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করলে পদবঞ্চিত একটি অংশ বিক্ষোভ করে। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে বিবাহিত, ছাত্রদল ও চাকরিজীবীদের পদ দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে সংবাদ সম্মেলন করতে যান। এ সময় তাদের ওপর পদপ্রাপ্ত ও তাদের অনুসারীরা হামলা করেন। এতে শ্রাবণী দিশার চোখে আঘাত লাগে। এই ঘটনায় ছাত্রলীগের পাঁচ থেকে সাত জন আহত হন।

আপনার মতামত লিখুন :