নানা জটিলতায় বিলম্বিত হতে পারে জকসু নির্বাচন

নিজাম উদ্দিন শামীম, জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় / ছবি: সংগৃহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় / ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসংসদ (জকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন নিয়ে নানা জটিলতা তৈরি হয়েছে। তাই বিলম্বিত হতে পারে জকসু নির্বাচন।

২০০৫ সালে কলেজ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তরিত হয় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। আর প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে ছাত্রসংসদের বিধানটি যুক্ত করা হয়নি। তাই আইনটি সংশোধন করে সেখানে ছাত্রসংসদ নির্বাচনের বিধানটি যুক্ত করার জন্য বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেন।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থীরা স্মারকলিপি দিলে প্রশাসন তাদের সাময়িক আশ্বাস দেয়। বলা হয়, ডাকসু নির্বাচন হয়ে গেলে জকসু নিয়ে তারা আলোচনায় বসবে। কিন্তু দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকসু নির্বাচন হয়ে গেলেও জকসু নির্বাচন নিয়ে প্রশাসনের কোনো প্রদক্ষেপ নেই।

গত ১৬ মে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮০তম সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে জকসু নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সিন্ডিকেট সভায় বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও জকসু নির্বাচন নিয়ে কোনো আলোচনাই হয়নি।

এ বিষয়ে জবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, ‘সিন্ডিকেট সভায় জকসু নিয়ে আলোচনা করা হয়নি। কারণ জকসু নির্বাচনের বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো খসড়া চূড়ান্ত হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিম্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলছে ডাকসুর আদলে নীতিমালা প্রণয়ন করে জকসু নির্বাচন দেওয়ার জন্য। কিন্তু এমন হলে পরাজিত পার্থী যদি আইনের আশ্রয় নেয় তাহলে নির্বাচন বাতিল হয়ে যাবে। কারণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে জকসুর বিধানটি যুক্ত নেই। তাই প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলে ও সিন্ডিকেট সভায় আইনটি পাশ করে তা অনুমোদনের জন্য জাতীয় সংসদে পাঠাতে হবে। তারপর জকসু নির্বাচন দেওয়া যাবে। আর সেটা করতে হলে সময়ের প্রয়োজন।’

তবে এ বিষয় নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। তারা বলেন, জকসু নির্বাচন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের সদিচ্ছার অভাব রয়েছে। প্রশাসন মনোযোগ দিলে সব ধরনের জটিলতা দ্রুত কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থাকাকালে ১৯৫৪ সালে জগন্নাথ কলেজ ছাত্রসংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবং সর্বশেষ ১৯৮৭ সালে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আগে ও পরে আর কোনো ছাত্রসংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি।

আপনার মতামত লিখুন :