Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

দ্বিতীয় বার বিশ্ববিদ্যাল‌য়ে ভ‌র্তি পরীক্ষার সু‌যোগ দা‌বি

দ্বিতীয় বার বিশ্ববিদ্যাল‌য়ে ভ‌র্তি পরীক্ষার সু‌যোগ দা‌বি
ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যাল‌য়সহ (ঢাবি) দে‌শের সব সরকা‌রি বিশ্ববিদ্যাল‌য়ে দ্বিতীয়বার ভ‌র্তি পরীক্ষা দেওয়ার সু‌যোগ দা‌বি জা‌নি‌য়ে‌ছেন শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (২৮ মে) দুপু‌রে ক্রাইম রি‌পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ক্রাব) সংবাদ স‌ম্মেল‌নে এই দাবি জানান বেশ ক‌য়েকজন ভ‌র্তিচ্ছু শিক্ষার্থী।

সংবাদ স‌ম্মেল‌নে শিক্ষার্থী‌দের প‌ক্ষে তেজগাঁও ক‌লেজের সম্মান প্রথম ব‌র্ষের শিক্ষার্থী না‌হিদ ভূঁইয়া ব‌লেন, দে‌শের ৪১টি সরকারি বিশ্ববিদ্যাল‌য়ের ম‌ধ্যে ৩৫টি‌তে দ্বিতীয় বার ভ‌র্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সু‌যোগ আছে। ঢাবিসহ কেবল ৪/৫‌টি বিশ্ববিদ্যালয় দ্বিতীয় বার পরীক্ষা দেওয়ার সু‌যোগ বন্ধ ক‌রে দি‌য়ে‌ছে। বিশ্ববিদ্যাল‌য়ে ভ‌র্তি পরীক্ষায় এমন বৈষম্য শিক্ষাক্ষে‌ত্রে চরম অবনতি ঘটা‌চ্ছে। এভাবে উন্নত দে‌শের সা‌থে তাল মি‌লি‌য়ে চলা সম্ভব না। দে‌শের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ দিয়ে এই বৈষম্য অন‌তি‌বিল‌ম্বে দূর কর‌তে হ‌বে।

তিনি জানান, আমরা ইতোম‌ধ্যে ঢাবি উপাচার্য বরাবর স্মারক‌লি‌পি দি‌য়েছি। শিক্ষামন্ত্রীর কা‌ছে আবেদন দিয়ে এসেছি। য‌দিও শিক্ষামন্ত্রী না থাকায় তার একজন স‌চিব মন্ত্রীর প‌ক্ষে আমা‌দের আবেদন গ্রহণ ক‌রে‌ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাঁর কার্যাল‌য়েও আমরা আমা‌দের আবেদন পা‌ঠি‌য়ে‌ছি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, শর্ত আরোপ ক‌রে হ‌লেও দ্বিতীয়বার ভ‌র্তি পরীক্ষায় অংশ নি‌তে চাই। শর্তগু‌লোর ম‌ধ্যে র‌য়ে‌ছে, দ্বিতীয়বার পরীক্ষার্থীরা বে‌শি সময় পাওয়ায় তা‌দের জন্য ২/৩ নম্বর কর্তন ক‌রে পরীক্ষা দেওয়ার সু‌যোগ দেওয়া যেতে পারে। যোগ্য প্রা‌র্থীর অভা‌বে থাকা ফাঁকা আসনগু‌লোও দ্বিতীয়বারের জন্য সু‌যোগ দেওয়া যে‌তে পা‌রে। এছাড়া, ঢা‌বি‌তে ভ‌র্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা দ্বিতীয়বার সু‌যোগ পা‌বেন না, এমন নিয়মও করা যেতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে রাজধানীর বি‌ভিন্ন ক‌লে‌জের ২০১৮ সালের এইচএসসি ব্যা‌চের ১৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন।

আপনার মতামত লিখুন :

ঢাবির ৮১০ কোটি ৪২ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা

ঢাবির ৮১০ কোটি ৪২ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশন/ ছবি: বার্তা২৪.কম

২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৮১০ কোটি ৪২ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। বুধবার (২৬ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশনে এ বাজেট পেশ করেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক কামাল উদ্দিন।

এতে গবেষণার জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয় ৪০ কোটি ৮০ লাখ ৭০ হাজার টাকা। যা মোট বাজেটের পাঁচ দশমিক চার শতাংশ। তবে বাজেটের পরিমাণ নিতান্তই কম বলে মন্তব্য করেছেন কোষাধ্যক্ষ কামাল উদ্দিন।

কোষাধ্যক্ষ বলেন, ‘কমপক্ষে দেড় হাজার কোটি টাকার বাজেট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজন। স্ট্যান্ডার্ড প্রোডাকশনের জন্য এই ৮০০ কোটি টাকার বাজেট নিতান্তই কম। বর্তমান সরকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাপারে আন্তরিক। আশা করি, আমরা সামনে আরও বড় বাজেট পাব।’

উপাচার্যের অভিভাষণে সিনেটের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, ‘সিনেটের সদস্য সংখ্যা এখন ১০৫। যা ১৯৯৩ সালের পর পূর্ণাঙ্গ সিনেট। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী জাতির জনকের কন্যা মানবতার মাতা হিসেবে খ্যাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আজীবন সদস্যপদ প্রদানের মহতী উদ্যোগের জন্য ডাকসু নেতৃবৃন্দকে আন্তরিক ধন্যবাদ।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার ১৯৯৬ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য বিদেশে প্রশিক্ষণ বৃত্তি শীর্ষক একটি উদ্যোগ গ্রহণ করে।দুঃখজনকভাবে পরবর্তী সরকার ২০০৫ সালে তা বন্ধ করে দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা 'ওভারসিস স্কলারশিপ' শিরোনামে তা পুনরায় চালু করেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিং নিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রকৃত তথ্য না জেনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান ও র‌্যাংকিং নিয়ে ঢালাওভাবে অনেকেই যেসব মন্তব্য করেন, তা খুবই হতাশাজনক।’

তিনি বলেন, ‘অনেক মানদণ্ডেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এগিয়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সবসময় স্বীকৃত জার্নালে গবেষণাপত্র প্রকাশকে উৎসাহিত করে থাকে। শিক্ষকরা তা করেও থাকেন।’

উপাচার্য জানান, ২০২০ মুজিব বর্ষ ও ২০২১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদযাপন- এ দুটো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাকে অর্থবহ করে রাখার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে থাকবে শিক্ষার্থীদের জীবনমান উন্নয়নে কিছু উদ্যোগ, গবেষণাগার উন্নয়ন ও ভৌত অবকাঠামো সম্প্রাসারণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপন, পরিচ্ছন্ন ও নান্দনিক ক্যাম্পাস বিনির্মাণ প্রভৃতি।

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন থেকে ৬৯৪ কোটি ৬৫ লাখ টাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব খাত থেকে ৬৬ কোটি টাকা আসবে। বাজেটে সম্ভাব্য ঘাটতি ধরা হয়েছে ৪৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

গত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বরাদ্দ ছিল ৭৬১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। সে হিসেবে এ বছর বাজেট বেড়েছে ৬৯ কোটি ২৯ লাখ টাকা।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ, সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, নির্বাচিত রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট প্রতিনিধিগণ ও পাঁচজন ছাত্রপ্রতিনিধি।

বেরোবির নতুন প্রক্টর আতিউর রহমান

বেরোবির নতুন প্রক্টর আতিউর রহমান
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি)। ছবি: সংগৃহীত

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) নতুন প্রক্টর হিসেবে ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আতিউর রহমানকে (চলতি দায়িত্ব) নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) রাতে জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কর্নেল (অব.) আবু হেনা মুস্তাফা কামাল স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে আতিউর রহমানকে এ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাকে এ দায়িত্ব পালন করতে বলা হয়েছে।

দায়িত্ব গ্রহণ করেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক ভবনে সকল প্রকার সভা সমাবেশ, মিছিল, মাইকিং এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থ পরিপন্থী সকল কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করেছেন নতুন প্রক্টর আতিয়ার রহমান।

এদিকে দীর্ঘ তিন বছর আট মাসের বকেয়া বেতন-ভাতা প্রদানসহ চার দফা দাবি আদায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ২৩ জুন থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে অনির্দিষ্টকালের আন্দোলন করছে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের একটি সংগঠন।

গতকাল মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকালে প্রশাসনিক ভবনের মূল ফটকে আন্দোলনরত কর্মচারীরা তালা ঝুলিয়ে দেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ কিছু শিক্ষক ও শিক্ষার্থী একত্রিত হয়ে বিকেলে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায় এবং হাতুড়ি দিয়ে তালা ভেঙে ফেলেন। এরপর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি নিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে রাতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কার্যকরী কোনো আশ্বাস না পাওয়ায় ও হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে বুধবার (২৬ জুন) সকাল থেকে ফের আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে বেরোবি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের নেতারা।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র