অতিরিক্ত ভাড়ার প্রতিবাদ করায় চবি শিক্ষার্থীকে মারধর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
সাদাত হোসাইন। ছবি: সংগৃহীত

সাদাত হোসাইন। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের প্রতিবাদ করায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে সিএনজি অটোরিকশা চালক।

রোববার (১৬ জুন) রাত পৌনে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নাম্বার গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানালে অপর এক শিক্ষার্থীকেও চড় দেন ওই চালক।

মারধরের শিকার সাদাত হোসাইন চবি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। এ বিষয়ে সাদাত বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নাম্বার গেট থেকে মূল ক্যাম্পাসে যাওয়ার জন্য রাত সাড়ে ১০টা থেকে সিএনজি অটোরিকশার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। কিন্তু কোনো সিএনজি অটোরিকশা যাচ্ছিল না। অনেকক্ষণ পরে একটি সিএনজি অটোরিকশা পাই। পথে ওই সিএনজি অটোরিকশার চালক ৬ টাকার স্থলে ১০ টাকা ভাড়া চান। কেন অতিরিক্ত ভাড়া চাইলেন জিজ্ঞেস করলে ওই চালক গাড়ি থামিয়ে নেমে যেতে বলেন। এর প্রতিবাদ করলে চালক অতর্কিতভাবে আমাকে লাথি মারেন। এক পর্যায়ে টান দিয়ে আমাকে সিএনজি অটোরিকশা থেকে বাইরে ফেলে দেন। মারধরের কারণে আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়।’

তিনি আরও জানান, ‘রাত ১১টার পরে সিএনজি চালকরা ৬ টাকার স্থলে ১০ টাকা দাবি করে। আমরাও মানবিক দিক বিবেচনা করে মেনে নেই। কিন্তু গতকাল তখনো ১১টা বাজেনি। বরং আমাকে মারধর করার প্রতিবাদ করলে অপর এক বড় ভাইকে চড় মারেন ওই চালক। ওই সময় অন্যান্য সিএনজি চালকরা আমাদের ঘিরে রাখে।’

মারধর করা ওই সিএনজি অটোরিকশায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অনুমোদিত স্টিকার ছিল না বলেও জানান সাদাত।

তবে শিক্ষার্থী মারধরের ঘটনা অবহিত নন বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আলী আজগর চৌধুরী। তিনি জানান, এ রকম কোনো অভিযোগের কথা জানেন না তিনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

আপনার মতামত লিখুন :