রাবি শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে চাঁদা দাবি

রাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি), ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি), ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে টাকা দাবি করার অভিযোগ উঠেছে বহিরাগত এক যুবকের বিরুদ্ধে। ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ওই যুবক গত তিন দিন ধরে বিশ হাজার টাকা দাবি করে আসছে বলে জানা গেছে। রোববার (১৪ জুলাই) রাতে বিষয়টি জানাজানি হয়।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর নাম নাসির উদ্দিন। সে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। গত চার মাস ধরে সে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় বন্ধুদের সঙ্গে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন।

অপরদিকে অভিযুক্ত ওই যুবকের নাম রাজু। তার বাড়ি মেহেরচন্ডি এলাকায়। সে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ২৬ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বলে একাধিক সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

নাসির উদ্দিনের অভিযোগ, গত শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকেলে ক্যাম্পাসে জন্মদিন পালন করেন নাসির উদ্দিন। তিনি তার এক বান্ধবিকেও জন্মদিনে আসতে বলেছিলেন। কিন্তু তার বান্ধবি জন্মদিনে আসতে পারেননি। পরে জন্মদিন পালন শেষে সন্ধ্যায় রুমে আসেন নাসির। তার বান্ধবি নাসিরকে জন্মদিনের উপহার দিতে তার ভাড়া বাসার সামনে আসেন। ঠিক ওই সময় নাসির ও তার বান্ধবিকে বাসার সামনে কথা বলতে দেখে রাজুসহ কয়েকজন তাদেরকে জোরপূর্বক নাসিরের রুমে নিয়ে যায়। ওই সময় রুমের অন্য সদস্যরা বাইরে ছিলেন। তারা নাসির ও তার বান্ধবির কাছে থাকা টাকা ও ফোন ছিনিয়ে নেয়।

নাসির আরও অভিযোগ করেন, নাসির ও তার বান্ধবিকে একসঙ্গে বসিয়ে রাজু ছবি তোলেন এবং ২০ হাজার টাকা না দিলে এই ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখায়।

টাকা দেওয়ার জন্য আগামীকাল মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বিকেল ৫টা পর্যন্ত সময় দেয় রাজু। রাজু রোববার (১৪ জুলাই) রাতে নাসিরকে আবার ডেকে নিয়ে প্রায় এক ঘণ্টা আটকে রাখে এবং চাঁদা দিতে চাপ দেয়। নাসির টাকা দিতে রাজি হলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। রাতেই নাসির বিষয়টি সাংবাদিক ও তার বন্ধুদেরকে জানান।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে রাজুকে ফোন করা হয়। একজন ফোন রিসিভ করে নিজেকে রাজু হিসেবে পরিচয় দিলেও তার বাড়ি মৌলভীবাজার বলে জানায়। তিনি জিম্মির বিষয়টি শুনে অবাক হন এবং ফোন কেটে দেন। এর কিছুক্ষণ পর একাধিকবার ফোন করা হলে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমি রাতেই নাসিরের সঙ্গে কথা বলেছি এবং তাকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি। সে অনুযায়ী আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব।’

আপনার মতামত লিখুন :