Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে ধর্ষণ, কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে ধর্ষণ, কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা
ধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরই ধর্ষকের মুখে কালি, গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়, ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
খুলনা


  • Font increase
  • Font Decrease

ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) লাইব্রেরিতে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় চারুকলা বিভাগের ১৬ তম ব্যাচের ছাত্র পাপ্পু কুমারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

ইতোমধ্যে ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই ছাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতন বিরোধী কমিটি পাপ্পুর বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্তও সম্পন্ন করেছে। তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে ওই ধর্ষণের ঘটনায় মামলা না হওয়ায় পার পেতে চলেছে অভিযুক্ত।

অভিযুক্ত পাপ্পু কুমার খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলার বাসিন্দা এবং বঙ্গবন্ধু পাঠক ফোরাম খুবি শাখার সভাপতি। ঘটনার পর গত ১৫ জুলাই পাপ্পু বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলে ছাত্ররা তাকে মুখে কালি লাগিয়ে গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেয়।

ক্যাম্পাস সূত্র জানায়, গত ৩ জুলাই খুবির চারুকলা অনুষদে চিত্রকলা প্রদর্শনী ছিল। পাপ্পু প্রদর্শনী দেখানোর নাম করে ওই মেয়েকে ডেকে নেয়। মেয়েটি চারুকলায় যাবার পর তাকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে চারুকলার লাইব্রেরিতে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এরপর পাপ্পু নিজের রুমে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন।

রাত আড়াইটার দিকে মেয়েটি চারুকলার লাইব্রেরির সিঁড়িতে কান্নাকাটি করার সময় দারোয়ান তাকে দেখতে পান। তখন তিনি পাপ্পুকে ডাকার ব্যবস্থা করেন। পরে ধর্ষিতার পরিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক বরাবরে পাপ্পুর শাস্তি দাবি করে আবেদন করেন। তবে পাপ্পু ছাত্রলীগের প্রভাব খাটিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে।

ধর্ষণের শিকার হওয়া খুলনা কলেজিয়েট গার্লস কলেজের ছাত্রীর পরিবার বলেন, 'ঘটনার পর থেকে মামলা না করার জন্য রাজনৈতিক মহল থেকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। ধর্ষক হয়েও কীভাবে এরা রাজনৈতিক আশ্রয় পায়? লোকলজ্জা আর প্রাণের ভয়ে মামলা করতে পারছি না।'

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর শরীফ হাসান লিমন বলেন, 'ধর্ষণের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতন বিরোধী কমিটি তদন্ত সম্পন্ন করেছে। খুব শীঘ্রই পাপ্পুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

আপনার মতামত লিখুন :

ঈদুল আযহার ছুটি শেষে ইবি খুলছে কাল

ঈদুল আযহার ছুটি শেষে ইবি খুলছে কাল
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, ছবি: বার্তাটোয়েন্টফোর.কম

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা ও জাতীয় শোকদিবসসহ ১১ দিনের ছুটি শেষে রোববার (১৮ আগস্ট) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) খুলছে। শনিবার (১৭ আগস্ট) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বার্তাটোয়েন্টফোর.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ বিষয়ে তিনি জানানরোববার (১৮ আগস্ট) থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু হবে এবং প্রভোস্ট কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওইদিন সকাল ৯টায় আবাসিক হলসমূহ খুলে দেওয়া হবে। এছাড়া ১৯ আগস্ট হতে ক্লাস ও পরীক্ষাসমূহ যথারীতিতে চলবে।

উল্লেখ্যছুটির তালিকা অনুযায়ী গত ৬ আগস্ট হতে ১৮ আগস্ট পর্যন্ত ক্লাসসমূহ এবং গত ৭ আগস্ট হতে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত অফিসসমূহ বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয় প্রভোস্ট কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ৭ আগস্ট সকাল ১১টায় হল বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে বিডিইউ উপাচার্যের শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে বিডিইউ উপাচার্যের শ্রদ্ধা
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিডিইউ উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর

জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির (বিডিইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর।

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) মো. আশরাফ উদ্দিনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

শ্রদ্ধা জানানো শেষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, সদ্য স্বাধীন যুদ্ধ-বিধ্বস্ত দেশে বঙ্গবন্ধু যখন পুরো জাতিকে নিয়ে সোনার বাংলা গড়ার সংগ্রামে নিয়োজিত, তখনই স্বাধীনতাবিরোধী-যুদ্ধাপরাধী চক্র জাতির পিতাকে হত্যা করে। কিন্তু তার স্বপ্ন ও আদর্শকে রুখে দিতে পারেনি ঘাতকেরা।

উপাচার্য জাতীয় শোক দিবসে জাতির পিতা হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ ও তিতিক্ষার দীর্ঘ সংগ্রামী জীবনাদর্শ ধারণ করে সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে তরুণ প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র