পাকিস্তানকে হতাশায় ডোবাল অস্ট্রেলিয়া, দুবাই টেস্ট ড্র

উসমান খাজা : ১৪১ রান

জয়টা যেন হাতের মুঠোতেই ছিল পাকিস্তানের। হাতে পুরো দিন, চাই প্রতিপক্ষের ৭ উইকেট। আর অস্ট্রেলিয়া জিততে দরকার ৩২৬ রান! সন্দেহ নেই টেস্টের পঞ্চম ও শেষদিনে এটা মিশন ইমপসিবল। অজিরা জয়ের পথে না হেটে ম্যাচ বাঁচাল। পাকিস্তানকে হতাশায় পুঁড়িয়ে পুরোটা দিনই ব্যাট করলেন দলের ব্যাটসম্যান। তারই পথ ধরে দুবাই টেস্ট ড্র!

অথচ বেশ রোমাঞ্চ ছড়িয়েছিল সাদা পোশাকের এই ক্রিকেট। টানা ৪দিন ছিল পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান-বোলারদের রাজত্ব। কিন্তু শেষদিনে এসে হিসাবের ছক উল্টো দিল অস্ট্রেলিয়া। ২য় ইনিংসে প্রবল প্রতিরোধ গড়ল সফরকারীরা। খেলল নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের চতুর্থ ইনিংস।

এর আগে পাকিস্তান ১ম ইনিংসে করে ৪৮২ রান। জবাবে নেমে অস্ট্রেলিয়া অলআউট হয়ে যায় মাত্র ২০২ রানে। প্রতিপক্ষকে ফলোঅনে ফেলেও এরপর ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। ২য় ইনিংসে ৬ উইকেটে ১৮১ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিকরা। চাপে পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। জিততে চতুর্থ ইনিংসে তাদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪৬২ রান। শেষ পর্যন্ত অজিরা ৮ উইকেটে তুলে ৩৬২ রান।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/11/1539266681655.jpg

এরমধ্যে উসমান খাজা একাই যেন শেষ করে দিলেন পাকিস্তানের জয়ের স্বপ্ন। বৃহস্পতিবার পুরো দিনে খেললেন ১৯৪ বল। সব মিলিয়ে ১৪১ রান করে ধরেন সাজঘরের পথ। সঙ্গে ট্রাভিস হেডের ব্যাটে ৭২। আর ৬১ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ ড্র করেই মাঠ ছাড়েন টিম পাইন। অস্ট্রেলিয়া ২য় ইনিংসে করে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩৬২ রান।

৩ উইকেটে ১৩৬ রান নিয়ে বৃহস্পতিবার দিনের খেলা শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। তারপর ট্রাভিস হেডকে পাড়ি দেন কঠিন পথ। দেখে-শুনে পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে খেলতে থাকেন খাজা। তুলে নেন ক্যরিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/11/1539266706908.jpg

তবে হেডের (৭২) বিদায় ভাঙে ১৩২ রানের জুটি। তবে লড়ে গেছেন উসমান খাজা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ১৪১ রানে সাজঘরের পথ ধরেন তিনি। ততোক্ষণে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ অজিদের হাতে। চতুর্থ ইনিংসে সেঞ্চুরি ছাড়ানো ইনিংসে রেকর্ড গড়েন অজি ওপেনার। ২০১০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে চতুর্থ ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৩১ রান করেন পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান ইউনিস খান। দেশটিতে এটিই ছিল ফোর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। এটা এবার সেই রেকর্ড ভাঙলেন খাজা। এমন ইনিংসে ম্যাচসেরা তিনিই।

খাজা ফিরলেও ঠিকই লড়ে গেছেন অজি অধিনায়ক টিম পাইন। দিনের টেস্টের শেষ বলটি খেলেই সাজঘরে ফিরেন তিনি। তখন তার ব্যাটে ৬১*। পাকিস্তানের হয়ে ১১৪ রানে ৪ উইকেট নেন ইয়াসির শাহ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪৮২/১০ ও ২য় ইনিংস: ১৮১/৬ (ডি.)

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ২০২/১০ ও ২য় ইনিংস: ১৩৯.৫ ওভারে ৩৬২/৮ (খাজা ১৪১, হেড ৭২, লাবুশেন ১৩, পাইন ৬১*, স্টার্ক ১, লায়ন ৫*; আব্বাস ৩/৫৬, হাফিজ ১/২৯, ইয়াসির ৪/১১৪)।

ফল: ম্যাচ ড্র
সিরিজ: দুই ম্যাচ সিরিজে ০-০ সমতা
ম্যাচসেরা: উসমান খাজা

খেলা এর আরও খবর