Alexa

ইতালিকে আটকে দিয়ে গ্রুপসেরা পর্তুগাল

ইতালিকে আটকে দিয়ে গ্রুপসেরা পর্তুগাল

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়াই আরেকটি ধাপ এগিয়ে গেল পর্তুগাল

ফুটবল গোলের খেলা। এখানে পুরো ৯০ মিনিট বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও গোল করতে না পারলে সব দাপট ব্যর্থ। যেমনটা হয়েছে শনিবার রাতে ইতালির। স্যানসিরোতে নিজেদের মাঠে দুর্দান্ত খেললেও গোলের দেখা পায়নি। একের পর এক আক্রমণে পর্তুগালের রক্ষণভাগের ফুটবলারদের ব্যস্ত রাখলেও নিশানা খুঁজে নিতে পারে নি স্বাগতিকরা।

ইতালিকে আটকে দিয়ে উয়েফা নেশন্স লিগে গ্রুপ সেরা হয়েছে ইতালি। সান সিরোতে  ‘এ’ লিগে গ্রুপ-৩ এর ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে প্রথম লেগে লিসবনে চারবার বিশ্বকাপ জয়ীদের ১-০ গোলে পর্তুগাল। স্বস্তির খবর হল এই ম্যাচটাও পর্তুগিজরা জিতেছে তাদের সেরা ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়া। রাশিয়া বিশ্বকাপের পর থেকেই সিরিআর-সেভেনকে ভুলতে বসেছে ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।

ইতালিকে আটকে দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পাশাপাশি প্রথম দল হিসেবে নেশনস লিগের ফার্স্ট ফোর (সেমিফাইনাল) নিশ্চিত করেছে পর্তুগাল। ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা পর্তুগালকে কারো টপকানোর সুযোগ নেই।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/18/1542514001258.jpg

যদিও ম্যাচের ৪ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো ইতালি। লরেন্সো ইনসিনিয়ের আচমকা শট আটকে দিয়ে প্রথম পরীক্ষায় পাশ পর্তুগালের গোলকিপার রুই পাত্রিসিও। এরপর ৩২তম মিনিটে ইম্মোবিলের শট আটকে তিনি।

অবশ্য ৭৩তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো পর্তুগাল। ম্যাচে পাওয়া প্রথম সুযোগটা হাতছাড়া করেন জোয়াও মারিও। তারপর ম্যাচের বাকী সময়ে ইতালি বেশ কয়েকবার আক্রমণ করলেও গোলের দেখা পায়নি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/18/1542514327601.jpg

এই ম্যাচ দিয়েই ইতালির হয়ে শততম ম্যাচ খেলার মাইলফলক স্পর্শ করেন জর্জিও কিয়েলিনি। সপ্তম ফুটবলার হিসেবে দেশের হয়ে শততম ম্যাচ খেলার কীর্তি গড়লেন এই ডিফেন্ডার। ২০০৪ সালে ইতালির হয়ে অভিষেক তার। এরপর অনেক সাফল্যের সঙ্গে এই মাইলফলকে পা রাখলেন ৩৪ বছর বয়সী এই ফুটবলার।

ড্র নিয়েও মাঠ ছাড়লেও একটা স্বস্তি আছে আজ্জুরিদের। পর্তুগালের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে এনিয়ে টানা ১২ ম্যাচ অপরাজিত থাকল তারা। আগের ১১ ম্যাচের ১০টিতে জয়ের পর এবার অবশ্য হোঁচট খেলো।

আর উয়েফা নেশন্স লিগে তিন ম্যাচে পর্তুগাল ৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে শীর্ষে। চার ম্যাচে এক জয় ও দুই ড্রয়ে ইতালির অর্জন ৫ পয়েন্ট। তিন ম্যাচে ১ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ লিগে নেমে গেছে পোল্যান্ড।

আপনার মতামত লিখুন :