Alexa

সতীর্থ, স্পন্সর, অর্থ সবই হারাচ্ছেন হার্দিক-রাহুল!

সতীর্থ, স্পন্সর, অর্থ সবই হারাচ্ছেন হার্দিক-রাহুল!

ক্যারিয়ারে দুঃসময় হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

বেফাঁস মন্তব্যে ক্যারিয়ারটাই টালমাটাল হয়ে গেল হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলের। জাতীয় দলে জায়গা তো হারিয়েছেনই একইসঙ্গে এই নির্বাসন কখন ফুরাবে কেউ বলতে পারছেন না! করন জোহরের টেলিভিশন টক শোতে তাদের লাগাম-ছাড়া কথা নিয়ে বিতর্ক চলছেই। তারই পথ ধরে এবার সতীর্থদের সমর্থন, স্পন্সর আর কোটি রুপির চুক্তি সবই হারাতে বসেছেন এই দুই ক্রিকেটার।

‘কফি উইথ করন’ -এর একটি পর্বে অতিথি হার্দিক ও রাহুল নারীদের নিয়ে আপত্তিকর কিছু কথা বলেন। যে কারণে অস্ট্রেলিয়া থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছে ভারতীয় জাতীয় দলের দুই ক্রিকেটারকে। তাদের ছাড়াই সিডনিতে শনিবার সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে হোঁচট খেয়েছে দল।

এ অবস্থায় মুখ খুললেন আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং। ক্ষুব্ধ এই তারকা জানিয়ে দিলেন, ‘আমার মেয়ে ও স্ত্রী পাশে থাকলে হার্দিক-রাহুলের সঙ্গে আমি এক বাসে যেতে রাজি হব না। কারণ কেউ যদি মেয়েদের কেবল এক রকম দৃষ্টিভঙ্গিতেই দেখে, তবে তার সঙ্গে চলাফেরা করা যায় না। আমরা এসব কথা বন্ধুদের সামনেও বলি না, আর ওরা গণমাধ্যমে বলে দিল! এখন অনেকে ভাবতে পারেন হরভজন, অনিল কুম্বলে কিংবা শচীন টেন্ডুলকারও কী এমন!’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/13/1547360981313.jpg

ভাজ্জির মতে বোর্ড এই দুই ক্রিকেটারের ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নারীদের নিয়ে আপত্তিকর কথা যারা বলেন তাদের এমনটাই প্রাপ্য।

বেফাঁস মন্তব্যের পর এবার স্পন্সরও হারাতে যাচ্ছেন হার্দিক-রাহুল। একটি শেভিং রেজার ব্র্যান্ড জানিয়ে দিয়েছে হার্দিকের সঙ্গে তারা চুক্তি রাখছে না। স্পোর্টসওয়্যার, মেনস গার্মেন্ট ছাড়াও মোট সাতটি ব্র্যান্ডের সঙ্গে চুক্তি আছে ভারতীয় এই তারকা ক্রিকেটারের। সব স্পন্সররাই নড়েচড়ে বসেছে।

আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে লোকেশ রাহুলেরও। তার স্পন্সররাও সতর্ক দৃষ্টিতে পুরো বিষয়টায় চোখ রাখছেন। নারীদের নিয়ে যাদের মনোভাব এতোটা বিতর্কিত তাদের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর করা ঝুঁকিপূর্ণ সেটা তারা ভাল করেই জানে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/13/1547360517206.jpg

একইসঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সঙ্গে হার্দিক-রাহুলের চুক্তি নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। ‘বি’ ক্যাটেগরিতে থাকা এই দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে বার্ষিক ৩০ লক্ষ রুপির চুক্তি রয়েছে। ২০১৯ সালে সেই অঙ্কটা বেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও এখন উল্টোটাই হবে। চুক্তিতে অবনমন কিংবা বাদই পড়তে পারেন তারা!

তবে চাপে আছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডও। কারণ চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের কোনও অনুষ্ঠানে যেতে হলে অনুমতি নিতে হয় তাদের। করন জোহরের টিভি শো যাওয়ার আগে হার্দিক-রাহুল আদৌ অনুমতি নিয়েছিলেন কীনা সেটিও তদন্তের কথা উঠছে!

খেলা এর আরও খবর