Alexa

ঢাকার প্রথম হার, রাজশাহীর তৃতীয় জয়

ঢাকার প্রথম হার, রাজশাহীর তৃতীয় জয়

মায়ের নামের জার্সিতে মাঠে নেমেই জিতলেন রাজশাহীর ক্রিকেটাররা

ম্যাচ শুরুর আগে হট ফেভারিট ছিলো ঢাকা ডায়মাইটস। কিন্তু রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে ডায়নাইটস আর ফুটলো না! ফিউজ হয়ে গেলো! চলতি বিপিএলের ‘বড় খবর’; ঢাকার হার। টুর্নামেন্টে এই প্রথম কোন ম্যাচ হারলো ঢাকা। ১৩৬ রানের মামুলি পুঁজি নিয়েও ২০ রানে ম্যাচ জিতলো রাজশাহী। ঢাকার ইনিংস থেমে গেলো ৯ উইকেটে ১১৬ রানে।

টুর্নামেন্টের দুই হট ফেভারিটকে হারানোর কৃতিত্ব এখন রাজশাহী কিংসের। গেলবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সকে হারানোর পর ঢাকা ডায়মাইটসকেও হারালো তারা। টুর্নামেন্টে এটি ঢাকার প্রথম হার। আর রাজশাহীর তৃতীয় জয়।

সিলেট আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জয়ী রাজশাহী কিংস ব্যাটিং বেছে নেয়। ওপেনার হিসেবে নেমে আরেকটি ম্যাচে ব্যর্থ হলেন অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে একাদশে প্রথমবারের মতো নামা মার্শাল আইয়ুব ও একাদশে ফেরা শাহরিয়ার নাফীসের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৭৫ রান রাজশাহীকে শুরুর সংকট থেকে উদ্ধার করে। এই দুই ব্যাটসম্যান পুরোদুস্তর সেট হয়ে একই ওভারে আউট হলেন। সুনীল নারিন ম্যাচ তার দ্বিতীয় ওভারেই মাত্র ৩ রান খরচায় তুলে নিলেন শাহরিয়ার নাফীস ও মার্শাল আইয়ুবকে। ওয়ানডাউনে নামা মার্শাল আইয়ুব এই ম্যাচে রাজশাহীর সেরা ব্যাটসম্যান। ৩১ বলে ৩ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৪৫ রান করেন মার্শাল আইয়ুব। ১৪ ওভারে ১০০ রানে পৌছায় রাজশাহী ইনিংস। তবে শেষের ছয় ওভারে রাজশাহীর ব্যাটিং প্রশংসা পাওয়ার মতো কিছু যে হলো না। শেষের ছয় ওভারে মাত্র ৩৬ রান তুলে রাজশাহী।

সুনীল নারিন ৪ ওভারে ১৯ রানে ৩ উইকেট শিকার করে ঢাকার সেরা বোলিং পারফর্মার।

রান সামান্য দেখে ব্যাটিং অর্ডারে কিছুটা বদল আনে ঢাকা। মেহেদি মিরাজ নিজের প্রথম ওভারে নারিনকে ফিরিয়ে দেয়ার পর ওয়ানডাউনে শাসন করতে নামেন আন্দ্রে রাসেল। তবে ম্যাচের এরপরের স্ক্রিপ্ট যে স্পিনার আরাফাত সানি নিজ হাতে লিখলেন। অনেকদিন মনে রাখার পর বোলিং করলে এই ম্যাচে বাঁহাতি এই স্পিনার। ৪ ওভারে ১ মেডেনসহ মাত্র ৮ রানে ৩ উইকেট। আন্দ্রে রাসেল, রনি তালুকদার ও সাকিব আল হাসানের প্রাইজ উইকেট শিকার করলেন আরাফাত সানি। একপ্রান্ত থেকে আরাফাত সানির এই চেপে ধরা বোলিংয়ে ঢাকার প্রয়োজনীয় রানরেট ক্রমশ উঁচুতে উঠতে শুরু করে। ম্যাচে সেই উচ্চতা আর অতিক্রম করতে পারেনি ঢাকা। কাইরন পোলার্ডকে নিজের শেষ ওভারে ফিরিয়ে দিয়ে কামরুল ইসলাম রাব্বী এই ম্যাচের হিসেব পুরো করে দেন।

শেষের দুই ওভারে ম্যাচ জিততে ঢাকার প্রয়োজন ছিলো ৪৪ রান। উইকেটকিপার কাম ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান একটা চেষ্টা চালান। তবে তার ব্যাটিং রোমাঞ্চও ঢাকার হার এড়াতে পারেনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: রাজশাহী কিংস: ১৩৬/৬ (২০ ওভারে, শাহরিয়ার নাফীস ২৫, মার্শাল আইয়ুব ৪৫, ডেসকাট ১৬, জাকির হাসান ২০, নারিন ৩/১৯)। ঢাকা ডায়মাইটস: ১১৬/৯ (২০ ওভারে, রনি তালুকদার ১৪, সাকিব ১৩, মোহাম্মদ নাইম ১৭, নুরুল হাসান সোহান ২১, সানি ৩/৮, মিরাজ ২/১৮)। ফল: রাজশাহী কিংস ২০ রানে জয়ী। ম্যাচ সেরা: আরাফাত সানি।

আপনার মতামত লিখুন :