Barta24

শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

English

ওয়ানডেতে ভিন্ন পাকিস্তান

ওয়ানডেতে ভিন্ন পাকিস্তান
পাকিস্তানের জয়ের নায়ক মোহাম্মদ হাফিজ
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

টেস্ট সিরিজে হোয়াইট ওয়াশের লজ্জায় ডুবেছিল পাকিস্তান। টানা তিন টেস্টেই হার। কিন্তু ওয়ানডে সিরিজে ঠিকই ঘুরে দাঁড়াল সফরকারীরা। প্রথম ওয়ানডেতে দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়েছে সরফরাজ আহমেদের দল।

শনিবার পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জেস পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫ উইকেটে জিতেছে পাকিস্তান। এই জয়ে ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেলো তারা।

যদিও বড় একটা চ্যালেঞ্জ টপকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান। হাশিম আমলার শতরানে দক্ষিণ আফ্রিকা ২৬৭ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয়। এরপর ৫ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে নোঙর করে সফরকারীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/20/1547948512058.jpg

নিজেদের মাঠে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালই ছিল প্রোটিয়াদের। রিজা হেনড্রিকসের সঙ্গে ৮২ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন আমলা। ৬৭ বলে ৪৫ রান করা হেনড্রিকসকে সাজঘরের পথ দেখিয়ে দেন শাদাব খান।

এরপর আমলা ও অভিষিক্ত রাসি ফন ডার ডুসান দ্বিতীয় উইকেটে জমা করেন  ১৫৫ রান। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচেই শতরান পেতে যাচ্ছিলেন ডুসান। ১০১ বলে ৯৩ রানে আউট তিনি। এরইমধ্যে আমলা পেয়ে যান ২৭তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। শেষ অব্দি ১২০ বলে ১০৮ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/20/1547948536095.jpg

জবাব দিতে নেমে ফখর জামান ও ইমাম উল হক গড়েন ৪৫ রানের জুটি। দ্বিতীয় উইকেটে ৯৪ রান তুলেন ইমাম ও বাবর আজম। ৪৯ রান ফিরে যান বাবর। আর ১০১ বলে খেলা ইমামের ব্যাটে ৮৬ রান। এরপর বাকী পথটা পাড়ি দেন শাদাব ও হাফিজ। ৬৩ বলে অপরাজিত ৭১ রান করে ম্যাচসেরা হাফিজ।

এই জয়ে পোর্ট এলিজাবেথে শ্রেষ্টত্ব ধরে রাখল পাকিস্তান। সব মিলিয়ে ৪ ম্যাচের তিনটিতে জিতেছে পাকিস্তান, পরিত্যক্ত একটি ম্যাচ।

মঙ্গলবার ডারবানে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

দক্ষিণ আফ্রিকা: ৫০ ওভারে ২৬৬/২ (আমলা ১০৮*, হেনড্রিকস ৪৫, ফন ডার ডুসান ৯৩, মিলার ১৬*; আশরাফ ০/৬৪, উসমান ০/৪৯, ওয়াসিম ০/৩৭, হাফিজ ০/২২, হাসান ১/৪২, শাদাব ১/৪১)
পাকিস্তান: ৪৯.১ ওভারে ২৬৭/৫ (ইমাম ৮৬, ফখর ২৫, বাবর ৪৯, হাফিজ ৭১*, মালিক ১২, সরফরাজ ১, শাদাব ১৮*; রাবাদা ০/৫১, অলিভিয়ের ২/৭৩, প্রিটোরিয়াস ০/৪২, ফেলুকওয়ায়ো ১/৪৩, তাহির ১/৪৪, হেনড্রিকস ১/১৩)
ফল: পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী
ম্যাচসেরা: মোহাম্মদ হাফিজ

আপনার মতামত লিখুন :

টানা তিন ম্যাচে হারল বাংলাদেশের মেয়েরা

টানা তিন ম্যাচে হারল বাংলাদেশের মেয়েরা
বল দখলেও পিছিয়ে থাকল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২১ নারী দল

সেই একই গল্প! হারের বৃত্তেই বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২১ নারী হকি দল। তবে আগের দুই ম্যাচে ৬টি করে গোল হজম করলেও এবার কিছুটা উন্নতিও হয়েছে। ভারতের সাই ন্যাশনাল হকি একাডেমি নারী দল সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে তুলে নিয়েছে ৩-০ গোলের জয়।

রাজধানীর মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে শুক্রবার বাংলাদেশের মেয়েরা প্রথমার্ধ শেষ করে ০-২ গোলে পিছিয়ে থেকে। এরপর তৃতীয় কোয়ার্টারে আরেকটি গোল হজম করে। স্বস্তি এটাই এবার কম গোল হজম করেছে তারা।

ম্যাচে ভারতীয় দলটির হয়ে গোল তিনটি করেন সাক্ষী, লালওয়ান পুই ও লালরুতাফেলি মেসাবি।

৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত হবে ওমেন্স জুনিয়র এএইচএফ কাপ। এই লড়াইয়ের আগে ঘরের মাঠে প্রস্তুতি পর্বে ভারতের সাই জাতীয় হকি একাডেমির নারী দলের সঙ্গে লড়ছে মেয়েরা। ৬ ম্যাচের সিরিজ খেলছে দুই দল।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/23/1566577980346.jpg

শুক্রবার ম্যাচের আগে দুই দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে সৌজন্য স্বাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত বিবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. মোহাম্মদ জাফর উদ্দীন, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ওয়াসেক মোহাম্মদ আলী, গ্রীন ডেল্টা ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের সিনিয়র কনসালটেন্ট এ এস এ মুইজ ও ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক ইকবাল বিন আনোয়ার ডন।

সিরিজের শেষ তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২৫, ২৬ ও ২৭ আগস্ট।

তাই বলে ইংল্যান্ড ৬৭ রানে অলআউট?

তাই বলে ইংল্যান্ড ৬৭ রানে অলআউট?
জশ হেইজেলউড তুলে নেন ৫ উইকেট

হেডিংলিতে রীতিমতো দুঃস্বপ্ন সঙ্গী হয়েছে ইংল্যান্ডের। অথচ উইকেটে তেমন রহস্য ছিল কোথায়? দিনের আলোতে ঠিকঠাক খেলতে পারলে ঠিকই আরও কিছুটা সময় উইকেটে কাটিয়ে দিতে পারতেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু রোদ ঝলমলে দিনেই দেখা মিলল অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত বোলিং। কিন্তু তাই বলে মাত্র ৬৭ রানে অলআউট? হিসাবটা ঠিক মিলছে না!

অথচ এর আগে অজিদের ১৭৯ রানে অলআউট করে হাসিমুখে সাজঘরে ফিরেছিল ইংলিশরা। কিন্তু এরপর ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় সর্বনাশ। সব মিলিয়ে  অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার লিড ১১২ রান।

হেডিংলি টেস্টে বেশ দাপটই ছিল ইংল্যান্ডের। নিজেদের মাঠে বোলারদের ম্যাজিকে অজিদের চেপে ধরেছিল তারা। কিন্তু সেই হাসিমুখটা শেখ অব্দি থাকল না। কারণ শুক্রবার একশ রানের আগেই যে শেষ তাদের প্রথম ইনিংস। আরেকটু হলে অজিদের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের সর্বনিম্ম রানের লজ্জায় পড়তে যাচ্ছিল তারা।

১৯৪৮ সালে ওভালে মাত্র ৫২ রানে অলআউট হয়েছিল ইংল্যান্ড। যা কীনা টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তাদের সর্বনিম্ন ইনিংস। এবার ২৭.৫ ওভার খেলে দল তুলল ৬৭ রান। বিস্ময়কর হলেও সত্য দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন শুধু জো ডেনলি (১২)।

সেই দুঃস্বপ্নের পথেই যাত্রা হয়েছিল ইংলিশদের। জশ হেইজেলউড বোলিং তোপে তছনছ ব্যাটিং লাইন আপ। এই পেসার শিকার করেন ৫ উইকেট। গতির ঝড় তুলে কম যান নি প্যাট কামিন্সও। তিনি নেন ৩ উইকেট। দুটি উইকেট শিকার করেন জেমস প্যাটিনসন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ১৭৯/১০
ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ২৭.৫ ওভারে ৬৭/১০ (বার্নস ৯, রয় ৯, রুট ০, ডেনলি ১২, স্টোকস ৮, বেয়ারস্টো ৪, বাটলার ৫, ওকস ৫, আর্চার ৭, ব্রড ৪*, লিচ ১; কামিন্স ৩/২৩, হেইজেলউড ৫/৩০, প্যাটিনসন ২/৯)।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র