Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সিলেটকে হারিয়ে খুলনার ‘শুকনো’ হাসি!

সিলেটকে হারিয়ে খুলনার ‘শুকনো’ হাসি!
ব্যাটে-বলে দাপটে সহজ জয় পেল খুলনা
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

লড়াই থেকে আগেই ছিটকে গেছে খুলনা টাইটানস। প্লে-অফে খেলার আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন খোদ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে বাকী ম্যাচগুলোতে চাই-এমন প্রত্যয়ও ছিল খুলনা টাইটানসের অধিনায়কের। কথা রেখেছেন খুলনার ক্যাপ্টেন। তবে বড় দেরিতে পথ খুঁজে পেয়েছে দলটি। বুধবার রাতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ম্যাচে তারা হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকে।

যদিও এই জয়ে কোন লাভই হচ্ছে তাদের। রাউন্ড রবিন লিগে খেলেই বিদায় হয়ে যাচ্ছে দলটির। তাইতো ‘শুকনো’ হাসিতেই মাঠ ছাড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা।

বুধবার মিরপুরের শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার বিহীন সিলেটকে ২১ রানে হারিয়েছে খুলনা। এই হারে প্লে-অফে খেলা অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে গেল সোহেল তানভীরদের। ওয়ার্নার ইনজুরি নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাওয়ায় এখন সিলেটের নেতৃত্বে আছেন এই পাকিস্তানি।

দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নামে খুলনা। তারা ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে করে ১৭০ রান। জবাব দিতে নেমে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪৯ রানে আটকে যায় সিলেট সিক্সার্স।

ম্যাচে সিলেটকে কখনোই মনে হয়নি যে জিততে যাচ্ছে। দলের সংগ্রহে কোন রান যোগ না হতেই লিটন দাসকে বিদায় করেন শুভাশিষ রায়। জাতীয় দলে ফেরার সুখবর নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন সাব্বির রহমান। কিন্তু সেই একই গল্প। ধারাবাহিকতার বড্ড অভাব। তেমন কোন সাফল্য না পেয়েও নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে দলে ডাক পেলেন বুধবার। কিন্তু এদিনই সিলেটের এই ব্যাটসম্যান ফিরেন মাত্র ১৩ রানে।

আফিফ হোসেন কিছুটা সময় লড়ে ফিরে যান ২৪ বলে ২৯ রানে। তবে চেষ্টা করেছিলেন মোহাম্মদ নওয়াজ। ৩৪ বলে ৫৪ রান করেন তিনি। আর নিকোলাস পুরান ফিরেন ২৮ রানে। খুলনার স্পিনার তাইজুল ইসলাম ৩২ রান খরচায় নেন ৩ উইকেট।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে খুলনার দুই ওপেনার ব্রেন্ডন টেলর এবং জুনায়েদ সিদ্দিকী দুর্দান্ত লড়েছেন। ৬.৫ ওভারে দু'জন গড়েন ৭৩ রানের জুটি। ২৩ বলে ৩৩ রান করে ফিরেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। অবশ্য এরপরই আল আমিন হোসেন মাত্র ২ রান করে ধরেন সাজঘরের পথ।

নাজমুল হোসেন শান্ত ১৩ বলে ১৭ রানে আউট। এরইমধ্যে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠা টেলরকে আটকে দেন অলক কাপালি। খুলনার এই জিম্বাবুইয়ান ওপেনার ৩১ বলে ৪৮ রান করে ফিরে যান ড্রেসিংরুমে। হতাশ করেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সেই কাপালির ঘূর্ণিতে স্ট্যাম্পিং হয়ে ফিরেন। ব্যর্থ আরিফুল হকও।

অবশ্য এরপরই দলের দক্ষিণ আফ্রিকান রিক্রুট ডেভিড ভিসার দারুণ লড়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকান এ অলরাউন্ডার ২৫ বলে করেন ৩৮ রান। ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রানে থামে খুলনা। সিলেটের তাসকিন এবং মোহাম্মদ নওয়াজ শিকার করেছেন দুটি করে উইকেট। অলক কাপালি ৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট। প্রথমবারের মতো টি-টুয়েন্টিতে তিনি পেলেন চার উইকেট। বুঝিয়ে দিলেন এখনো ফুরিয়ে যান নি!

চলতি বিপিএলে ৯ ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় জয় পেল খুলনা। আর সিলেটেরও সমান পয়েন্ট। তবে তারা খেলেছে আটটি ম্যাচ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

খুলনা টাইটানস: ২০ ওভারে ১৭০/৯ (টেলর ৪৮, জুনায়েদ ৩৩, আল আমিন জুনিয়র ২, শান্ত ১৭, মাহমুদউল্লাহ ৩, আরিফুল ০, ভিসা ৩৮, ইয়াসির ৮, তাইজুল ৯*, জুনাইদ ০; তাসকিন ২/৩৫, নওয়াজ ২/২৬, কাপালি ৪/২২)
সিলেট সিক্সার্স: ২০ ওভারে ১৪৯/৭ (লিটন ০, সাব্বির ১৩, আফিফ ২৯, কাপালী ১১, নওয়াজ ৫৪, পুরান ২৮, তানভির ৫, জাকের ২*, নাসির ০*; শুভাশিস ১/৪০, জুনাইদ ১/২৮, ইয়াসির ১/১৪, তাইজুল ৩/৩২, ভিসা ১/২৪)
ফল: খুলনা টাইটানস ২১ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা: ডেভিড ভিসা

আপনার মতামত লিখুন :

২৮ বছর পর আফ্রিকান চ্যাম্পিয়ন আলজেরিয়া

২৮ বছর পর আফ্রিকান চ্যাম্পিয়ন আলজেরিয়া
নেশন্স কাপ জয়ী চ্যাম্পিয়ন আলজেরিয়া

দারুণ উত্তেজনা ছড়াল ফাইনাল ম্যাচে। সমান তালেই লড়ল দুই দল। কিন্তু ফুটবল তো গোলের খেলা। এখানেই সেনেগালের চেয়ে এগিয়ে থাকল আলজেরিয়া। তাদের হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো দলটি জিতল আফ্রিকান নেশন্স কাপের ট্রফি।

অথচ পুরো খেলায় বল দখলে এগিয়ে ছিল সেনেগালই। খেলার ৬২ ভাগ সময় বল ছিল তাদের দখলে। কিন্তু নিশানা খুঁজে নিতে পারেনি দলটি।

শুক্রবার মিশরের কায়রোতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ১-০ গোলের জয় তুলে নিয়েছে আলজেরিয়া। রিয়াদ মাহারেজরাই হাসিমুখে মাঠ ছাড়ে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563597652096.JPG

এই জয়ের পথ ধরে দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান হলো দলটির। ১৯৯০ সালে প্রথমবারের মতো আফ্রিকান চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আলজেরিয়া। ২৮ বছর পর ফের দেখা মিলল শিরোপার।

লড়াইয়ে মাত্র দ্বিতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় আলজেরিয়ানরা। ফরোয়ার্ড বাগদাদ বুনেজার শট আশ্রয় নেয় সেনেগালের জালে। এরপর লড়াইয়ে ফেরার অনেক চেষ্টা করেও পারেনি সেনেগাল। শেষ অব্দি হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ২০০২ সালের পর ফাইনালে উঠে আসা দলটির।

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক
মাশরাফির ইনজুরিতে নেতৃত্বে তামিম

শনিবার দুপুরে শ্রীলঙ্কার পথে দেশ ছাড়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। তিন ওয়ানডের মিশন। কিন্তু তার আগে জাতীয় দলে বড় রকমের পরিবর্তন! ইনজুরিতে সফর থেকে ছিটকে গেলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নতুন করে চোটে পড়ে সফর শেষ অধিনায়কের। বাধ্য হয়েই তার বিকল্প খুঁজে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

তিন ম্যাচ ওয়ানডের এই সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেবেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল। শুক্রবার রাতে তাকে নেতৃত্ব দিয়েছে বিসিবি।

আর মাশরাফির ইনজুরিতে দলে জায়গা পেলেন অলরাউন্ডার ফরহাদ রেজা। লঙ্কান সফরে দলে নেই মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। তার বদলে নির্বাচক সুযোগ দিলেন পেসার তাসকিন আহমেদকে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে গিয়ে চোট পান মাশরাফি। চোট গুরুতর। এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কায় যাওয়া হচ্ছে না। বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমে জানান, ‘মাশরাফি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছে। চোট থেকে সেরে উঠতে কমপক্ষে তিন সপ্তাহ লাগবে।’

আগামী ২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ।

ওয়ানডের বাংলাদেশ দল-
তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাসকিন আহমেদ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, ফরহাদ রেজা, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, এনামুল হক।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র