Alexa

বড় জয়ে সিলেটের স্বপ্ন সবুজ

বড় জয়ে সিলেটের স্বপ্ন সবুজ

জয়ের ছন্দে ফিরল সিলেট

দুটি বদলই যেন বদলে দিলো সিলেট সিক্সার্সকে। জেসন রয় একাদশে এলেন। আর অধিনায়ক হিসেবে নামলেন অলক কাপালি। তবে অধিনায়ক হিসেবে অলক কাপালির ভুমিকার চেয়ে অধিনায়কত্ব হারানো সোহেল তানভীরের কার্যকারিতা এই ম্যাচে বেশি চোখে পড়লো। অধিনায়কত্বের ভার কাঁধ থেকে নামতেই যেন জ্বলে উঠলেন সোহেল তানভীর। ব্যাটে-বলে চমৎকার পারফরমেন্স দেখিয়ে দলকে এনে দিলেন ৭৬ রানের বিশাল জয়। এই জয়েই এখন সিলেট সিক্সার্সের প্লে’অফে খেলার স্বপ্নও আরেকবার সজীব!

টস জয় ছাড়া রাজশাহী কিংসের জন্য এই ম্যাচে আর ইতিবাচক কোনকিছুই যে ঘটলো না। সিলেট সিক্সার্সের ১৮০ রানের স্কোরকে অনেক বড় স্কোর মনে হতে পারে। তবে চিটাগংয়ের উইকেটে এই রান তাড়া করা যেত ঠিকই। কিন্তু রাজশাহী কিংসের শুরুর, মাঝের বা শেষের ব্যাটিংয়ের কোনকিছুই যে পরিকল্পনা মাফিক হলো না। ১০৪ রানে গুটিয়ে গেল রাজশাহীর ইনিংস। ওয়ানডাউনে ফজলে মাহমুদের ব্যাট থেকে আসা ৫০ রানের ইনিংস বাদ দিলে রাজশাহীর বাকি সব ব্যাটস্যান এই ম্যাচে একেবারে ডাঁহা ফেল! দলের আট ব্যাটসম্যান দ্ইু অঙ্কের ঘরেই যেতে পারলেন না। এত সুন্দর ব্যাটিং উইকেট! অথচ ফজলে মাহমুদ রাব্বী বাদে বাকি সবাই যেন প্রতিযোগিতায় নামলেন কে কার চেয়ে বেশি বাজে ব্যাটিং করতে পারেন!

পেসার সোহেল তানভীর ও তাসকিন আহমেদের বোলিং জুটিতেই শেষ রাজশাহীর ইনিংসের অর্ধেক ব্যাটসম্যান। ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রানে সোহেল তানভীর ৩ উইকেট পেলেন। তাসকিন বিপিএলে তার চলতি ফর্মটা দেখিয়েই চলেছেন। ২০ রানে ২ উইকেট শিকার করেন তিনি। ষষ্ঠ বিপিএলে সর্বোচ্চ ১৮ উইকেটের মালিক এখন তাসকিন। সিলেটের এই দুই পেসারের সঙ্গে বাঁহাতি মোহাম্মদ নওয়াজের স্পিন সামাল দিতেও পারেনি রাজশাহী। ৪ ওভারে ২২ রানে নওয়াজ তুলে নেন ৩ উইকেট।

ব্যাটিংয়ে নামা সিলেটের বড় রানের স্বপ্নের ভিত গড়ে দেন ইংলিশ ব্যাটসম্যান জেসন রয়। লিটন দাস শুরুটা ভাল করেছিলেন। কিন্তু ঝড়ো ইনিংসটা বড় করতে পারেননি। সাব্বির রহমান যথারীতি আরেক ম্যাচে ব্যর্থ। জেসন রয় ২ ছক্কা ও ৪ বাউন্ডারিতে ৪২ রান করেন। আফিফ হোসেন ধ্রবের ব্যাট থেকে আসে ২৯ বলে ২৮ রান। শেষের দিকে ব্যাট হাতে মাত্র ১০ বলে সোহেল তানভীর অপরাজিত থাকেন ২৩ রানে। বোলিংয়েও ম্যাচটা নিজেরই বানিয়ে নিলেন সোহেল তানভীর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: সিলেট সিক্সার্স: ১৮০/৬ (২০ ওভারে, লিটন ২৪, জেসন ৪২, আফিফ ২৮, পুরান ১৯, সোহেল তানভীর ২৩*, মুস্তাফিজুর ২/৪৩, কামরুল ১/৩৩, প্রসন্ন ১/১৭)। রাজশাহী কিংস: ১০৪/১০ (১৮.২ ওভারে, ফজলে রাব্বী ৫০, জাকির ১৬, , সোহেল তানভীর ৩/১৭, তাসকিন ২/২০, নওয়াজ ৩/২২)। ফল: সিলেট সিক্সার্স ৭৬ রানে জয়ী। ম্যাচ সেরা: সোহেল তানভীর।

আপনার মতামত লিখুন :