Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

বিমার ছুঁড়ে নিষিদ্ধ রবিউল হক

বিমার ছুঁড়ে নিষিদ্ধ রবিউল হক
শরীর ধেঁয়ে আসা বল দিয়ে নিষিদ্ধ রবিউল
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
চট্টগ্রাম থেকে


  • Font increase
  • Font Decrease

ম্যাচে নিজের ওভারের পুরো বোলিং কোটা শেষ করতে পারেননি চিটাগং ভাইকিংসের পেসার রবিউল হক। ৩.৩ ওভার বল করেই ম্যাচে নিজের বাকি তিন বল করার অধিকার হারান তিনি। ব্যাটসম্যানকে লক্ষ্য করে দুটি বিমার ছোঁড়ার অপরাধে আম্পায়ার তাকে বাকি সময়টুকু বোলিংয়ে নিষিদ্ধ করেন। এবারের বিপিএলে এটি প্রথম ঘটনা।

১৮ নম্বর ওভারে রাজশাহী কিংসের ব্যাটসম্যান জংকারকে ফুলটস বল করেন। তবে শরীর ধেঁয়ে আসা সেই বল সামাল দিতে না পেরে প্রায় মাটিতে পড়েই গিয়েছিলেন জংকার। আম্পায়ার নো বলের ঈশারা দেন। সেই সঙ্গে রবিউলকে ডেকে সাবধান করে দেন, ম্যাচে দ্বিতীয়দফা এমন বল করলে তাকে বোলিং থেকে নিষিদ্ধ করা হবে। রাজশাহীর ইনিংসের শেষ ওভার করতে এসে সেই একই ভুল করেন রবিউল হক। সেই ওভারে তার প্রথম দুই বলে জংকার দুটো বিশাল ছক্কা হাঁকান। তৃতীয় বলে দুই রান নেন। চতুর্থ বলটা এলোমেলো ভঙ্গিতে ওয়াইড দিলেন রবিউল। বাড়তি বলটা করতে এসে সোজা জংকারের মাথা লক্ষ্য করে বল করলেন। তবে সেই বলে ঠিকই ব্যাট লাগিয়ে ফাইন লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকালেন জংকার। কিন্তু স্কয়ার লেগ আম্পায়ার নো বলের ঈশারা দিলেন। রবিউলের বলটা বিমার ছিলো। আম্পায়ার এসে রবিউলকে জানিয়ে দিলেন-‘তুমি আর বল করতে পারবে না।’
সেই ওভারের বাকি তিন বল করে ক্যামেরুন ডেলপোর্ট। ম্যাচে বেচারা রবিউল হকের ৩.৩ ওভারে খরচ হলো ৪৭ রান! ইকোনোমি রেট ১৩.৪২!

চট্টগ্রামের মাটিতে সময়টা মোটেও ভাল যাচ্ছে না ভাইকিংসের এই পেসারের। আগের ম্যাচ রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে বেদড়ক পিটুনি খান। খরচা করেন ৪ ওভারে ৫৪ রান। বিপিএলের ইতিহাসে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান খরচের রেকর্ড এটি। যে রেকর্ড এতদিন ছিলো আল আমিনের। যে রেকর্ড কেউ চায় না, এমন রেকর্ডে ভাগ বসালেন রবিউল হক।

আর চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে দুটো বিমার মারার দায়ে ম্যাচে বোলিংয়েই নিষিদ্ধ। চিটাগং ভাইকিংসের পরের ম্যাচের একাদশে রবিউল হক সম্ভবত জায়গাও হারাচ্ছেন!

আপনার মতামত লিখুন :

সন্ধ্যায় আবাহনী-মোহামেডান মহারণ

সন্ধ্যায় আবাহনী-মোহামেডান মহারণ
বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে মুখোমুখি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী-মোহামেডান

সবই এখন সোনালী অতীত! একটা সময় ছিল যখন আবাহনী-মোহামেডান ফুটবল লড়াইয়ে দেশ হয়ে যেতো দুই ভাগ। উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়তো টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া! গ্যালারি উপচে উঠতো দর্শকে। কিন্তু এখন আর তেমন উন্মাদনা নেই। এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই নিছকই আরেকটা ম্যাচ। এই যেমন আজ সন্ধ্যায় ফুটবল ম্যাচে মাঠে নামছে আবাহনী-মোহামেডান, অথচ নেই কোন রোমাঞ্চ!

অবশ্য পথ হারিয়ে মোহামেডান এখন শুধুই ঐতিহ্যের অংশ হয়ে আছে। এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে সাদা-কালো শিবির রয়েছে রেলিগেশনের লড়াইয়ে। তবে আবাহনী শিরোপা জয়ের মিশন থেকে এখনো দূরে সরে যায়নি!

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় শুরু শুরু হবে লড়াই। এই ম্যাচ দিয়েই অবসর নেবেন মোহামেডান ফুটবলার এনামুল হক শরীফ। ১৯ বছরের ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন এই মিডফিল্ডার। যদিও তার দল আছে রেলিগেশনের শঙ্কায়।

১৯ ম্যাচ খেলে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে মোহামেডান। আবার ২০ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে আবাহনী। এবারও ট্রফিতে চোখ থাকছে ধানমন্ডির এই ক্লাবটির। এজন্য মোহামেডানকে হারাতে প্রস্তুত তারা। পরিসংখ্যান জানাচ্ছে-সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচেই মোহামেডানকে হারিয়েছে আবাহনী!

ফুটবলপ্রেমীরা ঘরে বসেই দেখতে পারবেন এই লড়াই। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ঢাকা আবাহনী ও ঢাকা মোহামেডান ম্যাচটি সরাসরি টেলিভিশনের পর্দায় দেখা যাবে। খেলা শুরু সন্ধ্যা ৭টা থেকে।

অন্যদিকে ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে ভারতের মুখোমুখি সিরিয়া। সঙ্গে থাকছে ইউএস ওপেন ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের উত্তেজনাকর লড়াই।

চলুন চোখ দেখে নেই মঙ্গলবার টেলিভিশনের পর্দায় কখন কী থাকছে-

ফুটবল
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
ঢাকা মোহামেডান-ঢাকা আবাহনী
সরাসরি সন্ধ্যা ৭টা
বাংলা টিভি

ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ
ভারত-সিরিয়া
সরাসরি রাত সাড়ে ৮টা
স্টার স্পোর্টস টু এশিয়া ও স্টার স্পোর্টস টু এশিয়া এইচডি

ব্যাডমিন্টন
ইউএস ওপেন
সরাসরি রাত ২টা
স্টার স্পোর্টস টু

‘ভাগ্য আর আল্লাহ’ ছিলেন মরগান-আদিলদের পাশে

‘ভাগ্য আর আল্লাহ’  ছিলেন মরগান-আদিলদের পাশে
ভিন্ন জাতিসত্তা আর সংস্কৃতি কোন বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি আদিল-মরগানদের সামনে

অবিশ্বাস্য এক ফাইনাল শেষে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা ঘরে তুলেছে ইংল্যান্ড। রোববার লর্ডসের ফাইনালে স্বাগতিকদের শিরোপা জয়ে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, বার্বাডোস ও আয়ারল্যান্ড বংশোদ্ভূত ক্রিকেটাররা।

ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মরগান নিজেই একজন আইরিশ। তাই ফাইনাল শেষে বিশ্ব জয়ে ভিন দেশীদের অবদান স্বীকার করে মরগান জানান, নখ কামড়ানো ও হাইভোল্টেজ ফাইনাল ম্যাচে আইরিশ ভাগ্য আর আল্লাহ উভয় তাদের সঙ্গে ছিলেন।

ফাইনালে ইংল্যান্ড চরম সৌভাগ্যের ছোঁয়া পেয়েছে কী না? এমন প্রশ্নের উত্তরে ডাবলিনে জন্মানো মরগান বলেন, “আমি আদিল রশিদের সঙ্গে কথা বলেছি। সে বলেছে, ‘আল্লাহ অবশ্যই আমাদের সঙ্গে ছিলেন।’ বিশ্ব জয়ের নেপথ্যে কাজ করেছে ভিন্ন জাতিসত্তা আর সংস্কৃতি। এটাই মূলত দলের ক্রিকেটারদের একই সূরে বেঁধেছে।”

মরগানের প্রত্যাশা, ক্রিকেটের জন্মস্থানে বিশ্বকাপের গৌরব ছিনিয়ে নেওয়ার পথে তার দলের ‘অবিশ্বাস্য অভিযাত্রা’ নতুন প্রজন্মকে প্রেরণা যোগাবে।

শুধু লেগ স্পিনার আদিল রশিদই নন। ইংল্যান্ড দলে রয়েছেন আরো একজন মুসলিম ক্রিকেটার। তিনি অলরাউন্ডার মঈন আলি। দুজনই পাকিস্তান বংশোদ্ভূত। তাই তো বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে ইংল্যান্ডের শ্যাম্পেন ছিটানোর উৎসব থেকে নিজেদের গুটিয়ে নেন দুজনে। জনি বেয়ারস্টো শ্যাম্পেইন ছিটানো শুরু করতেই রশিদ-মঈন দুজনেই দূরে সরে দাঁড়ান।

ইংলিশ দলে তাদের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডের আছেন বেন স্টোকস, বার্বাডোসের পেসার জোফরা আর্চার আর ওপেনার জেসন রয় এসেছেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র