Alexa

রাজশাহীকে হারিয়ে শীর্ষে উঠেই প্লে’অফে মাশরাফির রংপুর

রাজশাহীকে হারিয়ে শীর্ষে উঠেই প্লে’অফে মাশরাফির রংপুর

অনায়াসে প্লে-অফে রংপুর রাইডার্স

এতো কম জমা নিয়ে রংপুর রাইডার্সকে চ্যালেঞ্জ জানানো যায় না। আর ব্যাটসম্যান যখন এবি ডি ভিলিয়ার্স ও রাইলি রুশো তখন তো সব টার্গেটই তাদের কাছে নস্যি! রাজশাহীও পারেনি রংপুর রাইডার্সের জয়রথ থামাতে। রাজশাহীর ১৪১ রানের স্কোরকে রুশো ও ভিলিয়ার্সের ব্যাটে চড়ে যেভাবে টপকে গেলে রংপুর, তাতে মনে হচ্ছিলো এ যেন বিকেলে পার্কে হেঁটে আসার আরামদায়ক কিছু!

৬ উইকেটের এই জয়ে রংপুর রাইডার্স চলতি বিপিএলের প্লে’অফের টিকিট পেয়ে গেলো। নবম ওভারে ৫৪ রানে রংপুর দ্বিতীয় উইকেট হারানোর পর রাজশাহীর মনে কিছুটা আশা’র সঞ্চার হচ্ছিলো এই ম্যাচকে ঘিরে। কিন্তু রুশো ও ডি ভিলিয়ার্সের ৭.১ ওভারে ৭১ রানের জুটিতে প্রায় অনায়াস ভঙ্গিতে জয় তুলে নিলো রংপুর।

৪৩ বলে ৫৫ রান করে রুশো যখন আউট হলেন তখন ম্যাচ জিততে মাত্র ১৭ রান দুরে রংপুর। ফর্মে থাকা রুশো সব মিলিয়ে করলেন ৫১৪ রান। বিপিএলের এক আসরে যা ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। এর আগের রেকর্ডটি ছিল আহমেদ শেহজাদের, ৪৮৬ রান। 

পরের ওভারেই ডি ভিলিয়ার্সও আউট আরাফাত সানির বলে। ৩ ছক্কা ও ১ বাউন্ডারিতে ২৭ বলে ৩৭ রান করেন ভিলিয়ার্স। জয়ের জন্য বাকি আনুষ্ঠানিকতা সারেন মোহাম্মদ মিঠুন ও নাহিদুল ইসলাম।

স্কোরবোর্ডে ১৪১ রান জমা হওয়ার রাজশাহীর ব্যাটসম্যান লরি ইভান্স বলছিলেন-‘আমরা বোধকরি ৬০ রানের মতো কম করেছি! দেখা যাক ক্রিকেট ম্যাচে তো বিস্ময়কর অনেককিছু ঘটে!’

এই রান নিয়ে গেইল, হেলস, রুশো ও ডি ভিলিয়ার্সের মতো শক্তপোক্ত ব্যাটিং লাইনআপকে আটকে ম্যাচ জিততে হলে তো বিস্ময়কর কিছুই ঘটাতেই হতে রাজশাহীকে। কিন্তু ভিলিয়ার্স ও রুশো যেদিন খেলেন সেদিন সব বিস্ময় যে শুধু তাদের ব্যাটেই উপস্থিত হয়!

টসে জিতে রাজশাহীর কিংসের ব্যাটিং মোটেও বলার মতো কিছু হলো না। সৌম্য সরকার আরেকবার ব্যর্থ। মমিনুল হক ক্রমশ যেন ছায়ায় পরিণত। লরি ইভান্সের ব্যাট থেকে এলো ৩১ বলে ৩৫ রানের ইনিংস। শেষের দিকে কায়েস আহমেদ ও ফজলে মাহমুদের সপ্তম উইকেট জুটিতে যোগ হওয়া ৪০ রানের কল্যানে গড়পড়তা একটা সঞ্চয় নিয়ে রাজশাহীর ইনিংস শেষ।

ব্যাটিংয়ে তিন বিদেশি আর বোলিংয়ে দেশি ফরহাদ রেজা এখন রংপুরের সেরা পারফর্মার। ৪ ওভারে ৩০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ফরহাদ রেজা এই ম্যাচেও দলের সেরা বোলার। টুর্নামেন্টে ১৭ উইকেট এই ডানহাতি পেসার এখন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের তালিকায় সাকিবের সঙ্গে দ্বিতীয়স্থানে।

পয়েন্টে কুমিল্লার সমান হলেও রানরেটের জোরে রংপুর এখন শীর্ষে। রংপুরের সাফল্যের এই দিনেও ব্যাট হাতে ক্রিস গেইল সেই ব্যর্থ কাতারেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: রাজশাহী কিংস: ১৪১/৮ (২০ ওভারে, ইভান্স ৩৫, ফজলে মাহমুদ ১৮, কায়েস ২২, ফরহাদ রেজা ৩/৩০, নাজমুল ইসলাম ২/৩৯, শহিদুল ২/২৮)। রংপুর রাইডার্স: ১৪৫/৪ (১৮.৪ ওভারে, গেইল ১০, হেলস ১৬, রুশো ৫৫, ডি ভিলিয়ার্স ৩৭, মিঠুন ৪, নাহিদুল ১১*, মিরাজ ১/২৪)। ফল: রংপুর রাইডার্স ৬ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা: ফরহাদ রেজা

আপনার মতামত লিখুন :