Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

হ্যারি পটারের শহরে সাকিব-শিশির

হ্যারি পটারের শহরে সাকিব-শিশির
সাকিব-শিশির আছেন ছুটির আমেজে- ছবি: ফেসবুক
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

একেই বলে শাপেবর! ইনজুরি নিয়ে দল থেকে সরে গেলেও সময়টা ঠিকই ভাল কাটছে সাকিব আল হাসানের। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে এখন ছুটির আমেজে আছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই তারকা ক্রিকেটার।

একটানা ক্রিকেটেই ব্যস্ত ছিলেন তিনি। দম ফেলার সুযোগ ছিল না সামনের কিছুদিনেও। কিন্তু হঠাৎ করেই ইনজুরিতে সব পাল্টে গেল। নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে সিরিজে খেলা হচ্ছে না তার। এমন কী পুরো সিরিজটাই শেষ হয়ে যেতে পারে সাকিবের! অথচ দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন এই অলরাউন্ডার। এবারের বিপিএলের সেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন তিনি!

তবে বিপিএলের ফাইনালে পাওয়া ইনজুরিতে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ মিলে গেল! ছুটি পেয়েই স্ত্রী-সন্তান নিয়ে মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া চলে গেলেন সাকিব। লস অ্যাঞ্জেলেসে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এখন এই তারকা ক্রিকেটার। সঙ্গে অবশ্যই আছেন স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির ও মেয়ে আলাইনা হাসান অউব্রি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই খবরটা দিলেন খোদ সাকিবের স্ত্রী শিশির।

সোমবার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দুটি ছবি পোস্ট করলেন সাকিব-পত্নী। কাল্পনিক কিশোর জাদুকর হ্যারি পটারের শহর নামে পরিচিত লস অ্যাঞ্জেলেসের হগওয়ার্টসে আছেন তারা। 

আপনার মতামত লিখুন :

স্ত্রী-সন্তান নিয়ে প্যারিসে ছুটির আনন্দে সাকিব

স্ত্রী-সন্তান নিয়ে প্যারিসে ছুটির আনন্দে সাকিব
আইফেল টাওয়ারের পাশে সপরিবারে সাকিব আল হাসান- ছবি: ফেসবুক

স্বপ্নের মতোই বিশ্বকাপটা কেটেছে সাকিব আল হাসানের। ব্যাট হাতে যা করতে চেয়েছেন তারও চেয়ে বেশি যেন পেয়েছেন তিনি। ৮ ইনিংসে দুটি সেঞ্চুরি। তিনটিতে ম্যাচসেরা। ৮৬.৫৭ গড়ে তুলেন ৬০৬ রান। আর বল হাতে ১১ উইকেট। সেই সাফল্যের পর এখন ছুটির মেজাজেই আছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

বিশ্বকাপ শেষে বাংলাদেশ দল গত ৭ জুলাই ফিরে এসেছে দেশে। কিন্তু সতীর্থদের সঙ্গে ফেরেননি সাকিব। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছ থেকে ছুটি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/19/1563546222754.jpg

কয়েকদিন ইংল্যান্ডে কাটিয়ে স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির আর কন্যা আলাইনা হাসান অউব্রিকে নিয়ে চলে যান সুইজারল্যান্ডে। সেখানে নিজেদের মতো করেই কাটালেন সময়। তারপরই বেড়াতে যান ইউরোপের আরেক দেশ ইতালিতে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/19/1563546238220.jpg

ছুটির এ পর্যায়ে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে রয়েছেন সাকিব। সেখানেই স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে কাটছে তার আনন্দের সময়।

শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সেই ছুটির আনন্দের একটি ছবি পোস্ট করেন সাকিব। ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সেই ছবিতে দেখা যায়- স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে প্যারিসে ভোজনে ব্যস্ত নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার! পেছনে দেখা যাচ্ছে প্যারিসের বিখ্যাত আইফেল টাওয়ার!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/19/1563546254187.jpg

সাকিব সেই ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন- ‘ফ্যামিলি ভ্যাকেশন ❤️❤️❤️।’

নিউজিল্যান্ডের বর্ষসেরা হচ্ছেন বেন স্টোকস!

নিউজিল্যান্ডের বর্ষসেরা হচ্ছেন বেন স্টোকস!
এবার জন্মভূমি থেকেও পুরস্কারের হাতছানি স্টোকসের

ইংল্যান্ডের প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপ ট্রফি জয়ের মিশনে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন বেন স্টোকস। গত রোববারের অকল্পনীয় ও অভাবনীয় ফাইনালে ম্যাচসেরার পুরস্কারও জেতেন ২৮ বছরের এ মেগাস্টার। অসাধারণ সেই নৈপুণ্যের জন্য আরো পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন এ তারকা অলরাউন্ডার। খবর রটেছে, খুব শিগগিরই তিনি পাচ্ছেন নাইটহুড পদক। মানে বেন স্টোকস থেকে বনে যাচ্ছেন স্যার বেন স্টোকস। এতো গেল তার দেশের খবর।

দেশের বাইরে থেকেও একটি পুরস্কার পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বেন স্টোকসের জন্য। ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ে অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্সের জন্য বর্ষসেরা পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছেন এ তারকা ইংলিশ ক্রিকেটার। তা কোন দেশ থেকে পেলেন তিনি মনোনয়ন? উত্তরটা জানলে আপনিও অবাক হবেন! ভাবছেন কেন?

লর্ডসের শ্বাসরুদ্ধকর মহানাটকীয় ফাইনালে যাদের হৃদয় আর স্বপ্ন ভেঙে বিশ্ব শিরোপা জিতেছে ইংল্যান্ড। সেই নিউজিল্যান্ড থেকে পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছেন বেন স্টোকস। মানে বর্ষসেরা নিউজিল্যান্ডার অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনিত হয়েছেন তিনি। সন্দেহ নেই খবরটা চমকে দেবে খোদ স্টোকসকেই।

ইংল্যান্ডের হয়ে ক্রিকেট খেললেও স্টোকসের জন্মভূমি কিন্তু নিউজিল্যান্ডই। ১২ বছর বয়সে ক্রাইস্টচার্চ থেকে ইংল্যান্ডে পাড়ি জমান তিনি। যে কারণেই পুরস্কারের জন্য মনোনিত হয়েছেন স্টোকস।

তার মানে, অনেক কিউই জনগণ এখনো তাকে নিজেদের ছেলে বলেই মনে করেন। অ্যাওয়ার্ডের প্রধান বিচারক ক্যামেরন বেনেট জানালেন তেমনটাই, ‘স্টোকস হয়তো ব্ল্যাক ক্যাপস শিবিরের হয়ে খেলছেন না। কিন্তু তার জন্ম ক্রাইস্টচার্চে। তার মা-বাবা এখনো এখানেই বসবাস করেন। ব্যাপারটা পরিষ্কার মাওরি সম্প্রদায়ের অনেক কিউইরা এখনো তাকে নিজেদের সন্তান বলেই মনে করেন।’

বেন স্টোকসের সঙ্গে এ পুরস্কারের জন্য মনোনিত হয়েছেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও। এটা প্রমাণ করে, বিশ্বকাপের সেরা এ খেলোয়াড়কে হারিয়ে পুরস্কার জেতাটা বেশ কঠিনই হবে স্টোকসের জন্য।

জাতির কল্যাণে অবদান রাখা ‘অনুপ্রেরণাদায়ক কিউইদের’ মনোনয়ন দেন নিউজিল্যান্ডের জনগণ। যাদের জন্য দেশ গর্ব করতে পারে।

২০১০ সালে অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক জেফ্রে জন হোপের হাত ধরে শুরু এ অ্যাওয়ার্ড দেওয়া। যা ১১ বছরে পা দিল এবার। এর আগে পুরস্কারটি জেতেন সাবেক নিউজিল্যান্ড রাগবি ইউনিয়ন অধিনায়ক রিচি ম্যাককো, সিনেমা নির্মাতা তাইকা ওয়াইতিতি ও মানসিক স্বাস্থ্য ক্যাম্পেইনার মাইক কিং।

মনোনয়ন পর্ব শেষ হবে সেপ্টেম্বরে। ডিসেম্বরে বিচারক প্যানেল ১০ জনের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরি করবেন। অকল্যান্ডে জমকালো অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীর হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে ফেব্রুয়ারিতে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র