Alexa

ব্যাটে-বলে ব্যর্থ বাংলাদেশ, সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

ব্যাটে-বলে ব্যর্থ বাংলাদেশ, সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

আবারও গাপটিলের ব্যাটে শতরান, অনায়াসে জিতল নিউজিল্যান্ড

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম

চ্যালেঞ্জ, লড়াই-এমন কোন শব্দই এই ম্যাচের সঙ্গে যায় না!

যা যায়, তার নাম-একতরফা ম্যাচ! একপেশে ভঙ্গিতেই পুরোমাত্রায় দাপট দেখিয়ে ক্রাইষ্টচার্চে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ জিতলো নিউজিল্যান্ড। এবং যথারীতি বেশ বড় ব্যবধানে, ৮ উইকেটে। সেই সঙ্গে একম্যাচ হাতে রেখেই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের ট্রফি জিতে নিলো নিউজিল্যান্ড।

বাংলাদেশের ২২৬ রানের যৎসামান্য যোগাড় নিউজিল্যান্ড আরেকবার প্রায় হেসেখেলে টপকে গেলো মাত্র দুই উইকেট হারিযে। ওপেনার মার্টিন গাপটিল টানা দ্বিতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি পেলেন। ব্যাটিংয়ে অদক্ষতা এবং পরিকল্পনাহীন বোলিং-বড় দাগে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের সার্বিক সমস্যা এটাই!

ব্যাটিং সঙ্কটের সেই সমস্যার বাইরে দলের একজনই আপাতত নিজেই একটু আলাদা করে চেনালেন; মোহাম্মদ মিঠুন। দুই ম্যাচে দুটি হাফসেঞ্চুরি আছে তার। দলের প্রয়োজনে কিভাবে খেলতে হয়-সেটা তিনিই সবচেয়ে ভাল জানালেন জাতীয় দলের সঙ্গে প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ড সফরে এসে।

আর বাকি অভিজ্ঞরা উইকেটে এলেন। শট খেললেন। এবং আউট হয়ে হাতে ধরা ব্যাটকে দোষ দিতে দিতে ডাগআউটে ফিরে গেলেন! ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের ব্যাটিং এবং বোলিংয়ের সেই একই গল্প; ব্যর্থতার চালচিত্র!

আর দুই ম্যাচেই নিউজিল্যান্ডের প্রথমে বোলিং এবং পরে ব্যাটিংয়ের সেই একই কাহিনী; সাফল্যের ভান্ডার!

সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় দুই ম্যাচের স্কোরকার্ড। টস। বাংলাদেশের ব্যাটিং। টপঅর্ডার ভেঙ্গে পড়া। সেটাকে আবার জোড়তালি লাগানো। ইনিংস উদ্ধারে নামা সেই একই ব্যাটসম্যান। সবকিছুতেই কি দারুণ মিল! নিউজিল্যান্ডেরও প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচে একই ব্যবধানে জয়। প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও মোহাম্মদ মিঠুনের হাফসেঞ্চুরির ইনিংস। মার্টিন গাপটিলের সেঞ্চুরি! ম্যাচসেরাও সেই তিনিই!

ভাবছেন এখানেই শেষ? তা নয়। আশ্চর্যের মিল আরো আছে। প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও বোলিংয়ে সেই ধারহীন বাংলাদেশ। কন্ডিশন, উইকেট সবকিছুই পেস বোলারদের জন্য  আদর্শ ক্ষেত্র! কিন্তু ৩৬.১ ওভার পরিশ্রমী বোলিং করে বাংলাদেশের বোলাররা নিউজিল্যান্ডের ২ টির বেশি উইকেট নিতে পারলো না যে!

একটু জানিয়ে দেই নেপিয়ারে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতেও বাংলাদেশের বোলাররা নিউঝিল্যান্ডের মাত্র দুই উইকেট শিকার করতে পেরেছিলো। এই দুই ম্যাচে স্বাগতিকদের ব্যাট-বলের দাপট জানাচ্ছে মাঠের ক্রিকেটে বাংলাদেশ মোটেও পাত্তা পায়নি। ব্যাটিংয়ের কোন সময় মনে হয়নি বাংলাদেশ বড়কিছু গড়ছে। আর বোলিংয়ে কখনোই মনে হলো না এই ম্যাচে বাংলাদেশ বড় হার ছাড়া অন্য কিছু করতে পারে!

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচের পুরো চালচিত্র জানাচ্ছে-নিউজিল্যান্ড খেলছে আর বাংলাদেশ আছে একটাই অপেক্ষায়; হারের! এমনই অসহায়ত্ব নিয়ে ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ।

২২৬ রান তুলতেই বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের ‘দম’ শেষ। আর সেই রান তুলে ম্যাচ জিতে নিতে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং লাইন আপের ৮ জন ব্যাটসম্যানকে মাঠেই নামতে হলো না!

সিরিজ হারের পর বাংলাদেশ এখন হিসেব মেলাতে বসে প্রশ্নটা তুলতেই পারে- ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজের প্রথমবারের সফরে মোহাম্মদ মিঠুন যদি পারেন, তাহলে এতবার নিউজিল্যান্ড সফরে আসা বাকিরা কেন পারেন না! কন্ডিশনের অজুহাত দেয়ার চেয়ে আসলে দক্ষতা এবং প্রায়োগিক ক্ষমতার বিষয়টি নিয়েই অধিকতর আলোচনা করা উচিত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ: ২২৬/১০ (৪৯.৪ ওভারে, তামিম ৫, লিটন ১, সৌম্য ২২, মুশফিক ২৪, মিঠুন ৫৭, মাহমুদউল্লাহ ৭, সাব্বির ৪৩, মেহেদি ১৬, সাইফুদ্দিন ১০, মাশরাফি ১৩, মুস্তাফিজ ৫, ফার্গুসন ৩/৪৩, হেনরি ১/৩০)।  
নিউজিল্যান্ড: ২২৯/২ (৩৬.১ ওভারে, গাপটিল ১১৮, উইলিয়ামসন ৬৫*, টেইলর ২১*, মুস্তাফিজ ২/৪২)।
ফল: নিউজিল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা: মার্টিন গাপটিল।

খেলা এর আরও খবর

শচীন নটআউট ৪৬

শচীন নটআউট ৪৬

শচীন টেন্ডুলকার! ক্রিকেটের সবচেয়ে নতুন ভক্তটির কাছেও ঠিক বর্ণমালার মতো পরিচিত এক নাম। ব্যাট-বলের এই খেলাটির ইতি...