Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

যুব টেস্টের সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ

যুব টেস্টের সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ
ম্যাচজয়ী সেঞ্চুরির পর ব্যাট উঁচিয়ে অভিনন্দনের জবাব দিচ্ছেন মাহমুদুল হাসান জয়/ ছবি: সংগৃহীত
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

শেষদিনে জয়ের জন্য টার্গেট ৩০৫। হাতে বাকি ৯ উইকেট। চার দিনের ম্যাচের শেষদিনে এই টার্গেট অবশ্যই সহজ কিছু নয়। সেই কঠিন টার্গেটের ম্যাচ ঠিকই জিতে নিলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

সিরিজের শেষ যুব টেস্ট জিতলো তারা ৩ উইকেটে। সেই সঙ্গে দুই ম্যাচের যুব টেস্টে বাংলাদেশের তরুণরা ২-০ তে হারালো ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে।

৩ উইকেটে জয়ী এই ম্যাচের নায়ক মাহমুদুল হাসান জয়। প্রথম ইনিংসে ৭৪ রানের হাফ সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় ইনিংসে তার ব্যাট থেকে আসে ১১৪ রানের ঝলমলে ইনিংস। মাহমুদুলকে দারুণ সমর্থন দেন ৭৬ রান করা তৌহিদ হৃদয়।

১১৪ রান করে মাহমুদুল যখন আউট হলেন তখন ম্যাচ জয় থেকে মাত্র ৭ রান দূরে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ যুব দল। শেষ দিনের শেষ বিকালে সেই আনুষ্ঠানিকতা পুরো করেন রুহেল আহমেদ ও মিনহাজুর রহমান।

প্রথম ইনিংসে ১০৯ রানে এগিয়ে থাকাটা ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে এই ম্যাচে সাহসী করে তোলে। দ্বিতীয় ইনিংসে ৮ উইকেটে ২২৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে তারা। ম্যাচ জিততে শেষ ইনিংসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সামনে টার্গেট দাঁড় করায় ৩৩৩ রানের। তৃতীয় দিন শেষ বিকালে ১ উইকেটে ২৮ রান তুলে বাংলাদেশ যুব দল।

ম্যাচের শেষদিন ওপেনার তানজিদ হাসান ৫১ রান করেন। মিডলঅর্ডারে মাহমুদুল হাসান জয় ও তৌহিদ হৃদয় চতুর্থ উইকেটে ১৪২ রানের জুটি গড়েন। এই জুটিই অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ম্যাচ জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়।

মাহমুদুল হাসান ১৩ বাউন্ডারিতে ২২৪ বলে ১১৪ রান করেন। তৌহিদ হৃদয় ৬ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ১৪৫ বলে ধৈর্যশীল কায়দায় ৭৬ রান করেন।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দুই টেস্টের সিরিজের প্রথমটিতেই বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল জয় পেয়েছিলো।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ইংল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৯ দল: ৩৩৭ ও ২২৩/৮ ডিক্লেয়ার্ড। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল: ২২৮ ও ৩৩৩/৭ (তানজিদ ৫১, মাহমুদুল হাসান জয় ১১৪, তৌহিদ হৃদয় ৭৬, ফিঞ্চ ২/৬০, অ্যালড্রিচ ২/৭৯)। ফল: বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল ৩ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হয়েছেন মাহমুদুল হাসান জয়। সিরিজ সেরা: মিনহাজুর রহমান। সিরিজ: বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল ২-০ তে জয়ী।

আপনার মতামত লিখুন :

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক
মাশরাফির ইনজুরিতে নেতৃত্বে তামিম

শনিবার দুপুরে শ্রীলঙ্কার পথে দেশ ছাড়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। তিন ওয়ানডের মিশন। কিন্তু তার আগে জাতীয় দলে বড় রকমের পরিবর্তন! ইনজুরিতে সফর থেকে ছিটকে গেলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নতুন করে চোটে পড়ে সফর শেষ অধিনায়কের। বাধ্য হয়েই তার বিকল্প খুঁজে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

তিন ম্যাচ ওয়ানডের এই সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেবেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল। শুক্রবার রাতে তাকে নেতৃত্ব দিয়েছে বিসিবি।

আর মাশরাফির ইনজুরিতে দলে জায়গা পেলেন অলরাউন্ডার ফরহাদ রেজা। লঙ্কান সফরে দলে নেই মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। তার বদলে নির্বাচক সুযোগ দিলেন পেসার তাসকিন আহমেদকে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে গিয়ে চোট পান মাশরাফি। চোট গুরুতর। এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কায় যাওয়া হচ্ছে না। বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমে জানান, ‘মাশরাফি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছে। চোট থেকে সেরে উঠতে কমপক্ষে তিন সপ্তাহ লাগবে।’

আগামী ২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ।

ওয়ানডের বাংলাদেশ দল-
তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাসকিন আহমেদ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, ফরহাদ রেজা, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, এনামুল হক।

ইনজুরিতে শ্রীলঙ্কা সফর শেষ মাশরাফির

ইনজুরিতে শ্রীলঙ্কা সফর শেষ মাশরাফির
শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে পারছেন না মাশরাফি

হঠাৎ করেই দুঃসংবাদ! দল শ্রীলঙ্কায় তিনটি ওয়ানডে খেলতে দেশ ছাড়বে শনিবার দুপুরে। তার আগে শুক্রবার জানা গেল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ইনজুরিতে। আর সেই চোট একেবারে মামুলি নয়। নতুন চোটে রীতিমতো তার শ্রীলঙ্কা সফরটাই শেষ।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সন্ধ্যায় অনুশীলন করতে গিয়ে চোট পেয়েছেন মাশরাফি। এরপরই জানা গেছে-আগের জায়গাতেই নতুন করে চোট পেলেন তিনি। চোট গুরুতর। এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কায় যাওয়া হচ্ছে না। এমনই ইঙ্গিত টিম ম্যানেজম্যান্টের!

বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমে জানান, ‘মাশরাফি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছে। চোট থেকে সেরে উঠতে কমপক্ষে তিন থেকে চার সপ্তাহ লাগবে।’ 

২০১৪ সালে নেতৃত্ব পেয়ে চোট সামলে বেশ খেলছিলেন মাশরাফি। ইনজুরিতে এরপর  কোনো ম্যাচ মিস করেননি। হ্যামস্ট্রিংয়ের সঙ্গে লড়ে খেলিছেলন বিশ্বকাপে। কিন্তু এবার চলে গেলেন মাঠের বাইরে!

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে যদিও মাশরাফি জানিয়ে দেন, দলের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা সফরে তিনি যাচ্ছেন। আর এটাই নিজের শেষ বিশ্বকাপ কীনা এনিয়ে টাইগার ক্যাপ্টেন সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমারটা আমি বলতে পারছি না।অবসর নিয়ে চিন্তা করিনি। খেলতে যাচ্ছি শ্রীলঙ্কায়, খেলা নিয়ে চিন্তা করছি। আমার কাছে খেলাটা ছাড়া অনেক বড় ব্যাপার।’

তবে জানিয়ে রাখলেই খেলোয়াড় হিসেবে এটিই তার শেষ লঙ্কা সফর। বলেন ‘এটা বলতে পারি-শ্রীলঙ্কায় আমার শেষ সফর। যেহেতু অনেক দিন খেলানেই। শ্রীলঙ্কায় শেষবারের মতো যাচ্ছি, বিশ্বকাপের আগে যেভাবে বলেছিলাম, সেভাবেই বলছি। আসার পর হয়তো সময় পাব।’

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপটের সময়ই ভাসছিল মাশরাফির অবসর গুঞ্জন। টুর্নামেন্টে মাত্র ১ উইকেট শিকার করে সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। অনেকে মনে করেছিলৈন ফিরেই অবসর নেবেন। তবে হাল ছাড়ছেন না ৩৫ বছর বয়সী এই তারকা।

বিশ্বকাপ ব্যর্থতা প্রসঙ্গে আরো একবার বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট জানি, ১৮ বছর ক্রিকেট খেলছি। মানুষ খুব দ্রুত প্রশ্ন করা শুরু করবে। প্রত্যাশা পূরণ না হলে আমার মন খারাপ তো হবেই। তবে এখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর মানসিকতাও আছে। যেটা আগে করেছি। অনেক টুর্নামেন্টে দল হিসেবে হারানোর কিছু নেই। আমারও তাই হারানোর কিছু নেই।’

২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র