এল ক্লাসিকোতে ফের রিয়ালকে হারাল বার্সা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
তিনদিনের ব্যবধানে আবারো রিয়াল মাদ্রিদকে হারালেন লিওনেল মেসিরা

তিনদিনের ব্যবধানে আবারো রিয়াল মাদ্রিদকে হারালেন লিওনেল মেসিরা

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রতিশোধ! ঠিকই এই কাজটা করতেই মাঠে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। তিনদিন আগেই চির শত্রুর কাছে হার মেনেছিল তারা। সেই হারের জবাব দিতে চটজলদিই সুযোগ এসে যায় দলটির সামনে। কিন্তু কিসের কী, আবারো সেই পুরনো গল্প। ফের রিয়াল মাদ্রিদকে এল ক্লাসিকোতে হারিয়ে দিলো বার্সেলোনা। 

শনিবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে ১-০ গোলে জিতেছে বার্সা। মহামূল্যবান সেই গোলটি করেছেন ইভান রাকিতিচ। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটিকে হারিয়ে শিরোপা জয়ের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেল লিওনেল মেসির দল।

মনেই হয়নি আসলে রিয়াল ম্যাচটা খেলতে নেমেছে নিজেদের মাঠে। শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে এলেমেলো ফুটবল খেলে তারা যে আরো বেশি গোল হজম করেনি এটাই স্বস্তির।

গত বুধবারের এল ক্লাসিকোতে ঠিক চেনা যায়নি মেসি। এবারো তেমন ঝলক দেখাতে পারলেন কোথায়? এরমধ্যে খেলার ২৬তম মিনিটে ম্যাচে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। সার্জিও রবের্তোর সঙ্গে বল বিনিময়ে এগিয়ে যান রাকিতিচ। তারপর দারুণ গতিতে ঢুকে পড়েন রিয়াল সীমানায়। খুঁজে নেন নিশানা।

এরপর প্রথমার্ধেই আরো এগিয়ে যেতে পারতো বার্সা। ৩৮তম মিনিটে লুইস সুয়ারেস অবশ্য সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেন নি। ৫৯তম মিনিটে সুযোগ এসেছে যায় রিয়ালের। জেরার্ড পিকের আক্রমণ থেকে বল পেয়ে যান ভিনিসিউস জুনিয়র। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেন নি এই তরুণ।

একইভাবে গোল মিসের মহড়া দিয়েছে বার্সেলোনাও। ৭০তম মিনিটে উসমান দেম্বেলে সুযোগটা কাজে লাগাতে পারলে আরো এগিয়ে যেতো কাতালান ক্লাবটি। তখনই গোল পেতে মরিয়া হয়ে উঠেন মেসি। রিয়ালের ডিভেন্স ভেঙে বারবারই বল নিয়ে ঢুকে পড়েন। কিন্তু প্রতিবারই ব্যর্থ হতে হয়েছে তাকে। তবে স্বস্তি এটাই জয়ে মাঠ ছেড়েছে তার দল।

এবারের মৌসুমে সব মিলিয়ে রিয়ালের সঙ্গে চারবারের লড়াইয়ে তিনটিতেই জয় পেলো বার্সেলোনা। আরেকটি ম্যাচ ড্র। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মুখোমুখি লড়াইয়ে বার্সেলোনা পেল ৯৬তম জয়। রিয়াল জিতেছে ৯৫টি। মানে এবার মেসির দল এগিয়ে গেল এল ক্লাসিকোর হেড টু হেড লড়াইয়ে।

একইসঙ্গে এই জয়ে লা লিগায় অবস্থান আরো শক্ত হলো বার্সার। ২৬ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে কাতালান ক্লাবটি। ৫০ পয়েন্ট নিয়ে এরপরই আতলেতিকো মাদ্রিদ। আর ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে লড়াই থেকে অনেকটা পিছিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ।

আপনার মতামত লিখুন :