রিয়ালকে বিদায় করে শেষ আটে আয়াক্স

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়লেন রিয়াল তারকারা

হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়লেন রিয়াল তারকারা

  • Font increase
  • Font Decrease

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোল থেকেই বিদায় নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।  বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের উড়িয়ে দিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠে গেলো আয়াক্স। বিস্ময়কর হলেও সত্য নিজেদের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতেই বড় হারের লজ্জায় ডুবেছে রিয়াল। ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ এই টুর্নামেন্ট থেকে এবার অাগেই বিদায় হলো ফেভারিটদের।

মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর ফিরতি পর্বে ৪-১ গোলে সান্টিয়াগো সোলারির দলকে হারালো আয়াক্স। নেদারল্যান্ডসের ক্লাবটি দুই লেগ মিলিয়ে জিতেছে ৫-৩ ব্যবধানে। আর পেয়ে গেলো কোয়ার্টার-ফাইনালের টিকিট।

এই পরাজয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গত দশবছরের আধিপত্যের যেন অবসান হল রিয়ালের। এই সময়ে টানা তিনবারসহ গত পাঁচ আসরে চারবারের চ্যাম্পিয়ন তারা। রেকর্ড ১৩বারের চ্যাম্পিয়নদের এবার চেনাই গেল না!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/06/1551840959365.jpg

অবশ্য এই মৌসুমে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়া খেলতে নেমে হতাশাতেই ডুবছে দলটি। ঘরের মাঠে টানা চার ম্যাচ হারলো তারা। শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নয়, লা লিগাতেও পথ হারিয়েছে দল। গেল সপ্তাহে কোপা দেল রের সেমি-ফাইনালের ফিরতি পর্বে বার্সেলোনার কাছে ০-৩ গোলে হেরে বিদায় নেয় তারা।

যদিও ম্যাচে মন্দ খেলেনি রিয়াল। তারপরও গোলের দেখা পাচ্ছিল না। বারবারই গোল মিসের মহড়া দিয়ে গেছেন দলটির তারকা ফুটবলাররা। শুরুতেই রায়ায়েল ভারানের হেড ক্রসবারে লেগে ফিরে আসলে আক্ষেপের শুরু। এরপর পুরো ৯০ মিনিটই এভাবে হতাশা ছড়িয়েছে গ্যালারিতে।

এরমধ্যে খেলার সাত মিনিটে এগিয়ে যায় আয়াক্স। হাকিম জিয়েচের গোলে এগিয়ে যায় অতিথিরা। এরপর খেই হারিয়ে ফেলে রিয়াল। এই সুযোগ ১৮তম মিনিটে ব্যবধানটা দ্বিগুণ করে নেয় দলটি। এবারের গোলদাতা দলের ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার ডেভিড নেরেস।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/06/1551840995645.jpg

এরপর শুরু হয় রিয়ালের গােল মিসের মহড়া। অবশ্য ম্যাচে ফিরতে অতি অাক্রমণত্মক হতে গিয়ে ফের পিছিয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। ৬২ মিনিটে দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন দুসান তাদিচ। যদিও গোলটি নিয়ে সন্দেহ হলে ভিআর প্রযুক্তির সাহায্য নেন রেফারি।

এরপর অবশ্য হুশ ফিরে পায় রিয়াল। ৭০তম মিনিটে সার্জিও রেগিলনের পাস থেকে বল পেয়ে গোল করতে ভুল করলেন না মার্কো আসেনসিও। ম্যাচে ফেরার সম্ভাবনা জেগে উঠে সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটির। যদিও দুই মিনিট না যেতেই রিয়ালের সেই আনন্দ ম্লান হয়ে যায়। এবার আয়াক্সের গোলদাতা দলের ড্যানিশ মিডফিল্ডার লেসে শুন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/06/1551841020312.jpg

ম্যাচের শেষ মূহুর্তে এসে দশজনের দল হয়ে যায় রিয়াল। প্রতিপক্ষের রন দে ভিককে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ নাচো ফার্নান্দেস। তবে এর আগেই একটি গোল করে ব্যবধানটা কমিয়েছিলেন তিনি।

এই জয়ে অনন্য কীর্তি গড়ল আয়াক্স। ঘরের মাঠে ১-২ গোলে হারলেও প্রথম দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পরের পর্ব জিতে পেল শেষ আটের টিকিট।

এদিকে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে দ্বিতীয় লেগেও হারিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে টটেনহ্যাম হটস্পার। দুই লেগ মিলিয়ে জার্মান জায়ান্টকে ৪-০ ব্যবধানে হারাল ইংলিশ ক্লাবটি।

আপনার মতামত লিখুন :