Alexa

শফিউল-রকিুবলের ম্যাচে মোহামেডানের জয়

শফিউল-রকিুবলের ম্যাচে মোহামেডানের জয়

পাঁচ উইকেট তুলে নিয়েছেন শফিউল -ফাইল ছবি

এই ম্যাচের সবকিছুই জমা ছিলো তাহলে শেষের নাটকের জন্যই!

শেষের সেই নাটকীয়তায় জিতলো মোহামেডান। আর ব্যাট হাতে দলের এই জয়ের নায়ক অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রকিবুল হাসান। তার হার না মানা ৮২ রানের চওড়া ব্যাটেই মোহামেডান ৩ উইকেটে হারালো গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে। তবে ম্যাচ সেরার কৃতিত্বে রকিবুলের ৮২ রানকে পেছনে ফেললেন পাঁচ উইকেট শিকারি শফিউল ইসলাম।

শনিবার (৯ মার্চ) সাভারে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে গাজী গ্রুপ যে ভয়াবহ বিপদে পড়ে তাতে একসময় মনে হচ্ছিলো তিন অংকেও পৌছাবে না তাদের স্কোর। ২৬ রানে নেই শুরুর ৬ উইকেট! এই ৬ উইকেটের মধ্যে পাঁচটিই মোহামেডানের পেসার শফিউল ইসলামের! ব্যাটিংয়ে চরম সঙ্কটে পড়া দলকে উদ্ধারে এগিয়ে আসেন শেষের ব্যাটসম্যানরা।

সাত আট ও নয় নম্বরে ব্যাট করতে নামা তিন ব্যাটসম্যানের কৃতিত্বে গাজী গ্রপের সঞ্চয় কিছুটা লড়াইয়ের পুঁজি পায়। ১৮২ রানে থামে গাজীর নড়বড়ে ইনিংস। যেখানে সাত নম্বরে ব্যাট করতে নামা তৌহিদ তারিখ খানের অবদান ৭০ বলে ৫৬ রান। তবে সবাইকে ছাড়িয়ে ব্যাট হাতে বিস্ময় উপহার দেন আট নম্বরে ব্যাট করতে নামা শামসুল ইসলাম অনিক। মাত্র ৩ বাউন্ডারিতে ১১১ বলে তার অপরাজিত ৭১ রান গাজী গ্রপের ইনিংসে সবচেয়ে সাহসী ব্যাটিংয়ের পদক পাচ্ছে! নয় নম্বর ব্যাটসম্যান আবু হায়দার রনির ৩৪ বলে ২৪ রানও দলের সংগ্রহকে দুশোর কাছে পৌছে দেয়।

মোহামেডানের বোলিংয়ের পুরোটাই জুড়ে কেবল একটাই নাম-শফিউল ইসলাম। এক স্পেলেই গাজীর ৫ উইকেট উপড়ে দেন তিনি। চলতি লিগে ম্যাচে পাঁচ উইকেট শিকারের এটাই প্রথম কৃতিত্ব।

জবাব দিতে নেমে মোহামেডানের ব্যাটিংও ছত্রখান হয়ে পড়ে! ২২.১ ওভারেই তারা মাত্র ৮৭ রানে হারিয়ে ফেলে ৬ উইকেট। ম্যাচে গোল্ডেন ডাক মারেন মোহাম্মদ আশরাফুল ও ইরফান শুকুর। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বসে মোহামেডান।

বিপর্যয়টা একা হাতেই সামাল দিলেন অভিজ্ঞ রকিবুল হাসান। একপ্রান্ত আঁকড়ে রেখে রকিবুল ধৈর্য্যশীল ব্যাটিং করে গেলেন। ১২৪ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় তার অপরাজিত ৮২ রানের ইনিংস মোহামেডানকে ৩ উইকেটের জয় উপহার দিলো। শেষের দিকে সোহাগ গাজীর ২৯ ও নয় নম্বরে ব্যাট করতে নামা আলাউদ্দিন বাবু অপরাজিত ১৪ রান মোহামেডানের জয়ে অবদান রাখে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স: ১৮১/১০ ( ৪৫.২ ওভারে, তৌহিদ তারিক ৫৬, অনিক ৭১*, রনি ২৪, শফিউল ৫/৩২, সোহাগ গাজী ২/১৭)। মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব: ১৮৩/৭ (৪৫.৩ ওভারে, রকিবুল ৮২*, সোহাগ গাজী ২৯, আলাউদ্দিন বাবু ১৪*, রুয়েল ২/৩২, কামরুল ২/১৯)। ফল: মোহামেডান ৩ উইকেটে জয়ী। ম্যাচ সেরা: শফিউল ইসলাম।

আপনার মতামত লিখুন :