Alexa

এএফসি অনুর্ধ্ব-২৩ ফুটবলে ‘বি’ গ্রুপের বাছাইপর্ব

রক্ষণের ভুলে গোল, ন্যূনতম ব্যবধানে বাংলাদেশের হার

রক্ষণের ভুলে গোল, ন্যূনতম ব্যবধানে বাংলাদেশের হার

ছবি: সংগৃহীত

স্পেশাল করেপসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের অনুশীলন পর্বের একটা অংশই আছে- ক্লিয়ার করা, বল ক্লিয়ার করা! প্রতিপক্ষ যখন বেশিমাত্রায় শক্তিশালী হয়, তখন রক্ষণের জন্য এই বল ক্লিয়ার কৌশল বেশ কাজে দেয়।

বাইরাইন অনেক শক্তিশালী দল। গোল খাওয়ার আগ পর্যন্ত তাদের বিপক্ষে ম্যাচে বল ক্লিয়ারের কাজটাই করতে পারলো না বাংলাদেশ। বাহরাইনের কাছে ১-০ গোলে বাংলাদেশের হারের কারণও যে সেটাই! আর এই গোলের পুরো দায় রক্ষণের খেলোয়াড়দের।

পেনাল্টি বক্সের আশপাশ ঘিরে আছে বাহরাইনের গোলক্ষুধার্ত স্ট্রাইকাররা। বল উড়ে এলো সেখানে। কিন্তু সেই বল প্রথম প্রচেষ্টায় এমনকি দ্বিতীয় চেষ্টায়ও ক্লিয়ার করতে পারলো না বাংলাদেশের রক্ষণভাগে দাড়ানো তিনজন খেলোয়াড়। গোলপোস্টের সামনে এতবড় সুযোগ পেলো কি স্ট্রাইকাররা আর মিস করে?

করেওনি! ম্যাচের প্রথমার্ধে তেমন লোপ্পা সুযোগকে গোলের কাজে লাগান বাহরাইনের অধিনায়ক ইউসুফ হারদান। পুরো ম্যাচে আর কোন গোল হয়নি। সেজন্য পুরো বাংলাদেশ দলের উচিৎ গোলকিপার আনিসুর রহমানকে বড়সড় একটা ধন্যবাদ দেওয়া। শুয়ে বসে, সামনে বেড়ে অন্তত আরো তিনটি নিশ্চিত গোল বাঁচিয়েছেন বাংলাদেশের এই গোলকিপার। নিঃসন্দেহে এই ম্যাচে বাংলাদেশের সেরা খেলোয়াড় গোলকিপার আনিসুর।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553279900114.jpg

আহা! রক্ষণ থেকে যদি আরেকটু ভরসা পেতেন আনিসুর?

এএফসি অনুর্ধ্ব-২৩ ফুটবলে ‘বি’ গ্রুপের বাছাইপর্বের এই ম্যাচে প্রতিপক্ষ স্বাগতিক বাহরাইনকে হট ফেভারিট মেনেই মাঠে নামে বাংলাদেশ। টিম ফর্মেশনে জানান দেয় এই ম্যাচে দলের ডিফেন্স নিয়েই বাংলাদেশ কোচ বেশি ভাবছেন। ৫-৪-১ এই ফর্মেশনে একাদশ সাজান কোচ। তবে ডিফেন্সের শুধু লোক বাড়ালেই তো হবে না, পজিশন সেন্সও ফুটবলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই ম্যাচে স্পষ্ঠত সেই জ্ঞানের অভাবে ভুগেছে বাংলাদেশ।

পার্থক্যটা আরেক জায়গায় বড় বেশি চোখে পড়েছে; গতি! বল নিয়ে অথবা বল ছাড়া উভয় ক্ষেত্রে বাইরাইনের চেয়ে গতিতে অনেক পিছিয়ে থাকে বাংলাদেশ। গতি ও তেজের লড়াইয়ে পুরো ম্যাচে বাইরাইনের সমকক্ষ হতে পারেনি বাংলাদেশ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553279883964.jpg

গোলের সংখ্যা যাতে বেশি না বাড়ে সেজন্য সেন্টার মিডফিল্ডে খেলা ফুটবলারদের কোচ জেমি ডে নিচের দিকেই বেশি থাকতে বাধ্য করছেন। মাঝমাঠ উপরের দিকে উঠে আক্রমণ সাজানোর চেয়ে নিচের দিকে নেমে রক্ষণভাগকে সহায়তার কাজটাই এই ম্যাচে বেশি করেছে। হারের ব্যবধান ১-০ তে আটকে রাখতে পারার বড় কারণ সেটাও।

এই বাছাই পর্বের এই ম্যাচে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ ২৪ মার্চ, প্রতিপক্ষ ফিলিস্তিন। ২৬ মার্চ একই মাঠে বাংলাদেশ বাছাই পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে খেলবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

খেলা এর আরও খবর