Alexa

সাইফুদ্দিনের বোলিংয়ে ধসে গেলো দোলেশ্বর

সাইফুদ্দিনের বোলিংয়ে ধসে গেলো দোলেশ্বর

ম্যাচ সেরার পুরষ্কার হাতে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, ছবি: সংগৃহীত

এই ম্যাচের নাম এখন বদলে দেয়ার দাবি তুলতেই পারেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। নতুন নাম; প্রাইম দোলেশ্বর বনাম সাইফুদ্দিন! বল হাতে নিয়ে সাইফুদ্দিন যা করলেন তাতেই উড়ে গেলো প্রাইম দোলেশ্বরের ব্যাটিং লাইনআপ। সুপার লিগের শুরুটা করলো আবাহনী ১৬৫ রানের বিশাল জয় দিয়ে। আবাহনীর ২৫১ রানের জবাবে দোলেশ্বর ধসে গেলো ৮৬ রানে।

আর দোলেশ্বরকে মূলত ধসিয়ে দিলেন ঐ একজনই মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। সবার আগে তার বোলিং বিশ্লেষণটাই জানাই-৬ ওভারে ২ মেডেনসহ মাত্র ৯ রানে ৫ উইকেট! দোলেশ্বর আসলে যা করলো তাকে ব্যাটিং বলে না। বলে হুড়মুড়িয়ে ধসে পড়া! পুরো ম্যাচে মাত্র ৩৬টি বল করার সুযোগ পেলেন সাইফুদ্দিন। তাতে আবার ডট বল ৩০টি। আবাহনীর এই পেসারের চমৎকার সুইং ও সঠিক লাইন লেন্থে পড়া বল খেলতে দোলেশ্বরের ব্যাটসম্যানদের যেন নাভিশ্বাস উঠে গেল। একেকটা বল করছেন সাইফুদ্দিন আর মনে হচ্ছে এই বলেও বুঝি উইকেট পাচ্ছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/15/1555334505625.jpg

সঙ্গী বোলারদের কাছ থেকেও দারুণ সমর্থন পান সাইফুদ্দিন। স্পিনার সানজামুল ইসলাম ৪.৪ ওভারে ২৩ রানে শিকার করেন ২ উইকেট। আবাহনীর বোলারদের মধ্যে কেবল মাশরাফি বিন মর্তুজা ছাড়া সবাই উইকেট পান।

ব্যাটিংয়ে আবাহনীর ইনিংসের শুরুটা যা হয়েছিলো তাতে কেঁপে উঠে পুরো ডাগ আউট। ৪.৪ ওভারেই ১২ রানে ৩ উইকেট নেই! ওয়াসিম জাফর ও নাজমুল হোসেন শান্ত সেই সংকট থেকে দলকে উদ্ধার করেন। দুজনেই সত্তরের ঘরে গিয়ে আউট হন। আবাহনীর ২৫১ রানের সঞ্চয়ে মোহাম্মদ মিঠুন ৪১ ও শেষের দিকে মাশরাফি বিন মুর্তজা ২১ বলে ২৪ রান করেন।

রান তাড়ায় নামা প্রাইম দোলেশ্বর তৃতীয় বলেই উইকেট হারায়। ধসের সেই শুরু। সেই ধস আর থামলো না। ‘সাইফুদ্দিনের ম্যাচে’ দোলেশ্বর অলআউট ৮৬ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: আবাহনী ২৫১/১০ (৪৯ ওভারে, জাফর ৭১, শান্ত ৭০, মিঠুন ৪১, মাশরাফি ২৪, আবু জায়েদ ৩/৪৭, ফরহাদ রেজা ২/৪৩, সাইফ হাসান ২/৩৭)। প্রাইম দোলেশ্বর: ৮৬/১০ (২৯.৪ ওভারে, সাইফ ১৩, মাহমুদুল হাসান ২৭*, সাইফুদ্দিন ৫/৯, সানজামুল ২/২৩, মিরাজ ১/৭)। ফল: আবাহনী ১৬৫ রানে জয়ী।

ম্যাচ সেরা: মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

আপনার মতামত লিখুন :