আবাহনীকে আটকে দিল মিনেরভা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম
ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে আবাহনী লিমিটেড

ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে আবাহনী লিমিটেড

  • Font increase
  • Font Decrease

জয়ের ছন্দ ধরে রাখতে পারেনি আবাহনী লিমিটেড। এএফসি কাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য হারের তিক্ত স্বাদ পায়নি বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন দলটি। বরং স্বস্তির ড্রয়ে ‘ই’ গ্রুপের লড়াইয়ে দাপট ধরে রাখলো। ম্যাচে প্রথমার্ধে খুঁজেই পাওয়া যায়নি ধানমন্ডির ক্লাবটিকে। শেষ অব্দি দুইবার পিছিয়ে পড়েও এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে আবাহনী।

বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ভারতের চ্যাম্পিয়ন মিনেরভা পাঞ্জাব আটকে (২-২) দিয়েছে আবাহনীকে।

গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেপালের চ্যাম্পিয়ন ক্লাব মানাং মার্সিয়াংদিকে ১-০ গোলে হারায় আবাহনী। আর চেন্নাইন এফসির সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল মিনেরভা। এ অবস্থায় দুই ম্যাচে ৪ পয়েন্ট আবাহনীর। ২ পয়েন্ট মিনেরভার।

বলা যায়- ম্যাচের প্রথমার্ধটা ছিল ভারতীয় ক্লাব মিনেরভার। একের পর এক আক্রমণে ব্যস্ত রাখে আবাহনীর রক্ষণভাগের ফুটবলারদের। এরই পথ ধরে খেলার ১৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় তারা। মাকান উইংলের ক্রসে অধিনায়ক আমনার প্লেসিং শট। বল চলে যায় স্বাগতিকদের জালে (১-০)।

এরপরই অবশ্য ম্যাচে ফেরে আবাহনী। ২০তম মিনিটে কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্টের অসাধারণ পাস নিখুঁত দক্ষতায় প্রতিপক্ষে জালে পাঠান ফর্মে থাকা স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন (১-১)। পরের মিনিটেই অবশ্য প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে একা পেয়েছিলেন সুযোগ কাজে লাগাতে পারেন নি সানডে চিজোবা।

এরপর প্রথমার্ধ শেষের বাঁশি বাজার আগেই গোপালান ভালিয়াভিত্তুর গোলে এগিয়ে মিনেরভা। এবারো লিড বেশিক্ষণ ধরে রাখা হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সমতা ফেরায় আবাহনী। ওয়ালী ফয়সালের কর্নার কিক থেকে উড়ে যাওয়া বল ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। এরপরই ফিরতি বলে নিশানা খুঁজে নেন চিজোবা (২-২)।

শেষ অব্দি এই ব্যবধান নিয়েই মাঠ ছাড়ে আবাহনী-মিনেরভা।

এএফসি কাপে বাংলাদেশের পরের ম্যাচ ৩০ এপ্রিল। প্রতিপক্ষ ভারতের চেন্নাইন এফসি।

আপনার মতামত লিখুন :