Alexa

সেরা দল, তবে টিম ম্যানেজমেন্ট অদূরদর্শী-বললেন ফারুক

সেরা দল, তবে টিম ম্যানেজমেন্ট অদূরদর্শী-বললেন ফারুক

ফারুক আহমেদ : সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক

১৬ এপ্রিল বিশ্বকাপে বাংলাদেশের দল ঘোষণার পর থেকে চারধারে একটাই কৌতুহল-কেমন হলো বাংলাদেশের এবারের বিশ্বকাপ দল? প্রায় সবার মতো জাতীয় দলের সাবেক প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদও মানলেন-‘বিশ্বকাপের দলটা ভালো হয়েছে। সম্ভাব্য সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে থেকেই দল বানানো হয়েছে। টিমটা একদম খারাপ হয়নি। এখন বাকিটা হলো ক্রিকেটাররা সবাই মাঠে গিয়ে পারফর্ম করা।’

দল গঠনে নির্বাচকদের বাহবা দিলেও ফারুক আহমেদ অন্য প্রসঙ্গে টিম ম্যানেজমেন্টকে সমালোচনায়ও বিদ্ধ করেছেন। দল ঘোষণার পরও বলা হচ্ছে আয়ারল্যান্ডে তিন জাতি ক্রিকেটের পারফরমেন্সের পরে বিশ্বকাপের দলে পরিবর্তন আসতে পারে-টিম ম্যানেজমেন্টের বলা এমনসব কথাবার্তা জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচকের মোটেও পছন্দ হয়নি।

নিজের মতামত জানিয়ে ফারুক বলেন-‘দল ঘোষণার পরও বলা হচ্ছে দলে বদল আসতে পারে। ২৩ মে পর্যন্ত দলে বদলের সময় আছে। এটা নিয়ে এখনো টিম ম্যানেজমেন্ট চিন্তাভাবনা করছে। আমার মতে এমন চিন্তা ভাবনা পুরো দলকে মোটেও আত্মবিশ্বাস দেবে না। দলের খেলোয়াড়রা ভাববে, আয়ারল্যান্ড সফরে যদি ভালো না করি তাহলে তো বাদ পড়ে যেতে পারি। এতে দলের খেলোয়াড়রা আত্মবিশ্বাসহীনতায় ভুগবে।’

২৩ মে পর্যন্ত আইসিসির অনুমতি ছাড়াই যে কোন দলের বিশ্বকাপের ঘোষিত দলে পরিবর্তনের সুযোগ আছে। এটা তো সবার জানা। কিন্তু তাই বলে দলে সম্ভাব্য বদলের চিন্তাটা যখন খোদ টিম ম্যানেজমেন্ট ঘোষণা হিসেবে দেয়-তখন বোঝা যায় যাদেরকে নিয়ে দল গড়া হয়েছে তাদের ওপর শতভাগ আস্থা হয়তো নেই। ফারুক এটাই মাইনাস পয়েন্ট হিসেবে ধরে জানালেন-‘ সম্ভাব্য বদলের কথাটা এমন সরাসরি না বলে অন্যভাবেও বলা যেতো।’

-কিভাবে?

ফারুকের সমাধান-বলা যেতে এটাই আমাদের সেরা দল। যারা ফর্মে নেই আশা করবো তারা ফর্মে ফিরবে। তাহলেই কিন্তু ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাসটা একটু ভালো হতো। কিন্তু যেভাবে কথাটা বলা হয়েছে তাতে আমার কাছে মনে হয়েছে টিম ম্যানেজেন্টের মধ্যে দূরদর্শিতার অভাব রয়েছে। এটুকু জটিলতা ছাড়া বাকি টিম গঠন আমার কাছে মনে হয়েছে বর্তমান সময়ের জন্য এটাই সেরা দল।’

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ দল গঠনের সময় ফারুক আহমেদ ছিলেন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক। সেই দলের সঙ্গে এই দলের তুলনার প্রসঙ্গ উঠলে ফারুক কোন বিতর্ক তৈরির সুযোগই দিলেন না-‘২০১৫ বিশ্বকাপ দলটাও খুব ভালো ছিলো। সেটা আমরা মাঠেই প্রমাণ করে করেছি। সেই বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছি আমরা। সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেট মাঠে আমাদের ভালো পারফরমেন্সের অভিজ্ঞতা হয়েছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছি আমরা। এবারো আমরা একই কন্ডিশনে সেখানে খেলবো। সেই সুখস্মৃতি মনে রেখে দলের সিনিয়র খেলোয়াড় যদি ভালো খেলে, তাহলে এবারের বিশ্বকাপেও আমাদের ভালো কিছু করার সম্ভাবনা আছে।’

বাংলাদেশ দলকে আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে দিলেন সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক।

আপনার মতামত লিখুন :